স্যানিটাইজার ট্যানেলের বদলে বেশ কিছু পুজো মন্ডপে লাগানো হচ্ছে করোনা ক্যানন

0
Sanitary tunnel has been replaced instead of corona canon
করোনা ক্যানন

হাজার সংবাদ ডেস্ক: পুজো হবে কোন বাঁধা নেই। পুজো হবে তবে খোলা প্যান্ডেলে সে নির্দেশ যদিও রাজ্যের। করোনাতে পুজো বন্ধ হয়ার জোগাড় হয়েছে। পুজো কমিটির নিয়মে নতুন কিছু পরিবর্তন দেখা গিয়েছে বাংলায় পুজো হবে তা জানিয়েছে রাজ্য। কিন্তু পুজো নিয়ে বিভিন্ন রকম নিয়ম এবং বিধিনিষেধও দিয়েছে রাজ্য সরকার। সেই নিয়ম মেনে চলবে সমস্ত পুজো কমিটি। তার মধ্যে বেশকিছু পুজো কমিটি নিজেদের মতো করে সুরক্ষার জন্য বেশ কিছু নিয়ম চালু করেছে।

সুপ্রিম কোর্টের নিয়ম অনুযায়ী জানানো হয়েছে স্যানিটাইজার ট্যানেল বন্ধ করতে হবে। স্যানিটাইজার ট্যানেল আর ব্যবহার করা যাবে না। এইরকমই বার্তা পাওয়ার সাথে সাথেই কলকাতার বেশ কিছু পুজো কমিটি জানিয়েছে যে তারা স্যানিটাইজার ট্যানেল ব্যবহার করবে না। কিন্তু তার পরিবর্তে ব্যবহার করবে অত্যাধুনিক মানের করোনা কেনন। ছোট্ট একটা মেশিন কিভাবে কাজ করবে তা নিয়ে চিন্তিত বহু মানুষ।

যদিও এটি স্যানিটাইজার ট্যানেলের থেকে বড়। কিন্তু কিভাবে কাজ হয় এই স্যানিটাইজার কেনন এবং কিভাবে জীবাণু নষ্ট হয়। এই স্যানিটাইজার টানেলের পরিবর্তে প্রথমত তারা জানিয়েছে যে এই করণা ক্যানন লাগালে সেই করোনা কেনন থেকে ইলেকট্রন বের হবে। সেই ইলেকট্রনের জন্য করোনা ভাইরাস এর এস প্রোটিনকে নষ্ট করবে অর্থাৎ ইনফেক্টেড পদার্থ থাকে করোনাভাইরাস এর মধ্যে সেটা নষ্ট করে দেবে। তাতে কোন রকম ভাবে ছড়াতে দেবে না এবং ইনফেক্টেড হতে দেবে না।এছাড়াও এর একটি সুবিধা রয়েছে স্যানিটাইজার টানেল বসালে সেখানে খুব বেশি জায়গা আয়ত্ত করা যায়না কিন্তু করোনা কেনন এর জন্য অর্থাৎ এই সাইকো ক্যানন এর জন্য অনেক বড় জায়গা আয়ত্ত করা যায় প্রায় 1000 স্কয়ার ফিট জায়গায়। এই করোনা কেনন এর আয়ত্তে রাখা যায় অর্থাৎ পুরো 1000 স্কয়ার ফিট জায়গা কে সুরক্ষিত রাখা যাবে এই মেশিনের দ্বারা কলকাতার বেশ কয়েকটি পুজো কমিটি এই ব্যবস্থা নিয়েছে। এবং অর্ডার করেছে এই অত্যাধুনিক মানের ক্যানন যেখান থেকে করনা ভাইরাসের জীবনুটাকে নষ্ট করে দেবে এবং সেখানকার মানুষকে সুরক্ষিত রাখবে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন