করোনা অবহেলা করে পুজোর শপিং নয়! প্রয়োজন হলে বাড়িতে বসে অনলাইনে কেনা কাটা করুন! আপনাদের সাবধানতা আতকাতে পারে তৃতীয় ঢেউ কে

0
start your online shopping for distance maintain in puja shopping
পুজর শপিং বাড়ি বসে করুন অযথা করোনা ডেকে আনবেন না

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সামনে পুজো মরশুম এসেই গেছে। বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গা পূজা। কলকাতা থেকে শুরু করে দেশের গ্রামেও প্রতিটা মানুষের মনে একটা আনন্দের উৎসব এই পুজাতে। কিন্তু এই করোনা পরিস্থিতিতে এই উৎসব মানুষকে আতঙ্কে রেখে দেয়। সেই নিয়ে অনেক মানুষের মন খারাপ করে থাকছে কিভাবে আনদ করবে। কিন্তু কিছু মানুষ আছে যারা এই করোনা কে কোন রকম গ্রাহ্য না করে গা ভাসিয়েছে আনন্দে। তেমনই সেইসব মানুষদের ভিড়ে ঠাসা নিউ মার্কেট চত্বরে শপিং মল থেকে শুরু করে গাড়িয়া হাট ফুটপাতের যে কোন দোকানে গায়ে গায়ে ভির ঠাসাঠাসি তে দাঁড়িয়ে কেনাকাটা করছে বহু মানুষ তাতে করোনা ঢেউ আবার আসতে চলেছে।

এমনি জানা গিয়েছে পুজোর আগে আছড়ে পড়তে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ। তাই পুজোর আগে এরকম পরিস্থিতি তে আতঙ্কে উঠছে চিকিৎসকরা। মঙ্গলবার দেখা গেছে গাড়িয়া হাট ও নিউ মার্কেট চত্বরে মানুষের ভিড় উপচে পড়ছে। বাধা দোকানে ভীর তুলনামূলক একটু কম হলেও ফুটপাতে গা গোলানো যাবেনা সেরকম ভীর দেখা গেছে বহু জায়গাতে। তার সঙ্গে সঙ্গে প্রায় মানুষের মুখে মাস্ক নেই না মানছে কোনও বিধি নিষেধ। কার কাছে এই মত যে ভ্যাকসিন নেওয়া আছে করোনা কিছু করতে পারবে না। কেউ কেউ পরিবারের দু তিনজন মিলে বেরিয়েছে কেনাকাটা করতে তারা বলছে একদিন বেরোলে কোনো অসুবিধা হবে না। আমরা তও সব দিন বের হচ্ছি না। আবার কেউ বলছে মুখে মাক্স পড়ে থাকলে দরদাম করতে পারবোনা তাই করোনার ভয়ে বাড়ি বসে থাকতে পারবনা।

এই করোনা কে অবহেলা করে এরকমভাবে নিয়ম ভাঙলে বড়োসড়ো বিপদের মুখে পড়তে হতে পারে আবার। বিশেষজ্ঞরা এমনটাই বলছে। তৃতীয় ঢেউ হয়তো এখন আছড়ে পড়েনি দেশে। কিন্তু তার আগে এমন নিয়ম ভাঙা জন্য বিপদে পড়তে হতে পারে। তাই এইসব সাধারণ মানুষদের জন্য প্রশাসন খুবই চিন্তিত। এই নিয়ে প্রশাসন একটা বৈঠক করেছিলেন। বৈঠকে সাধারন মানুষদের কাছে দূরত্ব বিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ করছে প্রশাসন। সেখানেও বলা হয়েছে এখন থেকে পুজো শেষ না হওয়া পর্যন্ত যেন কোন নিয়ম না ভাঙতে দেয় সাধারণ মানুষ সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে পুলিশকর্মীদের। তাই এরকম ভাবে নিয়ম না ভেঙ্গে একটা বছর বাড়িতে থেকে কি কেনাকাটা করা যায় না। কত রকম ভাবেই তো মানুষ বাড়িতে বসে কেনাকাটা করছে। কত রকম অ্যাপ আছে। সেই অনলাইন থেকে কেনাকাটা করাটাই ভালো নিজেরা ভালো থাকলে বাড়ির সবাই ভালো থাকবে। তাতে আপনাদের পুজোটা ও ভালো কাটবে কাছের আপন জন দের কে নিয়ে কাউকে আর ভয়ে থাকতে হবে না করোনার জন্য।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন