ইডির প্রশ্নে চুপ রয়েছে রিয়া, আরও কিছু নয়া তথ্য সামনে এলো

0
Rhea is silent on the CBI question
এবার আসবে নয়া তথ্য

হাজার সংবাদ ডেস্ক: দিনের পর দিন সামনে আসছে নয়া তথ্য বিভিন্ন তদন্তের পর বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর মৃত্যু রহস্য। মৃত্যুর জন্য দায়ী কে এই অভিনেতা কিভাবে মৃত্যু হয়েছিল এবং শুধুই কি এখানে নিজে আত্মহত্যা করেছে নাকি অন্য কেউ আত্মহত্যা করিয়েছে। তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বারবার বলিউড নয় গোটা দেশ এখন নড়ে উঠেছে এই বলিউড অভিনেতার মৃত্যুতে।

সুশান্ত সিং এর মৃত্যুর পর থেকে এখনও পর্যন্ত কোনও প্রামাণ্য তথ্য সামনে আনতে পারেনি মুম্বাই পুলিশ তবে বিহার পুলিশের হাতে আসায় তার কিছুটা সুরাহা মিলেছে বলে মনে হয়েছিল কিন্তু বিহার পুলিশ থেকে শেষমেষে সিবিআই হাতে যায়। সেখান থেকেই একের পর এক নয়া তথ্য উঠে আসছে। এবার হয়তো প্রমাণ মিলবে আত্মহত্যার কারণ কি। এই মৃত্যু তিনি নিজে করেছিলেন নাকি তাকে আত্মহত্যা করার জন্য বাধ্য করানো হয়েছিল নাকি কেউ তাকে খুন করে ঝুলিয়ে রেখেছিল ওই জায়গায়। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্টে মুম্বাই পুলিশ পুরোপুরি বলেছিল যে তিনি নিজে আত্মহত্যা করেছেন। কিন্তু এখন তো জানা যাচ্ছে মুম্বাই পুলিশ পুরোপুরি রিয়ার নির্দেশে চলে তাদের নিজস্ব কোনো মতামত নেই। তারা প্রমাণের কথা বলে না তারা বলে বলিউড প্রভাবশালী নেতাদের কথা।

শেষমেষ রিয়া চক্রবর্তীর সাথে কোন এক মুম্বাই পুলিশের ভালো ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আছে বলে মনে করেছে অনেকেই এবং কল রেকর্ড সেইরকম বেশ কিছু পাওয়া গেছে পুলিশ কর্মীর সাথে কথা হয়েছিল একুশে জুন এবং মৃত্যুর পরে ঐ পুলিশ কর্মীর সাথে কথা হয়েছে পুলিশকর্মী যেমন রিয়াকে ফোন করেছিল করেছিল ওই পুলিশকর্মীকে কি কথা হয়েছিল তাদের তা নিয়ে তদন্ত করবে তবে স্পষ্ট বোঝা গেল। এমন অবস্থা কবে স্বাভাবিক হবে দুশ্চিন্তার বিষয় তবে খুব তাড়াতাড়ি স্বাভাবিকতার জন্যই তদন্ত করছে সিবিআই। আত্মহত্যার কারণ কোন দিকে যাবে তা নির্ভর করছে সিবিআই তদন্তের উপর।

ইডি অফিসারের সাথে দেখা করার পর রিয়ার অনেকক্ষণ ধরেই জেরা করা হয়েছে এবং সেই জেলাতেই বারবার নিজেকে লুকিয়ে রেখেছে কোন প্রশ্নের উত্তর ঠিকঠাক দেয়নি আবার অনেক প্রশ্নের উত্তরের নিজের চুপ করে ছিলেন এবং বারবার তিনি দাবি করেছেন যে তিনি কোনো অন্যায় করেননি কোন ভুল কাজ তিনি করেননি। তবে প্রশ্নের উত্তর মেলেনি তাতে ইডি অফিসারের অনেক কিছুই আন্দাজ করছে। এর সাথে জানা গিয়েছে যে সুসান্ত সিং এর অনেক টাকা আত্মসাৎ করেছে যার অভিযোগ তুলেছিলেন কে কে সিং অর্থাৎ অভিনেতার বাবা। রিয়া চক্রবর্তী অনেক টাকা আত্মসাৎ করেছেন ইনকাম সারা মাসে এতটাই কম সে হঠাৎ করে কিভাবে এত বড় বড় দুটো মুম্বাইয়ের তাবড় তাবড় জায়গায় ফ্ল্যাট কিনে রেখেছে এটাও চোখে পড়েছে সিবিআই তদন্ত চালাচ্ছে।

যেভাবে তদন্ত চলছে এই ভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে প্রমাণ ঠিক মিলবে তবে সিবিআই থেকে কোন ফাক রাখছেনা তদন্তের ঠিকঠাকভাবে তদন্ত চালাচ্ছে রিয়ার সাথে কথায় সিবিয়াই কোন দিকে এগোবে এবার তা নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে। তবে এটা ঠিক যে এর মধ্যে অবশ্যই রিয়ার হাতে রয়েছে কারন তা না-হলে রিয়া কখনই বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তরে চুপ করে থাত না। উত্তর না দিয়ে বসে থাকত না কেন এই উত্তর চেপে যাচ্ছে। যে অভিনেত্রী হাতজোড় করে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে বলেছিলেন যে ভগবান আছে তকে দেখবে তাহলে এখন র হাতে যাওয়ার ভয় কেন পাচ্ছেন সেই জন্যই কি তিনি সিবিআই তদন্ত থেকে হাত তলে নিয়েছিলেন। শিবির এখনো অনেক প্রশ্ন রয়েছে রিয়ার উপরে তবে তার সিবিআই হএ যাওয়ায় উত্তর কিভাবে বের করবে তা নির্ভর করছে সিবিআই তদন্ত অপর। তদন্ত চলার পর ঠিকঠাক সুরাহা মিলিবে এই কেসের মনে করছে অনুরাগী তথা দেশবাসীরা।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন