অবশেষে উত্তরপ্রদেশে মেয়েদের নিরাপত্তার জন্য তৈরি হল “মিশন শক্তি”! আনুষ্ঠানিক ভাবে তার সম্প্রচার করছেন যোগী আদিত্যনাথ

0
The Mission Shakti Sangstha released in Uttar Pradesh for the safety of women
মিশন শক্তি

হাজার সংবাদ ডেস্ক: হাথরাস গণধর্ষণের পর, একের পর এক বিভিন্ন অভিযোগ ওঠে উত্তরপ্রদেশের যোগী আদিত্যনাথ এর ওপর। একের পর এক বিভিন্ন অভিযোগ এসেছে রাজনৈতিক মহল থেকে। মহিলাদের কোন রকম ভাবে নিরাপত্তা দিচ্ছে না এই রাজ্য বরং অন্যায়কারীরা একের পর এক অন্যায় করার পর তারা বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে সেই রাজ্যে এবং মহিলারা নিজেদের সামান্য দরকার সুবিধা-অসুবিধা তো দূরের কথা বাইরে পা রাখতে গেলে তাদের ভয় হচ্ছে নির্যাতনের। মহিলাদের জন্য না আছে কোন নিরাপত্তা না আছে কোন আইন। একের পর এক মহিলা নির্যাতন হচ্ছে এবং তারপর খুন করা হচ্ছে। গুন্ডা রাজ চলছে সেই রাজ্যে। কোন রকম ভাবে কোন আইন আসছেনা এর বিরুদ্ধে অথচ মহিলারা প্রতিমুহূর্তে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে এবং তার জন্য নিজে থেকেই এবং বাড়ি থেকে মহিলারা বাড়ীর বাইরে পা রাখতে ভয় পাচ্ছে আত্মহত্যা কিংবা অভিযুক্তরাই অন্যায় করে ভিকটিমকে শেষ করে ফেলছে।

এটাই কি কোন আইন? তা নিয়েও বিভিন্ন মহল থেকে আলাদা রকম ভাবে প্রশ্ন ফাঁসের গণধর্ষণের পর ধর্ষিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিল রাহুল গান্ধী এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধী তবে তাদেরকে দেখা করতে দেওয়া হয়নি বরং তারা আবারও বিভিন্ন ঝামেলার সম্মুখীন হয়েও সেই পরিবারের সাথে দেখা করার জন্য নিজেদের চিন্তা ভাবনায় অটল ছিলেন এছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের বহু মানুষ এসেছিল তাদের সাথে দেখা করতে কিন্তু যোগী আদিত্যনাথ এর রাজ্য থেকে তাদেরকে বিভিন্ন রকম ভাবে বাধা সৃষ্টি করে। তারাও এই নিয়ে জানিয়েছে যে মহিলাদের জন্য আইন কবে আসবে তা নিয়ে পুরো কোনঠাসা অবস্থা হয়েছিল যোগী আদিত্যনাথের।

তবে অবশেষে যোগী আদিত্যনাথ রাজ্যে জানিয়েছে যে খুব তাড়াতাড়ি ‘শক্তি মিশন’ নামে একটি সংস্থা শুরু হচ্ছে যেটি শুধুমাত্র মেয়েদের জন্য। প্রত্যেক থানায় থাকবে এই শক্তি “মিশন সংস্থা” থাকবে যেখান থেকে মেয়েদের নিরাপত্তা দেবে তারা। শুধুমাত্র থানাতে নয় স্কুল কলেজ এবং বিভিন্ন জায়গা সমস্ত জায়গায় এই নিয়ে প্রচার চালাতে হবে এবং প্রত্যেকটা থানার পুলিশরা সেই “মিশন শক্তির” পাশে দাঁড়ায় তার জন্য অনুমতি দিয়েছে যোগী আদিত্যনাথ। মহিলাদের জন্য সেখানে এই নিরাপত্তার জন্য “শক্তি মিশন” তৈরি হচ্ছে এইসব মিশনের সম্প্রচার করতে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন রকম ভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে। সেই আয়োজনের মাধ্যমে শক্তি মিশন মেয়েদের জন্য তৈরি হচ্ছে। এই শক্তি মিশনে মেয়েদের সমস্যা থেকে শুরু করে নির্যাতিত হওয়ার ভয় থেকে অনেকটাই মুক্তি পাবে বলে মনে করছে অনেকেই এবং আদিত্যনাথ জানিয়েছে মেয়েদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেয়ার জন্য এই শক্তি মিশন অনেক বেশি সহায়তা করবে। শুধুমাত্র মেয়েদের পরিষেবার জন্য মহিলা পরিষেবার জন্য এই পরিষেবার রাখা হচ্ছে। কমিটিও গঠন হবে শুধুমাত্র মেয়েদেরকে নিয়ে হয়তো চালু হবে সে বিষয়ে এখনো কিছু জানায়নি। কিন্তু সেটিও দেখাশোনা করবে মেয়েরাই। এই রকম ভাবে নিয়ম আনা হয়েছে এবং তার জন্য সহযোগিতা দিয়ে সব সময় পুলিশ পাশে থাকবে। সে রকমই জানিয়েছে যোগী আদিত্যনাথ।

একের পর এক মেয়েদের নির্যাতিত নিপীড়িত হতে দেখে উত্তরপ্রদেশের কথা সারাদেশের বিভিন্ন মানুষের মুখে এসেছে এবং প্রত্যেকদিন মানুষের নির্যাতন হতে হয়েছে মহিলাদের। একের পর এক নির্যাতন করা হয়েছে না বুঝে বরং তাদেরকে প্রাণহানিও হতে হয়েছে। এই নির্যাতনের প্রমাণ লোপাট করতে গিয়ে। আর সেখানেও দোষীরা কোনভাবেই শাস্তি পায়নি। তা নিয়ে যোগী আদিত্যনাথ এর ওপর বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন রকম ভাবে প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া হয় এবং তার ফলে তিনি আজকের মহিলাদের বিরুদ্ধে লড়তে নেমেছেন রাস্তায় এবং মহিলাদের জন্য নতুন আইন নিয়ে এসেছেন মিশন শক্তি নামে। এই মিশন শক্তিতে মহিলারা বুক ফুলিয়ে বাইরে বেরোবে এবং তাদের নিরাপত্তা দেবে এই মিশন শক্তি। যাতে কোনরকম ভাবে তাদের কে আর নিপীড়িত এবং নির্যাতিত হতে না হয় তার জন্যই এই নিয়ম। হাথরাসের গণধর্ষণের পর অবশেষে আইন মেয়েদের জন্য উত্তরপ্রদেশে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন