৩৮ বছরের শিক্ষা ব্যবস্থা পরিবর্তন করছেন মোদী সরকার, ২০২১ সাল থেকে নতুন শিক্ষানীতি

0
The Prime Minister is introducing a new education policy from 2021
২০২১ সাল থেকে নতুন শিক্ষানীতি চালু করছে প্রধান মন্ত্রী

হাজার সংবাদ ডেস্ক : এবার শিক্ষা ব্যবস্থায় 2021 সাল থেকে নতুন পরিবর্তন নিয়ে আসেন কেন্দ্রীয় সরকার। উচ্চ শিক্ষার সাথে সাথে প্রাথমিক শিক্ষা দেওঘর পরিবর্তন নিয়ে আসতে চলেছে ভারত বর্ষ। অনুযায়ীর নিয়ম অনুযায়ী মাধ্যমিক পরীক্ষা গুরুত্বহীন পাবলিক আইডেন্টিফিকেশন এর জন্য যে সমস্ত পরীক্ষা চলতো তা এবার বাতিল। শিক্ষানীতিকে চারটি ধাপে ভাগ করা হয়েছে তথা ৫+৩+৩+৪ ভাগে।অর্থাৎ প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত একটি ভাগ করা হয়েছে এবং পর ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত আরও একটি ভাগ করা হয়েছে এবং নাইন-টেন নবম দশম একাদশ দ্বাদশ কেউ ভাগ করা হয়েছে একটা পর্যায়ে তাই এখানে মাধ্যমিক পরীক্ষা গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছে যে কারনে।

2021 সালের শিক্ষা ব্যবস্থায় একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণীর জন্য থাকবেনা বিজ্ঞান বিভাগ কলা বিভাগ এবং অর্থনীতি বিভাগ যারা ফিজিক্স নিয়ে পড়বে তারা চাইলে সংগীত নিয়ে পড়াশোনা করতে পারে আবার যারা সংগীত নিয়ে পড়াশোনা করছে বা শিল্পকলা নিয়ে পড়াশোনা করছে তারা চাইলে বায়োলজি ও পড়তে পারে তাই কোন বিভাগ রাখেনি উচ্চশিক্ষায় 2021 সালের নতুন শিক্ষা ব্যবস্থায় থাকবে না কোন বাধা অর্থাৎ সায়েন্স আরস এবং তাদেরকে আলাদা ভাবে ভাগ করা হবে না।

উচ্চশিক্ষার জন্য এমফিল কোর্স তুলে নেওয়া হচ্ছে থাকবে না এমফিল কোর্স।এবং যারা ব্যাচেলর ডিগ্রী অর্থাৎ স্নাতক পড়ার জন্য এখন তিন বছর করে পড়াশোনা করতে হয় কিন্তু এবার থেকে স্নাতক স্তরের পড়াশোনা চলবে চার বছর ধরে যারা আসছে রয়েছে তারা অনার্সের জন্য তিন বছর গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করে কিন্তু এবার থেকে চার বছর হবে তার কারণ হিসেবে জানিয়েছেন যে এতদিন যাবৎ ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার জন্য চার বছর করে ইঞ্জিনীরিং কোর্স চলত তার জন্য অনার্স কোর্স চার বছর করা হয়েছে সামঞ্জস্য বজায় রাখতে এই নিয়ম তাছাড়াও যারা তাছাড়াও পোস্টগ্রাজুয়েট অর্থাৎ যারা এমএ করছে তাদের জন্য দু’বছরেও করতে পারে আবার এক বছরে কমপ্লিট করতে পারে মাস্টার ডিগ্রী কোর্স যারা এমএসসি এমকম করছে তাদের জন্য একই নিয়ম রয়েছে।

নিম্ন শিক্ষার ক্ষেত্রে অর্থাৎ প্রথম শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত আঞ্চলিক ভাষায় পড়াশোনা করতে পারবে এবং পঞ্চম শ্রেণীর পর থেকে তারা চাইলে নিজেদের ঐচ্ছিক ভাষার উপর তারা পড়াশোনা করতে পারে। উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণের জন্য যে সমস্ত সংস্থা ছিল তা এখন একটি সংস্থার মাধ্যমে হবে। অর্থাৎ আগের নিয়ম অনুযায়ী UGC ছাড়া আরও কিছু সংস্থার হাতে ছিল তা এবার একটা সংস্থার পরিচালনা করবে।

প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী শিক্ষা ব্যবস্থার যে নিয়ম জারি করেছে সেই নিয়মের ওপর বেশ কিছু শিক্ষাবিদ তাদের মত পোষণ করেছে এবং তারা জানিয়েছে যে পাবলিক কমিশন এর জন্য একটা পরীক্ষা দরকার আছে যেটা ছিল মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক। যদি মাধ্যমিক পরীক্ষার কোন ভ্যালু না দেওয়া হয় তাহলে সমস্ত সরকারি পরীক্ষা গুলো কিভাবে তারা বসবে অর্থাৎ পোস্ট অফিস এবং সরকারি পরীক্ষাগুলোতে কি ভাবে দেবে যদি মাধ্যমিক পাশে শিক্ষাব্যবস্থা না থাকে তাহলে তারা কিভাবে সেই পরীক্ষায় বসবেন। মাধ্যমিক পরীক্ষার যথেষ্ট কার্যকরী ভূমিকা রয়েছে তাই মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিল করা নিয়ে তাদের যথেষ্ট মতবিরোধ রয়েছে। 38 বছরে শিক্ষাব্যবস্থা বদলানো নিয়ে বহু মতবিরোধ দেখা দিচ্ছে বহু শিক্ষাবিদদের মতে তবে তা কতটা কার্যকরী হবে তা দেখার বিষয় তার কারণ এই রকম ভাবে শুধুমাত্র মুখের কথায় কিছু হবে না তার কারণ কিভাবে নিয়ম পরিচালনা হবে এবং আগের বছরগুলোতে যে সমস্ত ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে তারা অবাক করে পরীক্ষা দেবে সেগুলো সমস্ত কিছু নিশ্চিত না করা পর্যন্ত যথেষ্ট রয়েছে তাই নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত বোঝা যাচ্ছে না কিভাবে পরিবর্তন হবে 2021 সালের শিক্ষা ব্যবস্থা।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন