নিজেকে বাঁচাতে রিয়া এবার প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখান্ডে কাটগরায় আনছে

0
Riya is blaming Ankita for stealing Sushant's money
আঙ্কিতা লোখান্ডে

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সুশান্ত সিং এর মৃত্যু রহস্য নিয়ে একের পর এক জলঘোলা হচ্ছে কিন্তু সামনে আসছে না আসল মৃত্যুর কারণ। তবে এবার বোঝা যাচ্ছে দোষীরা নিজেদের দোষ ঢাকতে নাম ধরে ডেকে আনছে সুশান্তের শুভাকাঙ্ক্ষীদের। সুসান্ত সিং মৃত্যুর পর থেকে এখনো পর্যন্ত বিভিন্ন মানুষকে জেরা করেছে বিহার পুলিশ তথা ইডি অফিসাররা। তবে সবকিছুর মধ্যেই সন্দেহভাজন হিসেবে সামনেই ছিল রিয়া চক্রবর্তী।

মহারাষ্ট্র পুলিশ থেকে যা কিছু তদন্ত করা হয়েছিল তার উপরে বেস করতে গেলে দেখা যায় যে রিয়া চক্রবর্তী কে বাঁচানোর জন্য তারা অনেক কিছুই করেছে তবে এবার যে যা কিছু প্রমাণ মিলেছে তা রিয়া চক্রবর্তীর সাপেক্ষে, সেই জন্য এখান থেকে সাধারণভাবে তদন্তে রিয়া চক্রবর্তী সবার সামনে কিন্তু কেন রিয়া চক্রবর্তী এই কাজ করেছেন তা নিয়ে কোনো প্রমাণ মেলেনি। তবে এবার রিয়ার শেষ বয়ান অনুযায়ী বিভিন্ন জিনিসের পরিবর্তন ঘটেছে যেমন রিয়া চক্রবর্তীর বয়ান অনুযায়ী সুসান্ত সিং এর অ্যাকাউন্ট থেকে যে টাকার হিসেবে পাওয়া যাচ্ছিল না সেই টাকার হিসেব তিনি মিলিয়ে দিয়েছেন সুসান্ত সিং এর প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখান্ডের নামে। প্রাক্তন প্রেমিকার ফ্ল্যাটের ইএমআই দিতে সেই টাকা খরচ হয়েছে।

কিন্তু এদিকে অঙ্কিতা লোখান্ডে নিজের প্রথম অভিনেতার মৃত্যুতে যথেষ্ট কষ্ট প্রকাশ করেছিলেন। বহুদিন পরে তার শুভ কামনা করতেন তিনি যেখানে থাকুক ভালো থাকুক। কিন্তু হঠাৎ করে রিয়ার মন্তবে সন্দেহভাজনের খারাপ জায়গায় তার নামটা আশায় তিনি সরাসরি সোশ্যাল মিডিয়াতে সমস্ত ফ্লাটের ইএমআই এর প্রমাণস্বরূপ ব্যাংকের স্টেটমেন্ট সবকিছুই দাখিল করেছে।

একটা কথায় ভেবে যাতে তা নিয়ে কোনো নতুন করে জল ঘোলা না হয় কারণ প্রথম থেকে প্রত্যেকটা প্রমাণ দেখা গিয়েছে যে তিনি সুশান্তের শুভাকাঙ্ক্ষী তিনি কখনও এটা করতে পারেন না। তার থেকেও বড় কথা মারা যাওয়ার আগে চার বছর সুশান্ত এবং অঙ্কিতার কোন কথা হয়নি। সেই জায়গা থেকে এটা কিভাবে সম্ভব? রিয়া চক্রবর্তী তার জন্য মিথ্যে তবে ইডির তরফ থেকে তদন্ত করার জন্য জানানো হয়েছে। এডির তরফ থেকে তদন্ত করা হবে ঠিকই কিন্তু কোনোরকম মিথ্যের আশ্রয় নিতে চায়নি তিনি স্বয়ং সরাসরি যাতে নিজের ওপর সন্দেহভাজন না পড়ে তার জন্য সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাংক স্টেটমেন্ট থেকে শুরু করে ফ্ল্যাট এর সমস্ত স্টেটমেন্ট পোস্ট করেছে। যাতে তার সমস্ত অনুরাগীরা তা দেখতে পাই কোন প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা করেনি অসৎ পথে একবারও ভাবেননি অঙ্কিতা লোখান্ডে।

এতকিছুর পরেও রিয়া চক্রবর্তী কেন মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে অন্যকে দোষারোপ করছে নিজে বাঁচার জন্য। তা বোঝা খুব মুশকিল। তবে সিবিআই তদন্তের হাতে যাওয়া নিয়ে গড়মিল হচ্ছিল তা নিয়ে এখনও দাবী লড়ে যাচ্ছে সুসান্ত সিং এর বাবাকে কেকে সিং। খুব তাড়াতাড়ি হয়তো সুপ্রিম কোর্ট থেকে নির্দেশ দেবে তদন্তের ভার সিবিআই হাতে। তবে কোন দিকে নির্দেশ যাবে তার দিকে তাকিয়ে যেমন সবাই রয়েছে। তবে মহারাষ্ট্র থেকে বারবার নির্দেশ দেয়া হচ্ছে সিবিআই তদন্তের জানা যায় কারণ এর মধ্যে জড়িয়ে রয়েছে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরে ছেলে আদিত্য ঠাকরের নাম। তাঁরা চাইনা সিবিআই তদন্ত হোক তাই সব কিছু ধামা ছাপার চেষ্টা।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন