বিহার পুলিশের কাছে মৃত্যু রহস্য ফাঁস করলো রিয়ার ভিডিও

0
Riya is responsible for Sushant Singh's suicide
সুশান্তের মৃত্যুর নতুন মোড়

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সুশান্ত সিং এর মৃত্যুতে নয়া মৃত্যুর তদন্তে জল ঘোলা হচ্ছে তার মৃত্যু রহস্য নিয়ে। 14 ই জুন থেকে এতদিন পর্যন্ত থেমে ছিল সমস্ত তদন্ত। নামমাত্র তদন্ত চালাচ্ছিল মুম্বাই পুলিশ। কিন্তু এবার বিহার পুলিশের তদারকিতে একের পর এক নতুন কাহিনী সামনে আসছে অভিনেতার মৃত্যুর জন্য। আদৌ এটা আত্মহত্যা নাকি খুন তা বোঝা খুব মুশকিল।

সুশান্ত অনুরাগীরা মনে করে এটা খুন তবে আত্মহত্যা নয়, এই সাথে তার পরিবার একই পথে হাঁটছে। তাই বিহার পুলিশের কাছে মামলা দায়ের করেছে তার প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী কে নিয়ে। এদিকে রিয়া চক্রবর্তী সিবিআই তদন্ত তুলে নিয়ে মুম্বাই পুলিশের হাতে দেওয়ার জন্য আবেদন করেছিল। সেই আবেদন খারিজ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। এই খবরে বিহার পুলিশ জানিয়েছে যে মুম্বাই পুলিশের কোন এক জন রয়েছে যে রিয়াকে তথ্য পাচার করছে। তারমধ্যে সুশান্ত সিং এবং রিয়ার কমন ফ্রেন্ড জানিয়েছে সুশান্তের পরিবার থেকে বেশ কয়েকদিন আগে তাকে ফোন করে বলা হয়েছিল রিয়ার হয়ে মিথ্যে জবান দেওয়ার জন্য, যে রিয়া খুনের প্ররোচনা দিয়েছে অভিনেতাকে। এই কথা রিয়া তুলে ধরেছে মুম্বাই পুলিশের কাছে। মিডিয়াতে রিয়া হাতজোড় করে কাঁদতে কাঁদতে বলেছে ভগবান আছে সঠিক বিচার করবে অপরাধীকে খুঁজে বের করবে আমি জানি। আমি দোষী নই রিয়া নিজে মুখে এই কথা বলেছে।

তার মধ্যে বিহার পুলিশ আরো এক চাঞ্চল্যকর খবর সামনে নিয়ে এসেছে। বিহার পুলিশ জানিয়েছে রিয়াকে জেরা করার জন্য বিহার পুলিশ মুম্বাই রিয়ার বাড়িতে গিয়েছিল কিন্তু রিয়াকে সেখানে হদিস পাওয়া যায়নি রিয়ার। বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর বিহার পুলিশকে ফিরে আসতে হয়েছিল তাও জবানবন্দি দেওয়ার জন্য বিহার পুলিশের সাথে সাহায্য করেনি রিয়া।

আরও পড়ুনঃ মুম্বাই পুলিশ এতো দিনে যা পারেনি দুদিনেই একের পর এক প্রমান খুঁজে বের করছে বিহার পুলিশ

তারমধ্যে রিয়ার এক ভাইরাল ভিডিও বিহার পুলিশ সামনে নিয়ে এসেছে। বিহার পুলিশ জানিয়েছে সেই ভিডিওতে রিয়া বলেছে আমার বয় ফ্রেন্ড মনে করে সে সব থেকে ভালো গুন্ডা কিন্তু সে জানেনা যে তার উপরেও আরো একজন বড় গুন্ডা রয়েছে যে হচ্ছে আমি। সে নিজের মুখে স্বীকার করেছে তার বয়ফ্রেন্ডের সবকিছু সে নির্বাচন করে সে। তার কথায় চলতে হয় তার বয়ফ্রেন্ডকে। আমার বয় ফ্রেন্ড মনে করতে পারে ও সব থেকে বড় গুন্ডা কিন্তু আমার মত বড় ডন কেউ নেই। আমি ওসব ছোটখাটো ডনের কাছে পাত্তা দিই না। নিজের কাজ গোছানোর জন্য আমি অন্যদেরকে ব্যবহার করি নিজের হাত নোংরা করি না আমি। আমার বয় ফ্রেন্ড ভাবে সে আমার থেকেও বড় ডন তাই সে জানে না যে সে আমার কাজগুলো করে দিচ্ছে। আমি যে অর্ডার করি সেটা করতে বাধ্য তাই আমি তার থেকেও সবচেয়ে বড় ডন। এই ভিডিও করার সময় সে বারণ করেছিল এই ভিডিও যাতে রেকর্ড না করা হয়।

কিন্তু সেই রেকর্ডিং ভিডিও আজ একটা বড় প্রমাণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে বা কোথাও মৃত্যুরহস্যের ক্লু পাওয়া যাবে বলে মনে করছে বিহার পুলিশ। ঠিকঠাক বিচার হলে এখন কোণঠাসা অবস্থা রিয়ার তবে কতদিন পালিয়ে বাঁচবে কিভাবে রিয়া পুলিশের চোখ এড়িয়ে বেড়াবে, খুব তাড়াতাড়ি এই আত্মহত্যার মূল কারণ ধরতে পারবে বিহার পুলিশ আশা করা যায়। যদি রিয়া কোন দোষ না করে থাকে তাহলে বিহার পুলিশের সাথে জবান দিতে রাজি নন কেন? কেন পালিয়ে বেড়াচ্ছে রিয়া তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে নেটিজেনদের মনে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন