রাত পোহালেই রাম মন্দির শিলাবিন্যাস, প্রধানমন্ত্রী কি যাবেন নাকি আইসোলেসন থাকবেন ছায়া সঙ্গির জন্য

0
Will the Prime Minister go to Ayodhya tomorrow?
কিচাবে সম্পূর্ণ হবে রাম মন্দির সিলা বিন্যাসের কাজ

হাজার সংবাদ ডেস্ক: রবিবার দিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিজে জানিয়েছেন তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ভর্তি আছেন হাসপাতালে। রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর তিনি জনস্বার্থে বার্তা দিয়েছিলেন যে বা যারা আমার সাথে এই কয়েকদিন যাবত ঘোরাফেরা করেছে তাদেরকে আমি বলছি কয়ারেন্টাইন থাকতে। চাইলে তারা নিজেদের মতো করে আইসোলেশন থাকতে পারে। তারপর বাবুল সুপ্রিয় তথা আরো বেশকিছু সহচারি আইসলেশন আছে বলে জানিয়েছে তারা নিজেরাই। এদিকে রাত পোহালেই রাম মন্দির শিরাবিন্যাস তার কি হবে যেখানে সহচারি হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর সাথে থাকতেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

তা নিয়ে যদিও প্রধানমন্ত্রী একবারও কিছু বলেননি তবে তিনি আইসোলেশন এও জানি তাহলে কি শিরাবিন্যাস অনুষ্ঠানে তিনি নিজে যাবেন নাকি অনুষ্ঠান বাতিল হবে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে প্রধানমন্ত্রী দিকে। যদিও তিনি হলেন এবং জানাননি তিনি সেখানে যাবেন কি যাবেন না এবং গেলেও কিভাবে সেই নিয়ম পালন করা সম্ভব বা কতটা দূরত্বে পালন করা সম্ভব তা নিয়েও জল্পনা রয়েছে। বহুবার পরিবর্তন হওয়ার পর যদিও একটি ঠিক হয়েছিল অযোধ্যা রাম মন্দির তাতেও বাধা কি করপুজো করবেন নাকি তিনি আদৌ যাবেন না তা নিয়ে এখনও সংশয় রয়েছে তিনি নিজে থেকে কোনোভাবেই কোনো কথা বলেননি।

দেশে কোনো পরিস্থিতি এখন যে অবস্থা তাতে কোনোভাবেই মেনে কোনো কাজ করা সম্ভব নয় যদিও রাম মন্দির সেদিন আসা যাবেনা বলে জানিয়েছিল তার মধ্যে ছপ্রত্যেকটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং দেশের প্রধানমন্ত্রী এছাড়া সামান্য কয়েকজন অতিথিবৃন্দ ছাড়া অন্য কাউকে এখানে আসতে দেওয়া যাবেনা বলে জানানো হয়েছিল এবং সাথে মানতে হবে দূরত্ব বৃদ্ধি এবং বেশকিছু স্বাস্থ্যবিধি। প্রধানমন্ত্রীর আসনে না যাওয়া এবং মুখ বন্ধ করে থাকার পেছনে কি কারণ রয়েছে তা কেউ জানে না।

তবে সেখানকার পুরোহিতরা জানিয়েছে যে প্রধানমন্ত্রী নিজেই অনুষ্ঠানে থাকবেন এবং রাম মন্দির পূজা তিনি নিজেই করবেন যথেষ্ট স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই নিয়ম করা হবে বলে জানিয়েছে সেখানকার পুরোহিতরা। কিন্তু তারপরেও প্রধানমন্ত্রী নিজে কিছু জানাননি। রাত পোহালে বোঝা যাবে। তিনি সেখানে যাবেন কি যাবেন না এবার শুধু সময়ের অপেক্ষা দেখার যে আদৌ রাম মন্দির শিরাবিন্যাস হবে কি হবে নাকি অন্য কাউকে দিয়ে সেই মন্দির পূজা করানো হবে তা নিয়েও ভাবনা চলছে। তবে এই খবর কোনভাবে বাইরে আসেনি বার বার ওঠা এবং আইসোলেশন থাকা এই নিয়ে এখনও জল্পনা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে যেহেতু এখন পরিস্থিতি ঊউর্দ্ধমুখী তাই প্রত্যেকটা দিকে মেনে চলা একান্ত জরুরী।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন