নিউ নর্মাল নিয়মে কেমন হল NEET পরীক্ষা?

0
What rules have been followed in the NEET exam
NEET Exam

হাজার সংবাদ ডেস্ক: আজ ১৩ সেপ্টেম্বর। আজকে ছিল সর্বভারতীয় পরীক্ষা নিট। এই পরীক্ষাতে কতটা সুরক্ষা বিধি নেওয়া হয়েছিল এবং পরীক্ষার্থীদের নিয়ে যে যানবাহন সমস্যাটা কতটা তা জেনে নিন। প্রথম থেকে আমরা দেখেছি যে রাজ্য সরকারের কথা অনুযায়ী এই পরীক্ষা পেছানো সম্ভব হইনি। কোনোভাবেই পেছানো হয় নি বলে রাজ্য সরকার চাইলেও এই পরীক্ষার সময়সূচি পেছায়নি। কিন্তু প্রথম জয়েন্ট এন্ট্রান্স এক্সামিনেশন যেমন সমস্যা হয়েছিল পরীক্ষার্থীদের। সেই সময় অনেক পরীক্ষার্থীরা এসে পৌঁছায়নি। অনেকের যানবাহনের সমস্যা অনেকই আবার আটকে পরেছিল রাস্তায়।

কিন্তু নিট পরীক্ষার জন্য তার আর নয় তার জন্য যথাযথ যানবাহনের ব্যবস্থা ছিল যেমন মেট্রো পরিসেবা তেমন বাস সমস্ত রকম ব্যবস্থার মাধ্যমে পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছাতে কোন অসুবিধা না হয় তার জন্য ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার। তার সাথে জানানো হয়েছে যে কিভাবে সুরক্ষা বিধি নিয়েছিল। প্রত্যেকটা পরীক্ষাকেন্দ্র আলাদা আলাদা ভাবে একাধিক সুরক্ষা বিধি নিয়ে পরীক্ষায় বসতে দিয়েছে। তবে এবারে দুটো থেকে পরীক্ষা ছিল কিন্তু তার তিন থেকে চার ঘণ্টা আগে থেকে পরীক্ষার্থীরা এসেছিল পরীক্ষা কেন্দ্রে। দূরত্ব রেখে ব্যারিকেড করে তার মধ্যে দাঁড়িয়ে ছিল প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীর একের পর এক থার্মাল স্ক্যানিং করে তারপরে হাতে স্যানিটাইজার করে ঢুকতে পেরেছিল পরীক্ষাকেন্দ্রে।

শুধুমাত্র বাইরে নয় পরীক্ষাকেন্দ্র আলাদা আলাদা ভাবে বিভিন্ন সুরক্ষা নেওয়া হয়েছে। প্রথমে সকাল বেলা থেকে বেশ কয়েকটি পরীক্ষাকেন্দ্রে দেখা গিয়েছে বাইরে থেকে সানিটাইজড করা হচ্ছে। সমস্ত পরীক্ষা কেন্দ্র আলাদা আলাদা ভাবে যেমন করা হয়েছে সেরকম প্রত্যেকটা পরীক্ষার্থীদের দুরত্ত বজায় রেখে বসান হয়েছে। তার সাথে দেখা গেছে বেশিরভাগ পরীক্ষার্থীদের এই রকম ভাবেই আজকের পরীক্ষা শেষ হয়েছে যথেষ্ট সুস্থ এবং স্বাভাবিক ভাবেই। এই পরীক্ষা নিয়ে কথা বলা হয়েছিল তাতেও সমস্যা হয়নি। এই নিউ নরমাল নিয়মের মধ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতের সমস্যা হয়নি তেমন একটা বরং ছাত্রছাত্রীরা অনেক সুবিধা আসতে পেরেছে জয়েন্ট এন্ত্রন্স এক্সামিনেশন এর থেকে।

পরীক্ষার্থীদের হয়রানি হতে হয় নি যথাযথ মেট্রো পরিষেবা যেমন পেয়েছে তার সাথে সাথে বাসের পরিষেবা ছিল অতিরিক্ত মাত্রায়। তাই কোন ছাত্র ছাত্রীদের তেমনভাবে অসুবিধা হয়নি। সমীক্ষা অনুযায়ী প্রায় বেশিরভাগ ছাত্র ছাত্রী পরীক্ষা দিতে পেরেছে। এবার এমনটা হয়নি যে ৩০% কিংবা ৪০% পরীক্ষার্থীরা। পরীক্ষা দিতে পারেনি এমনটা নয় বেশিরভাগ ছাত্র ছাত্রীরা পরীক্ষা দিয়েছে। এবার পরীক্ষায় জানা যাবে। ঠিক কতজন ছাত্র ছাত্রী পরীক্ষা দিতে এসেছে। তবে এ রিপোর্ট অনুযায়ী বলা যায় বেসিরভাগ পরীক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিল। পরীক্ষার নিয়ম এবং সবাই পরীক্ষা দিতে পেরেছে। সবকিছু সাধারণভাবেই মিটেছে। শুধুমাত্র পরীক্ষার আগে থেকেই ঢুকতে দেওয়া হয়েছিল পরীক্ষাকেন্দ্রে। কারণ এই নিয়ম করতে বাধ্য হয়েছিল। একসাথে করা কোনভাবেই সম্ভব নয়। একে একে পরীক্ষার্থীদের ভেতরে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢুকতে গেলে এই নিয়ম ছাড়া অন্য কোন নিয়ম দেখেননি পরীক্ষাকেন্দ্রে কর্ম কর্তারা।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন