পুজোর মধ্যে নয়! পুজোর আগে কিংবা পুজোর পরে নেওয়া হক নেট পরীক্ষা! জানিয়েছে রাজ্য

0
The state of application for change in net exam Date
নেট পরীক্ষা

হাজার সংবাদ ডেস্ক: নেট পরীক্ষা পেছানো নিয়ে আবারো প্রশ্ন উঠেছে। কেন্দ্রের নিয়ম অনুযায়ী নেট পরীক্ষা রাখা হয়েছে ২১, ২২, ২৩ শে অক্টোবর। এই নেট পরীক্ষার জন্য সমস্যা হতে পারে ছাত্র-ছাত্রীদের। পুজোর মধ্যেই রাখা হয়েছে নেট পরীক্ষার তা নিয়ে রাজ্য থেকে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন তুলেছে। রাজ্যের নবান্ন বৈঠকে জানানো হয়েছে যে পরীক্ষা যদি নিতে হয় তাহলে পূজোর আগে না হলে পুজোর পরে নেওয়া হোক। পুজোর মধ্যে কোন ভাবে পরীক্ষা সম্ভব হয়। তার উপর করোনা পরিস্থিতি তার ওপরে যদি নেট পরীক্ষা হয় তাহলে অনেক অসুবিধায় পড়তে হবে পরীক্ষার্থীদের।

নবান্ন বৈঠকের পর শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছে যে পুজোর আগে কোন ভাবে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব নয়। নিতে হলে পুজোর পরে নেওয়া হক কিংবা পুজোর আগে নিয়ে নিক। পুজোর মধ্যে তা কোন ভাবে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব নয় এমনটা এর আগে কখনো ঘটেনি। এবার যা কিছু ঘটছে তার নতুন দেখা এমনটা করলে পরীক্ষার্থীদের সমস্যা অনেক বেশি বাড়বে। এ রকম পরিস্থিতিতে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে যেতে অনেক সমস্যা হচ্ছে। তার মধ্যেই আবার যদি পুজোর সঙ্গে পরীক্ষা হয় অনেক সমস্যা হবে।

বাঙালির সেরা পূজা দুর্গোৎসব তা দুর্গোৎসবে কোনভাবেই পরীক্ষা নেওয়া ঠিক নয়। সেটা ভুল সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে কেন্দ্র থেকে। যে সময় নির্ধারণ করা হয়েছে সেই সময়সূচী নির্ঘণ্ট করার অনেক ভুল রয়েছে তা আবার পুনরায় নির্বাচন করা হোক এবং ভাবনা-চিন্তা করে ঠিক করুক জানিয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এর আগেও বিভিন্ন পরীক্ষায় রাজ্যের বাধা থাকা সত্ত্বেও ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষা নিয়েছে কেন্দ্রীয় নিয়মে তবে সেখানে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনেক সমস্যা ছিল বটে তবে সেই পরীক্ষা হয়েছে।

প্রথমবারের জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় সমস্যা হয়েছিল বহু ছাত্র-ছাত্রীদের যদিও নিট পরীক্ষার সময় অনেক কিছু সামলানো গেছে তা রাজ্য থেকে অনেক কার্যকরী ভূমিকা পালনও করেছে এবং বারতি যানবাহন থাকায় কোন রকম ভাবে ট্রান্সপোর্ট সমস্যা হয়নি পরীক্ষার্থীদের কিন্তু পরীক্ষার সময় যদি পুজো হয় অর্থাৎ বাঙালির সেরা পূজা দুর্গোত্সবের সময় যদি হয় তাহলে তাতে পরীক্ষার্থীদের সমস্যা অনেক বেশি বাড়বে। তাই ২১, ২২, ২৩ শে অক্টোবরে নির্ঘণ্ট ও করা হয়েছে সেই নির্ঘণ্ট ও সময়সীমা থেকে বেরোতে বলা হচ্ছে কেন্দ্রকে। কারন পঞ্চমী ষষ্ঠী সপ্তমী তে পরীক্ষা নেওয়া তা ভুল সিদ্ধান্ত। তা নিয়ে আবেদন জানানো হয়েছে রাজ্যের তরফ থেকে। যদিও এখনও তেমন ভাবে কোন কিছু ঠিক হয়নি তবে খুব শীঘ্রই অফিশিয়ালি হয়তো জানানো হবে নেট পরীক্ষা নিয়ে। আদৌ পরীক্ষা হবে নাকি পিছনে হবে কিংবা পুজোর আগে সেই পরীক্ষা হবে তা নিয়ে জানানো হবে শুব শিগ্রই।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন