অনলাইনে টিকিট কাটতে পারবে এখন অ্যাপের মাধ্যমে! অবশেষে চালু হল অনলাইন অ্যাপ পরিষেবা

0
UTS mobile ticket booking app working now
অনলাইনে টিকিট পরিষেবা এবার চালু হয়েছে

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সারে ন’মাস ধরে বন্ধ লোকাল ট্রেন। যদিও বেশ কয়েকদিন আগে থেকে অর্থাৎ মাস দুয়েক আগে পূর্ব এবং দক্ষিণের বেশকিছু ট্রেন চলছে। তবে এখন সমস্ত ট্রেনের পরিষেবা আবার স্বাভাবিক করার চেষ্টা করেছে। রেলমন্ত্রী সাধারণ মানুষের অসুবিধা এবং সুবিধার কথা ভেবে রেল পরিষেবা আবারও চালু হয়েছে। সাড়ে নয় মাস ধরে বন্ধ হয়েছিল ট্রেন পরিষেবা তার সাথে সাথে থাকা অন্যান্য পরিষেবাগুলি। তবে ট্রেনে ওঠার জন্য আমরা সাধারণত অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট কেটে থাকতাম। এছাড়াও যারা একটু ব্যস্ত তারাও ট্রেনে ওঠার বেশ কিছুক্ষণ আগে অনলাইন মাধ্যমে অসংরক্ষিত ট্রেনে পরিক্রমা করার জন্য তবে ট্রেন বন্ধ হওয়ায় সেই পরিষেবা বন্ধ হয়েছে একই সাথে।

তবে পরিষেবা যদিও না থাকতো তার সাথে ট্রেনে চলত না। তবে অসুবিধা হলেও যেহেতু এখন ট্রেনের পরিষেবার স্বাভাবিকভাবে করে দিয়েছে তাই এই সাধারন পরিস্থিতিতে ট্রেন পরিষেবার সাথে অনেক বেশি সুবিধা হয়ে উঠেছে। এই অশংরক্ষিত টিকিট কাউন্টারের অসংরক্ষিত যেখানে মানুষ টিকিট কাটতে পারে এই বেশ কিছুদিন পরই স্বাভাবিক করার পরেও এই অনলাইন পরিষেবা চালু করে নিয়ন্ত্রন হবে অনেক কিছু। তাতে অসুবিধা হলেও কিছু মানুষের কোথাও আবার টিকিট কাউন্টার গুলি ও বন্ধ ছিল তার জন্য আরও অনেক বেশী অসুবিধায় পড়তে হয়েছে সাধারণ মানুষের। তখনই তারা আশ্রয় নিতে গেছিল অনলাইন অ্যাপ কিন্তু সেই মুহূর্তে বন্ধ ছিল এবং কোনভাবেই সেই পরিষেবা মেলাতে পারছিল না জনসাধারন।

তবে বুধবার থেকে আবার সেই পরিষেবা চালু করার কথা জানিয়েছে রেল মন্ত্রক। বুধবার থেকে সেই পরিষেবা আবারও চালু হয়েছে এবারে অসংরক্ষিত টিকিট কাটতে পারবে অ্যাপের মাধ্যমে। আবার পুরানো পরিষেবা চালু হয়েছে তাতে স্বাভাবিক মানুষের অনেক বেশি সুবিধা। তবে এর জন্য এক্সপ্রেস এবং দুরন্ত জন্য কোন টিকিট কাটা যাবে না অর্থাৎ মিলনের জন্য কোন টিকিট এই মুহূর্তে কাটা যাবে না। সেই পরিষেবা এখনো পর্যন্ত চালু করেনি রেলমন্ত্রী। শুধুমাত্র লোকাল ট্রেন এবং দক্ষিণে লোকাল ট্রেন চলছে সেজন্য এই পরিষেবার সমস্ত ট্রেন এবং অন্যান্য যে সমস্ত পরিষেবা তার জন্য এখনো পর্যন্ত আপডেট করা হয়নি এবং সচল করা হয়নি পুরানো নিয়ম অনুযায়ী বেশ কয়েকটি নিয়ম চলতে পারে।

তবে বুধবার থেকে জনসাধারণ এই অ্যাপ এর সুবিধা পাচ্ছে। তাতে জনসাধারণের যথেষ্ঠ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে পারছে এবং জনসাধারণ অনেক বেশি উৎফুল্ল এই অ্যাপ খোলার জন্য। অনেক ব্যস্ত মানুষ যারা টিকিট কাউন্টারে টিকিট কাটতে একেবারেই পছন্দ করে না তার থেকে বড় কথা সময়ের দাম এতটাই বেশি সেখানে মানুষ কোনভাবেই এই সময় নষ্ট করতে চায় না। তার জন্যই বাড়ি থেকে বেরিয়ে টিকিট কাউন্টার থেকে দূরে থাকার সময় রাস্তায় হাঁটাহাঁটি করতে করতেই কেউ টিকিট কেটে নেয় আগে থেকে বুকিং করে রাখে কেউ। সেই সুবিধা মানুষ কেন ছাড়বে তার জন্যই আবারও চালু হয়েছে এই অনলাইন পরিষেবা। অনলাইনের মাধ্যমে জনসাধারণ টিকিট কাটবে। বুধবার থেকে অসংরক্ষিত টিকিট অ্যাপটি চালু করা হয়েছে অনলাইনের মাধ্যমে সাধারণভাবে যেমনভাবে আগে চালানো হতো ঠিক একই ভাবে চলবে এবার অনলাইন অ্যাপ তবে শুধুমাত্র মেইল এবং এক্সপ্রেস ট্রেনের জন্য ব্যতীত রয়েছে বাকি সমস্ত পরিষেবা সেখানে মিলবে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন