পুজোতে হকারদের দেওয়া হবে ২০০০ টাকা তার সাথে সিভিক ভলিন্টিয়ারদের বাড়ছে মাইনে! কত টাকা বাড়ছে আশা কর্মীদের

0
salary increament for civic volunteer
মাইনে বাড়বে

হাজার সংবাদ ডেস্ক: পুজোর আগে নতুন ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। রাজ্য সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী বেতন বাড়তে চলেছে আশা কর্মী ও সিভিক ভলেন্টিয়ারদের। পুজোর আগেই খুশির বার্তা আশা কর্মী সহ সিভিক ভলেন্টিয়ার তার সাথে রয়েছে হকাররা। এখনো পর্যন্ত প্রায় ৮৫ হাজার হকার রয়েছে তাদের সবাইকে দেওয়া হবে ২০০০ টাকা করে। লকডাউন পরিস্থিতিতে একেবারেই বন্ধ ট্রেন তার ট্রেন বন্ধ থাকলেই তাদের অবস্থা অনেক খারাপ হয়ে যায় আর সেখানে প্রায় ছ’মাস বন্ধ অনেক অসুবিধার জন্য ২০০০ টাকা করে ব্যবস্থা করছে পুজোর আগে। পুজোর বোনাস বলা যেতে পারে তবে হকারদের কি আর বোনাস হয় তবে এবার দেওয়া হবে পুজোর বোনাস।

রাজ্য সরকারের নির্দেশে আশা কর্মীদের দেওয়া হবে হাজার টাকা করে অর্থাৎ আশা কর্মীদের মাইনে ছিল 4,000 টাকা একটু বেশি। আর এখন হাজার টাকা বেতন বেরে 5400 টাকা এবং সিভিক ভলেন্টিয়ারদের আগে দেওয়া হত ৮০০০ হাজার টাকা সিভিক ভলেন্টিয়ার দের এখন ১০০০ টাকা বাড়ানো হলো তাই তাদের বেতন দাঁড়ালো ৯০০০ টাকা। তাই পুজোর আগে এই ঘোষণা রাজ্য থেকে তা তাদের জন্য অনেক খুশির খবর। নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পুজো বৈঠকে তিনি জানিয়েছেন এই বার্তা।

নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে সেদিন অনেক বিষয়ে আলোচনা হয়েছে তবে বিশেষত পুজো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সেই পুজোর আগে সবার হাতে এখন টানটান অবস্থা তাতে কোনো মতেই পুজো দেখা যাবে কি সন্দেহের তার জন্যই রাজ্য থেকে এই নিয়ম। তাদেরকে বেতন বাড়ানোর সাথে সাথে হকারদের পুজোর আগে নতুন পুরস্কার ২০০০ টাকা করে প্রত্যেক পরিবারকে দেবে রাজ্য অর্থাৎ হকার পরিবার সবাই ২০০০ টাকা করে পাবে। এছাড়াও পুজোর জন্য রয়েছে আরও বেশ কিছু ছাড় এবছর পুজো প্যান্ডেল হপিং থেকে শুরু করে সমস্ত কিছু করতে পারবে দর্শনার্থীরা। করোনাকে লকডাউনের মধ্যে রেখে মানুষ এখন বেরোবে বাইরে এই পুজোর জন্য নতুন ছাড় রাজ্যের। তার সাথে বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পুজো কমিটি দের কে জানানো হয়েছে বিভিন্ন রকম নিয়ম খোলা প্যান্ডেলে ছাড়াও সমস্ত মানবে তারা।

গতবছর রাজ্য সরকারের নির্দেশে পুজোর জন্য মহিলা কমিটি অর্থাৎ মহিলা পুজো কমিটি দেওয়া হয়েছিল ৩০ হাজার টাকা করে আর সমস্ত পুজো কমিটির অন্যান্য সমস্ত পুজো কমিটিকে দেওয়া হয়েছিল ২৫০০০ টাকা করে কিন্তু এবছর মহিলা পুজো কমিটির টাকা বাড়ানো হয়েছে ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে পুজো কমিটিকে অর্থাৎ যে মহিলারা চালাচ্ছে সেই পুজোতেও ৫০ হাজার টাকা করে পাবে তারা। তার সাথে ছাড় মিলেছে ইলেকট্রিক বিলএ ৫০% করে ছাড় দেয়া হবে সিএসসি এবং অন্য রাজ্যের বিলে ছাড় পাবে। একই রকম তাই এ বছর পুজোয় জমিয়ে হবে তা নিয়ে একেবারে নিশ্চিত। পুজোতে যেমন বাইরে প্যান্ডেল হপিং করা যাবে নির্দ্বিধায় তার সাথে পুজো ভালো করেও কাটানো যাবে। আর কোনো অসুবিধে নেই সাথে মিলছে রাজ্যের দেওয়া উপহার তাহলে আর ক্ষতি কোথায়।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন