স্কুল-কলেজ খোলা নিয়ে চিন্তায় পড়ুয়ারা, কবে খুলছে স্কুল জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

0
education
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে চিন্তাই পড়ুয়ারা

হাজার সাংবাদ ডেস্ক: স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত পিছিয়ে গেল। আনলক ওয়াণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় বলা হয়েছিল স্কুল খোলা হবে জুলাই মাস থেকে অর্থাৎ জুন মাস টা পুরোটাই বন্ধ থাকবে স্কুল-কলেজের দরজা। কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী র রমেশ পখরিয়াল জানিয়েছেন আগস্টের পরই সমস্ত স্কুল কলেজ খুলবে। মার্চের মাঝামাঝি থেকে দেশের সমস্ত স্কুল কলেজ বন্ধ হয়েছে। দফায় দফায় লকডাউনে তা কবে খুলবে তা নিয়ে চিন্তায় ছিলেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ।

প্রথমে মনে করা হয়েছিল জুলাই শেষে স্কুল কলেজ খুলবে, তবে 3 জুন একটি সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছেন আগস্টের পরই দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজ খোলা হবে। যদিও এখনো পর্যন্ত কোন নির্দেশিকা মেনে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি কবে থেকে খোলা হবে স্কুল। তবে সম্ভবত 15 ই আগস্টের পর সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কথা জানিয়েছেন তিনি।

একের পর এক স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত পিছিয়ে যাচ্ছে চিন্তায় পড়ছে মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়ারা। উচ্চ মাধ্যমিক টেস্ট এবং অন্যান্য বেশ কিছু পরীক্ষার এখনো সমাপ্তি ঘটেনি, বেশকিছু পরীক্ষা বাকি তারমধ্যে বন্ধ হয়ে যায় স্কুলগুলো। আবার কিছু কিছু ক্লাসের পরীক্ষা হয়ে গেছে কিন্তু এখনো পর্যন্ত তারা পরীক্ষার রেজাল্ট পায়নি হাতে। তা নিয়ে সমস্ত কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছে ১৫ আগস্টের পর।

দেশজুড়ে লচকডাউন শিথিল করার জন্য ধীরে ধীরে বিধিনিষেধ মেনে খুলছে মল, সিনেমাহল ও ধর্মীয় স্থান গুলি। আমাদের কেন্দ্রীয় সরকার কবে স্কুল-কলেজের দরজা খুলবে তা নিয়ে এতদিন স্পষ্ট নির্দেশিকা দেয়নি। মে মাসের শেষে বেশকিছু সংবাদ মাধ্যমের মধ্য দিয়ে জানা গিয়েছিল জুন মাসে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে কিন্তু আবারও জানানো হয় যে জুলাই মাস পুরোটাই বন্ধ থাকবে স্কুল-কলেজ। তারপর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জুলাই থেকে স্কুল খোলার কথা ছিল। তখনও জানিয়েছিল যে ৩০ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে আবারো স্কুল-কলেজের দরজা খুলবে।

৩ জুনে বৈঠকে বসার পর জানান আগস্ট মাস থেকে স্কুল খোলার কথা। যদিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে কিন্তু সংক্রমণ এড়াতে ও সতর্ক থাকতে চূড়ান্ত বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে। উন্নয়নমন্ত্রী কথা অনুযায়ী প্রত্যেক স্কুলে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা রাখতে হবে, স্কুল কর্তৃপক্ষকে সংক্রমণ এড়াতে স্কুল শিক্ষক-শিক্ষিকাদের পড়তে হবে মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস। পাশাপাশি শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে বিস্তে হবে ছাত্র ছাত্রীদের। এখনও পর্যন্ত আবেদন করেছেন যদিও এ নিয়ে সরকারিভাবে কোনো ঘোষণা হয়নি। স্কুল খোলার দিন স্থিতি হলে তখনই জানানো হবে বাকি নিয়ম কানুন।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন