রেশন ডিলার এবং কুপন হোল্ডারকারীর জন্য নতুন ঘোষনা সরকারের!

0
the government will give ration card to cupon holder
ডিলারদের বকেয়া টাকা মেটাবে রাজ্য

হাজার সংবাদ ডেস্ক: করোনা পরিস্থিতিতে দেশে এখনো পর্যন্ত সাধারণ মানুষ তিনমাস বিনামুল্যে রেশন পাচ্ছে। বেশ কিছুদিন আগেই কেন্দ্র সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী নভেম্বর পর্যন্ত বিনা পয়সায় রেশন পাবে এবং মুখ্যমন্ত্রীর নিয়ম অনুযায়ী আগামী জুলাই অর্থাৎ ২০২১ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত বিনামূল্যে পাবে রেশন দ্রব্যাদি।

গনবন্টনে বাতিল না পরার জন্য বহু মানুষ কুপনে রেশন পাচ্ছে, পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্যেও কুপন দেখে রেশন দ্রব্যাদি দিতে হচ্ছে। কিন্তু এবার যারা কূপন হোল্ডার অর্থাৎ কুপন দেখিয়ে রেশন তুলছিল তাদেরকে কার্ড দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে খাদ্য মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। যে সমস্ত কুপন হোল্ডারকারি কুপনে মাল পায় তাদেরকে এবার থেকে কার্ড দেওয়া হবে, তার জন্য কি ফরম ফিলাপ করতে হবে এটাও খাদ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

যারা শুধুমাত্র কুপন বা তাদের বাড়িতে অন্য কারোর কার্ড নেই তাদের জন্য ফর্ম-3 আর যাদের বাড়িতে কারো না কারো কার্ড আছে হয়তো সবাইয়ের নেই তাদের জন্য ফরম-4 ফিলাপ করে জমা দিলে খাদ্য দপ্তর থেকে তাদের নামে কার্ড করে দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে খাদ্যমন্ত্রী। প্রত্যেক বিডিও ও পুরসভার কর্মচারীদের এই দুই ধরনের ফর্ম দিতে বলা হয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিক ছাড়া রেশন দ্রব্য থেকে যাতে কেউ বাতিল না যায় তার জন্য বহু মানুষের কুপনে রেশন তুলছে তাদেরকেও রেশন কার্ড করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

তার সাথে একটি বড় ঘোষণা যে- এবার ডিলারদেরকে তাদের প্রাপ্ত কমিশন মিটিয়ে দেওয়ার হবে আগামী সপ্তাহের মধ্যে। এবার থেকে প্রত্যেক সোমবার করে পুরো দিন বন্ধ থাকবে রেশন দোকান। আগের নিয়ম অনুযায়ী রেশন ডিলার দের কুইন্টালে ৭০ টাকা করে কমিশন দেওয়া হতো। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে বিনা পয়সায় বিনামূল্যে রেশন দ্রব্য দেওয়ায় টাকা পয়সা লেনদেনের ব্যপ্যার ছিলোনা। তবে তাদের প্রাপ্ত কমিশনের টাকা মিটিয়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছিল। সমস্ত রেশন ডিলারের প্রাপ্ত কমিশন টাকা দেওয়া হবে আগামী সপ্তাহের মধ্যে। কিন্তু রাজ্যের বিভিন্ন জেলার রেশন ডিলারদের অভিযোগ তারা সেই প্রাপ্ত টাকা পাচ্ছে না। পশ্চিমবঙ্গে প্রায় ২১ হাজার ডিলার রয়েছে। তাদের বকেয়া টাকা বাবদ প্রায় ৮৪ কোটি টাকা পাওনা রয়েছে ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের। তবে টা খুব তাড়াতাড়ি মিটিয়ে দেওয়ার কথা জানিয়েছে। এরমধ্যে কলকাতা এন্ড আরবান ফেয়ার প্রাইস অফ অনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন কমিটির সম্পাদক জানিয়েছেন এতদিন যাবৎ কুপন এবং কার্ড এর ছাড়াও বিভিন্ন স্লিপে রেশন দ্রব্য দেওয়ায় রেশন ডিলার এবং কর্মচারীরা হিমশিম খেতে হয়েছে। ডিলারদের জন্য নতুন করে কিছু ছাড়ের জন্য আবেদন জমা করেছেন বলে দাবি করেছে তিনি।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন