কালী পুজার আগে কমবে আলু পিয়াজের দাম! বিদেশ থেকে আমাদানি করা হচ্ছে দ্রব্যাদি

0
Price Hike
মূল্য বৃদ্ধি

হাজার সংবাদ ডেস্ক: নিত্যদিনের বাজারে মধ্যবিত্তরা অস্বস্তিতে পড়েছে। একের পর এক দাম বেড়েই চলেছে আলু এবং পিয়াজের। করোনা পরিস্থিতির শুরুতেই দাম বাড়াতে মানুষ অস্বস্তির মধ্যে পড়তে হয়েছিল। আর এবার বহুদিন ধরে পেঁয়াজের দাম কমছে না বরং সাথে বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় আলুর দাম। বাজারে গিয়ে মাথায় হাত মধ্যবিত্তদের। একই করোনা পরিস্থিতি তার ওপর প্রত্যেকের খালি হচ্ছে আর সেখান থেকেই এত বাজার দাম কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছে না মধ্যবিত্ত মানুষ আর তার জন্যই অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে মধ্যবিত্ত মানুষদের।

কেন্দ্রীয় সরকার তার জন্য জানিয়েছে যে কালীপুজোর আগে পেঁয়াজ এবং আলুর দাম কমবে। বাজারদর মানুষের হাতের মুঠোয় আসবে বলে মনে করছে। কারণ ব্যবসায়ীদের দিয়ে বিদেশ থেকে পিয়াজ আমদানি করার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি এবং এখনো পর্যন্ত ৭ হাজার টন পিঁয়াজ এসে পৌঁছেছে ভারতে এবং এখনো পর্যন্ত আশ্বাস দিয়েছে ২৫ হাজার টন পেঁয়াজ আসবে ভারতবর্ষে তা সরবরাহ করছে আফগানিস্তান। এই বছর এমনভাবে বিপর্যয় হয়েছিল যার জন্য এদেশের শুধু আলু নয় যে কোন সবজি চাষে ঠিকঠাকভাবে হয়নি। তার জন্য বাজারদর অনেক বেশি। আর এবছর যেভাবে পিয়াজ আলুর দাম বেড়েছে তাতে মধ্যবিত্তদের মাথায় পড়েছে হাত।

শুধু ভারতবর্ষ নয় সারা পৃথিবীতে বিভিন্ন জায়গায় করণা পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক অবস্থা শোচনীয়। সেখানে সবজির মূল্য বৃদ্ধি না হলেও বাজারদরের মূল্যবৃদ্ধি না হলেও অন্যান্য বিষয় মূল্যবৃদ্ধি হয়েছে কিন্তু এদেশে এতটাই পেঁয়াজ এবং আলুর মূল্যবৃদ্ধি একের পর এক বাড়ছে আর তার জন্যই কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে যে খুব শীঘ্রই সেই সমস্যার সমাধান করতে বিদেশ থেকে আমদানি করছে আলু পিঁয়াজ। তিনি এও জানিয়েছেন খুব শীঘ্রই আলু ও আমদানি করা হবে প্রায় ১০ লক্ষ টন আলু আমদানির কথা জানিয়েছে ভারতীয় সরকার।

তা নিয়ে মধ্যবিত্তদের জন্য সুব্যবস্থা জন্য এই পদক্ষেপ সরকারের যাতে মধ্যবিত্তদের বাজারে গিয়ে মাথায় হাত না পড়তে হয় বাজার দাম শুনে আর তার জন্যই ১০ লক্ষ টন আলুর আমদানি হচ্ছে ভারতে। আপাতত ৫ হাজার টন আলো এসে পৌঁছেছে ভারতবর্ষে এবং তা বিদেশ থেকে আনা হচ্ছে কারণ এদেশে এবছর করণা পরিস্থিতিতে এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য অর্থাৎ আম্ফান এর জন্য চাষবাসের অনেক বড় ক্ষতি হয়েছে। আর সেখান থেকে মানুষের এত বড় ভোগান্তি তার জন্যই তিনি আশ্বাস দিয়েছেন যে এখন আলুর দাম বাজারে রয়েছে ৪২ টাকা। প্রতি কেজি প্রায় তিন দিন এর দাম একেবারেই কমেনি বরং একই ঠেকেছে।

এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে কালী পূজার আগে পর্যন্ত এবং আলুর দাম কমবে মধ্যবিত্তদের জন্য বাজার দাম সচল হবে অনেক আর তার জন্যই মধ্যবিত্তদের অনেক সুবিধা বাড়বে যাতে তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় কেনাকাটা তে সমস্যা না দাড়ায় কারণ এই পরিস্থিতিতে সবারই আর্থিক অবস্থা খুবই খারাপ। আর সেই পরিস্থিতিতে যদি সরকার পাশে এসে দাঁড়ায় তাহলে অনেক বড় সুবিধা পাবে সাধারন মানুষ। বিদেশের সাথে ব্যবসায়ীদের কথা বলতে বলা হয়েছে যে তারা যেন যত শীঘ্রই সম্ভব এই ব্যবস্থা করে নিতে পারে এবং এই ব্যবস্থা সমবায় সমিতির ফেকোড মাধ্যমে করা হচ্ছে সেখান থেকে আমদানি করা হবে পিয়াজ এবং আলু।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন