রাজ্যের তরফ থেকে চিঠি পূর্ব রেলে! অবশেষে ট্রেন চলার অনুমতি দিল রাজ্য

0
The state government allowed trains to run in the state
লোকাল ট্রেন চলার অনুমতি দিল রাজ্য

হাজার সংবাদ ডেস্ক : অবশেষে রাজ্যে ট্রেন চলার অনুমতি দিল রাজ্য সরকার। শুধু অনুমতি দিল এমন কথা নয় রাজ্যের তরফ থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে পূর্ব রেলের কাছে এবং পূর্ব রেলওয়ের এবারে হয়তো জানাতে পারে রাজ্য ট্রেন চলবে কিনা। এর আগে পূর্ব রেল থেকে জানানো হয়েছিল যে রাজ্যে ট্রেন চালাতে চাই তার তাদের অনুমতি জানাতে সেখানে নবান্ন এর আগে কোনো রকম কোনো ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি নেয় নি। তার সাথে ছিল দুর্গা উৎসবের ঠেলা, যদি ট্রেনচল তাতে সম্যায় পড়তে মানুষ আর তার জন্যই ট্রেন চলার অনুমতি এতদিন দেওয়া হয়নি রাজ্যের তরফ থেকে। আর এবার রাজ্যের তরফ থেকে লোকাল ট্রেন চলার অনুমতি পাঠানো হয়েছে অর্থাৎ রাজ্যের তরফ থেকে লোকাল ট্রেন চলতে পারে তা নিয়ে চিঠি পাঠিয়েছে পূর্ব রেলের কাছে এবং সেখান থেকে জানানো হবে ট্রেন চলবে কি চলবে না তবে খুব শীঘ্রই চলতে পারে রাজ্যে লোকাল ট্রেন।

শুধু তাই নয় এই চিঠিতে লেখা রয়েছে যে এই রাজ্যে গণ পরিবহনের সমস্ত পরিষেবা চালু হয়েছে। শুধু বন্ধ রয়েছে ট্রেন পরিষেবা তাই এই পরিষেবা দেওয়া যায় তার জন্যই ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। তার কারণ কি এতটাই সামলাতে হয়। মানুষের তার জন্য ট্রেন বেশি না পরিস্থিতি অনেক বেশি অসুবিধা হবে। আর এতদিন যাবৎ যে সমস্ত ট্রেন চলছিল অর্থাৎ যে সমস্ত ট্রেন রেল কর্মীদের জন্য চলছিল সেই ট্রেনে সাধারণ কর্মীদের ওঠা নিয়ে অনেক সমস্যা হয়েছে এবং কোথাও কোথাও বিভিন্ন রকম ঝগড়াঝাটি হয়েছে মারধর পুলিশ অনেক কিছুই চলেছে আর সেখান থেকেই গতকাল রেল কর্মীদের সাথে সাধারণ কর্মীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব এবং সেখানে পুলিশের লাঠিচার্জে হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আর এই সমস্ত ঝঞ্জাট থেকে মুক্তি দিতে রাজ্যের মানুষের জন্য লোকাল ট্রেন চালানো বাধ্যতামূলক বলে জানিয়েছে নবান্নের চিঠিতে।

এর আগে পূর্ব রেলের তরফ থেকে বিভিন্ন রাজ্যে চিঠি দেয়া হয়েছিল। প্রত্যেক দপ্তরে জানানো হয়েছিল যে যদি রাজ্য রাজি হয় তাহলে তারা ট্রেন চালাতে বাধ্য কিন্তু তখন নবান্ন থেকে কোন উত্তর দেওয়া হয়নি বরং নবান্ন এটাই চেয়েছিল যে কোন রকম ভাবে রাজ্যে ট্রেন চালানো যাবে না। চালালে সমস্যা বাড়তে পারে রাজ্যের মানুষের আর তার জন্য ট্রেন চলছিল না কিন্তু এখন যেখানে গণপরিবহন চলছে সেখানে সরকারি কর্মী বা অন্যান্য কর্মীদের জন্য বাধ্যতামূলক কারণ সেখানে অসুবিধা অনেক বেশি বাড়ছে তার জন্য খুব শীঘ্রই চলতে পারে ট্রেন এবং আপাতত এখনও পর্যন্ত টুইট করে ও জানিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তার সাথে তিনি পূর্ব রেলের চিঠিও দিয়েছেন।

সেই চিঠি ট্রেন চলার একটা সুসংবাদ আসতে পারে সাধারণ মানুষের জন্য তবে সেখানেও তিনি বারবার জানিয়েছে জনসাধারণকে যাতে এবং বিধিনিষেধ মেনে নিজেদের দূরত্ব বজায় রাখতে পারে তার জন্যই পরিষেবা দেওয়া হোক। আর সকালে এবং বিকেলে কয়েক জোড়া ট্রেন বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। বেশ কিছু রুটে গাদাগাদি ভিড়ের মধ্যে মানুষের সমস্যা আরও অনেক বাড়বে কারণ ট্রেন চললে বিভিন্ন কোম্পানি এবং সরকারি সংস্থাগুলো খুলে দেয়া হবে। আর সেখানে কোন অবস্থা থাকবে না তার জন্য ব্যবস্থা যথাযথভাবে যদি নিতে পারে তাহলে ট্রেন চলবে খুব তাড়াতাড়ি। তার সেই জন্য পূর্ব রেলের চিঠি দেওয়া হয়েছে অপেক্ষা করা হচ্ছে পূর্ব রেলের তরফ থেকে আসা চিঠির উত্তরে কি আসে?

কারণ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় এমনও রয়েছে যেখানে ট্রেনে অত্যন্ত পরিমাণের ভিড় হয় এরকম অনেক রুট রয়েছে যেখানে এতটাই ভিড় হয় মানুষ সেখানে যাতায়াত করাটা সাধারণ অবস্থায় অনিশ্চয়তার হয়ে দাঁড়ায়। এখন করোনা পরিস্থিতিতে এত ভীরে গেলে সংক্রমণ দূরের কথা তখন হু করে বাড়বে ঊর্ধ্বমুখী হয়। আর তার জন্যই খুব স্বাভাবিকভাবে ট্রেন চলতে গেলে প্লাটফর্মে যেমন বিধিনিষেধ থাকবে তার সাথে সাথে মানতে হবে ট্রেনের মধ্যে বেশ কিছু বিধিনিষেধ আর সেই সমস্ত কিছু লেখা রয়েছে ওই চিঠিতে। আর সেই চিঠির অনুযায়ী পূর্ব রেলের তরফ থেকে উত্তরপত্রে চিঠি আসবে সেটাই তাদের তরফ থেকে জানানো হচ্ছে এই রাজ্যে ট্রেন চালাতে তারা কতটা রাজি।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন