সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সুশান্ত সিং মৃত্যুর তদন্ত করবে সিবিআই! এই মামলায় আরও কিছু নয়া নির্দেশ জাড়ি করেছে সুপ্রিম কোর্ট

0
The Supreme Court has directed the poet to investigate Sushant Singh's death
সুশান্ত সিং

হাজার সংবাদ ডেস্ক: প্রায় দু’মাস পর অভিনেতার মৃত্যুর তদন্তের মোর ঠিকঠাক চলছে বলে মনে করছে সারা দেশবাসী। শুধুমাত্র এই মৃত্যুর সঙ্গে জড়িয়ে নেই তাঁর পরিবার জড়িয়ে রয়েছে সুশান্ত অনুরাগী তথা সারা দেশবাসী। এই ঘটনার সত্যতা বিচার করতে গিয়ে সামনে উঠে আসছে বিভিন্ন লুকিয়ে থাকা তথ্য, বিভিন্ন মানুষের নাম। এটা আত্মহত্যা নাকি খুন তার কারণ কী তা নিয়ে প্রায় 40 দিন পরে এফআইআর দায়ের করেছিলেন সুসান সিং এর বাবা কে কে সিং। তবে এবার সেই মৃত্যু তদন্তে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ সিবিআইয়ের হাতে দেওয়া হয়েছে। সিবিআইয়ের হাতে যাওয়ার আগে থেকে বহু রকম ভাবে কটুকূক্তি উঠেছিল রিয়া চক্রবর্তীর নামে এবং রিয়া চক্রবর্তী নিজে জানিয়েছিলেন যে যদি সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয় তাহলে সিবিআই তদন্ত করতে পারে। তাছাড়া পাটনা পুলিশের নির্দেশে কখনো সিবিআই তদন্ত হতে পারে না। কারন শ্বেতা তাদের এক্তিয়ারের বাইরে।

তবে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে দিকে তাকিয়ে ছিল সারা দেশবাসী। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে মঙ্গলবার বেলা 11 টায় জানিয়ে দেওয়া হল যে সুসান্ত সিং এর মামলার তদন্ত করবে সিবিআই। এবার সারা দেশবাসীর ভরসা মিলেছে দেশের বিচার ব্যবস্থার উপর। শুধু তাই নয় সঠিক রায় মানুষ ভরসা পাবে। এবারও ঠিক তাই হলো সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে কি বলা হয়েছে তা একবার জেনে নেওয়া যাক- সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী রিয়া চক্রবর্তীর নামে এফআইআর ভিত্তি কোনভাবেই পাটনা পুলিশের কাছ থেকে তুলে নেওয়া যায় না। কারণ সুসান্ত সিং যখন বেঁচে ছিল তখন তার বাবা অনেকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিল সেই সময় অভিযুক্তরা তার সাথে যোগাযোগ করতে দেয়নি। অর্থাৎ সুসান্ত সিং এর বাবা তখন পাটনাতে ছিলো এবং সুসান সিং ছিল মুম্বাই তাহলে পার্টনার সাথে যোগ সূত্র রয়েছে। তাই পাটনা পুলিশ এর জন্য দায়িত্ব নিতে পারে। পাটনা পুলিশের কাছে এফআইআর দায়ের বৈধ বলে জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুনঃ সুশান্ত কেসের রায় বেলা ১১ টায়! কি রায় দেবে শীর্ষক আদালত?

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী বিচারপতি জানান যে সুশান্ত সিং ছিলেন একজন প্রতিভাবান শিল্পী এবং সেই প্রতিভাবানশীল অভিনেতার এইভাবে মৃত্যু তা মেনে নিতে পারছে না গোটা দেশ এবং তার বন্ধুবান্ধব তথা তার পরিবার এবং শুভাকাঙ্খীদের মনের মধ্যে রয়েছে অনেক সংশয়। যা উদঘাটিত হোক এটা আত্মহত্যা নাকি খুন তার জন্য এই তদন্তের ভার সিবিআইয়ের হাতে দেওয়া উচিত কারণ এতকিছু উদঘাটিত করতে হলে সিবিআই তার জন্য গ্রহণযোগ্য। তাই এ ঘটনায় সিবিআই হাতে দেওয়া হল।

যদিও সেই সূত্রে তিনি বলেছেন মুম্বাই পুলিশ না চাইলে সিবিআই তদন্ত দেওয়া সম্ভব নয় কারণ রাজ্য সরকার যদি না চায় সেই রাজ্যে সিবিআই তদন্ত হোক তখন সেটি করা সম্ভব নয়। তবে এক্ষেত্রে অন্যরকম একটি ঘটনা তৈরি হয়েছে কারণ এখানে বিচার এবং বিচার ব্যবস্থার ওপর প্রশ্ন উঠেছে সারা দেশবাসীর তাই সঠিক বিচার এবং সঠিক তদন্তের প্রয়োজন তার জন্যে মুম্বাই পুলিশকে সেই নির্দেশ মানতে বাধ্য। কারণ এখানে বিচারের উপর এবং মানুষের নেতি বাচক হয়ে উঠছে। এই আইন দিনের পর দিন যদি এভাবে চলতে থাকে তাহলে কোন ভাবে মৃত্যুর সঠিক কারণ সামনে আসবে না এবং তার জন্য বিভিন্ন রকম ভাবে ঝামেলা সৃষ্টি হবে তাতে মৃত্যুর সত্যি কারণ সামনে ধরা পড়বে না তাই এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুনঃ সুশান্তের মোবাইল থেকে এসেছে বেশ কিছু তথ্য! সুশান্ত ঘটনায় জড়িয়ে আছে দিশা সালিওনের মৃত্যু রহস্য

এছাড়া সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে মুম্বাই পুলিশ চাইলে নতুন কোন তদন্তের জন্য যদি কোন মামলা রজু করে তাহলেও তার তদন্ত চালাবে সিবিআই। কারণ গ্রহণযোগ্য প্রমাণ এবং গ্রহণযোগ্য তদন্তের জন্য সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হল সিবিআই। যদিও এর মধ্যে এনফর্সমেন্ট ডিরেক্টারদেড় দিয়ে তদন্ত ভার চালানো হয়েছে কিন্তু সিবিআই সবথেকে শেষতম তদন্ত এবং নির্ভুল বিচার করতে পারবে এবং সারা দেশবাসীর ভরসা করে সিবিআই তদন্তের ওপর। তাই সারা দেশবাসীর কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত।

সুসান্ত সিং এর মৃত্যু রহস্য সামনে আনতে গিয়ে পাটনা তথা মহারাষ্ট্রের মধ্যে যে গোলযোগ তৈরি হয়েছে এবং একটা রাজ্যের প্রতি আর একটা রাজ্যের যে অভিযোগ সৃষ্টি হয়েছে সেই অভিযোগ অত্যন্ত লজ্জার বিষয় এবং অত্যন্ত খারাপ একটি ঘটনা। এই ঘটনাকে যতদূর বেশি টেনে নিয়ে যাওয়া যাবে ততো মৃত্যু ঘটবে সত্তের বরং মৃত্যুর আসল ঘটনা কোনদিনই সামনে আসবে না। তার জন্যই দুই রাজ্যের উপর দিয়ে সিবিআই তাদের কাছ থেকে হলফনামা নিয়ে তাদের মতো করে তদন্ত শুরু করুক। সিবিআই তদন্তের সবথেকে বড় গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে এই কেসের উপর। তাই সিবিআই তদন্তের উপর ছাড়া হয়েছে এই সুসান্ত সিং এর মৃত্যু তদন্তের ভার।

এদিকে রিয়া চক্রবর্তী সিবিআই তদন্তের হাতে যাওয়ার পর জোর গলায় আবারও তিনি বলেছেন যে যার হাতে তদন্ত হোক না কেন সঠিক বিচার সামনে আসবে। কারণ আমি কোনো অন্যায় করিনি এবং সেই অন্যায় এর সঠিক বিচার হবে। আমার নাম বারবার সামনে এসেছে এবং অনুরাগীদের কাছে আমায় নিয়ে অনেক কটুক্তি উঠেছে তা এবার বন্ধ হবে কারণ সিবিআই হাতে যাক বা অন্য কোন রাজ্য কিংবা যে রাজ্য করুক না কেন তদন্ত সঠিকভাবে হবে সেই তদন্তের কোন ভুল হবে না। এত জোর দিয়ে কিভাবে রিয়া চক্রবর্তী এই কথা বলছেন আদৌ রিয়া চক্রবর্তী এর সাথে জড়িয়ে আছে নাকি এর পেছনে জড়িয়ে আছে রাজনৈতিক তকমা। তার পেছনে কথা বলেছে বিভিন্ন অনুরাগী তথা রিয়া চক্রবর্তী নেতিবাচক কিছু অনুরাগীরা। কারণ তদন্ত মেনে নিতে পারছিলেন না পার্টনার পুলিশের মেনে পারছিলেন না সেখানে হঠাৎ করে সিবিআই তদন্তের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর কিভাবে তিনি এই কথা বললেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বারবার।

যদিও সুপ্রিম কোর্টের এই রায় দেশবাসীর উপর যথেষ্ট প্রভাব ফেলেছে। দেশবাসীর আবার বিশ্বাস করতে শুরু করেছে সঠিক আইনের উপর। আইন যে আছে এবং আইন সঠিক বিচার করে তার ওপর আস্থা রেখেছে সারা দেশবাসী। এই একটা তদন্তের রায়ের ওপর দাঁড়িয়ে ছিল দেশবাসীর কারণ সব দেশবাসী চেয়েছিল এটা সিবিআই তদন্ত হোক এবং দেশবাসীর মনের কথা মনের মত তদন্তের ভার সিবিআই হাতে গিয়েছে। তার জন্য অবশ্যই দেশবাসী গর্বিত এবং আইনের ওপর যথেষ্ট আস্থা রেখেছে এবং সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছে এই তদন্ত অন্য রাজ্যের সাথে বন্ধুত্ব তৈরি হবে কিন্তু যতক্ষণ না এই তদন্ত সম্পূর্ণ হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত যথেষ্ট কটূক্তিপূর্ণ একটা পরিবেশ রয়েছে। তবে তা খুব তাড়াতাড়ি মুক্তি ঘটে কারণ সত্যিটা সামনে আসা খুব দরকার। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি জানিয়েছেন এই রায় অবশ্যই পরলোকে যাওয়া সুশান্ত অনেক খুশি হবে কারণ সুপ্রিম কোর্টের বিচারের দিকে যেমন তাকিয়ে আছে যেমন গোটা দেশ যেমন সুসান্ত সিং এর মৃত্যু রহস্যের সামনে এলে সুশান্ত শান্তিতে থাকতে পারবেন অপারে। কারণ বিচার এর ওপর ভরসা থাকবে পরকালের মানুষের সুসান্ত সিং ওপারে গিয়ে শান্তিতে থাকবেন এই বিচার যদি সামনে আসে তাই সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এই বিচার সিবিআইয়ের হাতে যাক।

এবার হয়তো খুব তাড়াতাড়ি সত্যিটা সামনে আসবে কারণ সিবিআই তদন্তের কোন আলাদা মানে নেই। সিবিআই তদন্ত সব সময় ঠিক তদন্ত সেটাই মেনে এসেছে সারা দেশবাসী। আর এবারেও সিবিআই তদন্তের জন্য সুসান্ত সিং এর মৃত্যু রহস্যে বিচার চেয়ে ছিল বিভিন্ন মানুষ এবং সুশান্ত অনুরাগী। তাছাড়াও সঠিক বিচার পাক এই রকমভাবে ও সরকারের কাছে বিভিন্ন রকম ভাবে টুইট করেছিল। তবে এবার তার সম্পূর্ণ হলো হয়তো এই বিচারে মানতে রাজি সারা দেশ। সুসান্ত সিং এর আত্মহত্যার আসল কারণ সামনে আসবে এবং সুসান সিং এর পরিবার খুশি হয়েছে এই বিচারে। সুসান্ত সিং এর পরিবার এবং সুসান্ত সিং এর দিদি এবং সবাই মিলে একটা ফেয়ার ডেকেছিল ভাইয়ের নিয়ে তাও ভালো ভাবে সম্পূর্ণ হয়েছে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন