স্মৃতিচারনে তৈরি হবে মিউজিয়াম! বললেন অভিনেতার বাবা

0
newly open museum for SSR

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুত কে নিয়ে এখনো পর্যন্ত মৃত্যু রহস্য কাটেনি। স্মৃতিচারণ করে চলেছে তার পরিবার এবং অনুগামীরা সাথে তার ভক্তদের। এখনো পর্যন্ত তার মৃত্যু রহস্য নিয়ে ঘোর কাটেনি তারা প্রতিমুহূর্তে বিচার চাইছে সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে।

আজ ১৩ দিন হয়ে গেল তাও শোক কাটিয়ে উঠতে পারেনি অনেক ভক্ত এবং তার পরিবার আত্মীয়-স্বজনরা। এর মধ্যেই বাংলা অভিনেত্রী রূপা গাঙ্গুলী অরফে বিজেপি নেত্রী তিনি টুইটের মাধ্যমে জানিয়েছে বিচার চাই এই মর্মান্তিক মৃত্যুর। তিনি আরও বলেন যে- তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু সন্দীপ সিং হঠাৎ করে কেন ইনস্টাগ্রাম থেকে বেশ কিছু পোস্ট ডিলিট করলো তা নিয়ে মন্তব্য তুলেছেন। মৃত্যুর পর বন্ধুর অ্যাকাউন্টের পোস্ট ডিলিট হয় কি করে। তিনি বলেছেন যদি সে ঘনিষ্ঠ বন্ধু হয়ে থাকে তাহলে কেন নিজের ফোন থেকে ইনস্টাগ্রামে অ্যাক্সেস করে সেই পোস্ট ডিলিট করা হল। হয়তো ওই ঘনিষ্ঠ বন্ধু যুক্ত রয়েছে সুশান্ত সিংয়ের মৃত্যু রহস্যের সাথে। তাই মুম্বাই পুলিশকে তিনি অনুরোধ করেছে সঠিক ভাবে বিচার করার জন্য এবং মুম্বাই পুলিশ সন্দীপ সিংয়ের বায়ান ও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। রূপা গাঙ্গুলী এবং তার সাথে বাবুল সুপ্রিয় জানিয়েছে একি আবেদন। তবে সুশান্তের ফোন ছাড়া অন্য কোন ফোন থেকে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট অ্যক্সেস করা হয় কিনা তা যাচাই করতে বলা হয়েছে। যে বন্ধু বেশ কিছুদিন আগে শোক প্রকাশ করছিল সে হঠাৎ কেন ডিলিট করলো এই পোস্ট। ঘনিষ্ঠ বন্ধু জানিয়েছেন আগে সুশান্তের অঙ্কিতা লোখান্ডে এবং সে একই ফ্ল্যাটে থাকত। বহুদিন ধরে তাদের সম্পর্ক। সব থেকে কাছের বন্ধু বলতেই ওই সন্দীপ।

তাহলে শেষমেশ সন্দ্বীপ কি এই মৃত্যু ঘটনা নিয়ে জড়িত নাকি সন্দীপ সিংহ বলিউড ইন্ডাস্ট্রি কাছে থেকে ভয়ে ডিলিট করতে বাধ্য হয়েছে কারন সন্দীপ একজন পরিচালক। তাই প্রমান লপাত করতে এই ঘটনা। ইনস্টাগ্রামে লাস্ট পোস্ট ১৭ ই ডিসেম্বর ২০১৯ করেছিলো সুশান্ত সিং রাজপুত। হঠাৎ করে সেই পোস্টটা ডিলিট করা হলো যদিও একজন পরিচালক তার বন্ধু। কিন্তু বন্ধুর একাউন্টে ডিলিট করবে পোস্টগুলো এটা বেআইনি, তাই মুম্বাই পুলিশ কর্মী কাছে আবেদন করা হয়েছিল যে তাকে যথাযথ ভাবে জেরা করা হোক এবং এই ঘটনার পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে বিচার হোক।

এতকিছুর মাঝেও স্মৃতিচারণে নবীন অভিনেতার পরিবার যথেষ্ট উদ্বেগ দেখিয়েছে। অভিনেতার বাবা জানিয়েছেন ব্রান্দ্রার ফ্ল্যাটে অর্থাৎ সুশান্তের বাড়িতে খোলা হবে সুশান্ত সিং রাজপুতের নামে এক ফাউন্ডেশন- যেখানে সমস্ত চাপাপড়া প্রতিভা সামনে আসতে পারবে। কিংবা যাদের গডফাদার নেই প্রতিভা প্রকাশ করার জন্য গডফাদার হীন প্রতিভাগুলো সামনে নিয়ে আসতে সাহায্য করবে এই ফাউন্ডেশন।

তার সাথে সাথে তাদের বাড়িতে অর্থাৎ পাটনার বাড়িতে তৈরি করা হবে এক মিউজিয়াম যেখানে থাকবে সুশান্তের ছবি, ব্যবহারিক সমস্ত জিনিসপত্র, টেলিস্কোপ, যা কিনা অবসর সময়ে সময় কাটাত। তিনি যে অনেকের সেবা করতো তার সাথে ইচ্ছে ছিল এয়ারফোর্সে কাজ করে দেশ সেবা করার তার সাথে যুক্ত কিছু স্মৃতি। অভিনয় জগতে কিছু স্মৃতি রাখা থাকবে সেই মিউজিয়ামে। তার যে প্রতিভা অতুলনীয় ছিল তা এখন সবাই বুঝতে পারছে সাথে সাথে ইঞ্জিনিয়ারিং বেশ কিছু জিনিস সে ভালোবাসতো সেই সমস্ত জিনিস দিয়ে তৈরি হবে মিউজিয়াম। যা দেখে ভক্তদের কাছে আজীবন অমর হয়ে থাকবে এই অভিনেতা। প্রত্যেক ভক্তের মনের অগোচরে লুকিয়ে থাকবে তাঁর স্মৃতি।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন