ইউজিসির নিয়ম মানতে গিয়ে মাথায় হাত কলেজ অধ্যক্ষদের! ২ ঘণ্টার মধ্যে শেষ করতে হবে পরীক্ষা

0
student has to complete the exam within 2 hours under UGC direction
২ ঘন্টায় সেস করতে হবে পরীক্ষা

হাজার সংবাদ ডেস্ক: ইউজিসি নিয়মে মাথায় হাত কলেজ অধ্যক্ষদের। কিভাবে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব এবার? যে নতুন নিয়ম পাঠিয়েছে ইউজিসি সেই নিয়ম কিভাবে ছাত্রদের উপর প্রয়োগ করা সম্ভব। আদৌ কি সেই নিয়ম প্রযোজ্য আমাদের জন্য তা নিয়ে বারবার প্রশ্ন করছে। তা নিয়ে রাজাবাজার সায়েন্স কলেজে সোমবার দিন এই বিষয়ে বিশেষ আলোচনায় বসেন তারা এবং সেই মিটিং এর পরে তারা সবাই আদবে কিভাবে পরীক্ষা নিতে চাই এবং ইউজিসি নিয়ম কিভাবে মানবে তা নিয়ে মাথায় হাত পড়েছে কলেজ অধ্যক্ষদের। শুধুমাত্র রাজাবাজার সায়েন্স কলেজ নয় ছাড়াও আরো বহু কলেজ এবং বিভিন্ন প্রত্যন্ত এলাকার কলেজগুলোতে ও চিন্তায় পড়েছেন।

কারণ এত কম সময় সীমার মধ্যে ছাত্রছাত্রীরা পরীক্ষা দেবে কিভাবে? ইউজিসির নিয়ম অনুযায়ী সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষার নিয়ম করা হয়েছে দু’ঘণ্টা। অর্থাৎ ছাত্র ছাত্রীরা পরীক্ষার সময় পাবে ২ ঘণ্টা, আর প্রশ্নপত্র ডানলোড করতে ১৫ মিনিট এবং উত্তরপত্র আপলোড করতে ১৫ মিনিট। 2 ঘণ্টা ছাড়া তারা অতিরিক্ত আধঘন্টা সময় পাবে এই সমস্ত কাজের জন্য। কিন্তু তাতেও কি কোনো লাভ হবে তার কারণ ছাত্রছাত্রীরা যদি এইভাবে পরীক্ষা দেয় তাহলে যেখানে নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি ভালো রয়েছে তারা অবশ্যই ঠিকঠাকভাবে উত্তর দিতে পারবে যেহেতু এটা অনলাইন মাধ্যম আর যেসব ছাত্র ছাত্রীরা এমন এলাকায় থাকে সেখানে ওয়াইফাই তো দূরের কথা ফোনে নেটওয়ার্ক থাকে না ভালোভাবে তারা কিভাবে পরীক্ষা দেবে? তা নিয়ে চিন্তার কাল ছায়া। খুব ভালো করে দেখতে গেলে খুব কম ছাত্র ছাত্রীর কাছে রয়েছে ভালো নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি বা কারোর কাছে আবার স্মার্টফোনেই এমন অনেক জায়গাও রয়েছে তবে কিভাবে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব তা নিয়ে অধ্যক্ষদের মাথায় পড়েছে হাত।

পরীক্ষা শুরু হওয়ার আড়াই ঘণ্টার মধ্যে সমস্ত উত্তরপত্র আপলোড করতে হবে যদি না করা হয় তাহলে সমস্যা হবে ছাত্র-ছাত্রীদের। সেই সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষা বাতিল করা হবে কিন্তু তাতে অনেক সমস্যা বাড়বে কারণ অনেক ছাত্রছাত্রী দু’ঘণ্টার মধ্যে পরীক্ষা দিলেও হয়তো প্রশ্ন আপলোড করার সময় নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি ভালো নেই তাহলে তারা কি করবে বাড়িতে বসে ভালো নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি অনেকেই পাবে না তাহলে পরীক্ষা কি আদৌ এভাবে সম্ভব? তা নিয়ে বিভিন্ন রকম ভাবে চিন্তার কালো ছায়া দেখা দিয়েছে পরীক্ষা মহলে। তবে পরীক্ষা যে হবে তা নিশ্চিত কিন্তু তার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ অনেক বেশি সহায়তা করবে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে।

বেশকিছু কলেজ তারা তাদের যথা সাপেক্ষ চেষ্টা করবে। ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে আশ্বাস দিয়েছে। তারা জানিয়েছে ছাত্রছাত্রীরা যদি চায় তাহলে কলেজে এসে পরীক্ষা দিতে পারে কারণ কলেজে ওয়াইফাই কানেকশন থাকবে সেখানে নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি কোন রকম সমস্যা হবে না। সেই সহায়তা করবে কলেজ এছাড়াও যেসমস্ত ছাত্রছাত্রীরা অনেক দূরে থাকে সেই সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের এলাকায় যদি প্রয়োজন হয় তাহলে কোন একটা সেন্টারে তৈরি করে অনেক ছাত্র একসাথে নিয়ে সেখানে নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। সেই রকম চিন্তাভাবনা নিয়েছে বেশকিছু কলেজ তবে কতটা কার্যকরী হবে তা নিয়ে এখনো চিন্তা রয়েছে তারা। সাথে কিভাবে পরীক্ষা হবে সে নিয়ে অবশ্যই চিন্তায় ছাত্রছাত্রীরা।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন