কেন মাদক দ্রব্য কিনতেন রিয়া? তাহলে কি সুশান্ত কে খাওয়াতেন সেই মাদক?

0
Riya used to give drugs to Sushant
রিয়া মাদক খাওয়াতেন সুশান্ত কে

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সুসান্ত সিং এর মৃত্যু রহস্য নিয়ে একের পর এক যত দিন যাচ্ছে তত নতুন নতুন রহস্য সামনে আসছে আদৌ এই মৃত্যুর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কারা এবং কিভাবে হয়েছে সুসান্ত সিং এর মৃত্যু তা তদন্ত করা হচ্ছে। তার সাথে সিবিআই তদন্ত যথেষ্ট জোরকদমে চালাচ্ছে। আজকের সকালের খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে বেশ কয়েকদিন আগে রিয়ার ফোন ফরেনসিক রিপোর্টে পাঠানোর পর সেখান থেকে যেমন মহেশ ভাটের সঙ্গে কথোপকথনের বেশ কয়েকটি ইঙ্গিত পাওয়া গেছিল আর এবারেও একই রকমভাবে রিয়া চক্রবর্তী সঙ্গে মাদকদ্রব্য বিক্রেতাদের কথা হতো এবং কেন কথা হতো এবং কি বিষয়ে কথা হচ্ছে তা রিয়া কে জিজ্ঞাসা করলে উত্তর পাওয়া যাবে বলে মনে করছে যদিও খবর জানার পর সাথে সাথেই সিবিআই তদন্তের ভার তুলে দিয়েছে ইডি।

2017 সালে রিয়া চক্রবর্তী গৌরব আচার্য নামে এক মাদক বিক্রেতার সাথে কথা বলেছেন এবং 2019 সালেও নামে একজন মাদকদ্রব্যের বিক্রেতার সাথে কথা বলেছেন। যদিও সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে ওই রিয়া চক্রবর্তী বন্ধু ঐ জয়া শাহ। রিয়া সাথে জয়া সাহের বেশ কয়েকটি কথোপকথনের প্রশ্ন সামনে এসেছে। সেখান রিয়া চক্রবর্তী ধন্যবাদ জানিয়ে ছিলেন এবং তার সাথে তিনি অপর দিক থেকে জয়া শাহ লিখেছিল এই ওষুধ জলে কিংবা কফি অথবা চায়ের সাথে মিশিয়ে দিলে 45 মিনিটের মধ্যে কাজ করা শুরু করবে অর্থাৎ যে ব্যক্তির ওপর পুশ করা হবে সে 45 মিনিটের মধ্যে নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়বে।

এদিকে রিয়া চক্রবর্তী আইনজীবী জানিয়েছেন যে রিয়া চক্রবর্তী কোন ড্রাগ নেননি তাহলে এই ড্রাগ বিক্রেতাদের সঙ্গে রিয়া চক্রবর্তীর কিসের সম্পর্ক। তাছাড়া তার আইনজীবীর জোর গলায় বলেছে যদি প্রয়োজন হয় তাহলে রিয়া চক্রবর্তী ব্লাড টেস্ট করানো হতে পারে বা রিয়া চক্রবর্তী ও তাতে কোনো আপত্তি জানায়নি। তাহলে এই মাদকদ্রব্য বিক্রেতাদের সঙ্গে কেন কথা হতো রিয়া চক্রবর্তী এবং সেখানকার কথা শুনে মনে হচ্ছে সেই মেডিসিনের চক্রবর্তী যথাযথভাবে কিনত। কিন্তু 1 বছর নয় প্রমাণ হিসেবে দু’বছরের কথা বোঝা যাচ্ছে 2017 সালের লাস্ট একজনের সাথে কথা হয়েছিল এবং তারপর 2019 সালের রেকর্ড অনুযায়ী কথা হয়েছে জয়া সাহের সাথে সেখানে তিনি বারবার জানতে চেয়েছেন ওই মেডিসিন কিভাবে খাওয়ানো হবে। এবং এই মেডিসিনের পাওয়ায় তিনি ধন্যবাদ দিয়েছিলেন সেই বন্ধুকে।

যদিও এই সূত্র থেকেও কিছু প্রশ্ন করা হতে পারে তবে তার আগে সমস্ত প্রশ্নের উত্তর হয়তো মিলিয়ে রিয়া চক্রবর্তীর কাছ থেকে জেরা করা হবে। রিয়া চক্রবর্তীকে এবং এডি তরফ থেকে প্রশ্নে সমস্ত কিছু দেখে বোঝা যাচ্ছে যে তিনি যদি নিজে মাদক দ্রব্য ব্যবহার না করতেন তাহলে সুসান্ত সিং এর জন্য নিশ্চয়ই তা না হলে মাদকদ্রব্য বিক্রেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছিলেন রিয়া। রিয়া কেন ওষুধ নিত? সুশান্ত আর রিয়া একি ফ্ল্যাটে থাকত প্রায় সোনা গেছে সুশান্তকে নাকি রিয়ার প্রস্ক্রাইব করা ওষুধ খাওয়াত তাহলে কি রিয়া ওষুধ গুলো সুশান্তকে খাওয়াত? তাই সুশান্ত সারাক্ষন অবসাদের মধ্যে থাকত বলে দাবী করেছিল রিয়া। মাদক দ্রব্য বিক্রতার সাথে রিয়ার এতো যোগাযোগ কেন কেন তিনি ওষুধ কিনতেন খাওয়ানোর নিয়ম জানতে চাইত। আদতে রিয়া অসুধের বদলে মাদক দ্রব্য দিত সুশান্তকে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন