সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এখন অসুস্থ! মস্তিষ্কের সমস্ত ফাংশন ঠিক ঠাক কাজ করছে না! শুধু করোনা নয় বয়স টাই অনেক বেশি বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে শারীরিক জটিলতায়

0
pray to survive for soumitra chatterjee
সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এর অবস্থা গুরুতর। দুদিন আগে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ে পৌলোমী বস জানিয়েছিল যে তিনি এখন একটু সুস্থ হয়েছেন এবং অক্সিজেন নিতে হচ্ছেনা কিন্তু সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অবস্থা আবারও গুরুতর কারণ ডাক্তার সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে তিনি এখন আরো বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন এবং তার মস্তিষ্কের কিছু সমস্যার জন্য তিনি ঠিক রেসপন্স করছে না কিংবা মস্তিষ্কের সমস্ত ফাংশন ঠিকঠাক কাজ করছে না এবং তার সাথে হঠাৎ করে জ্বর আসাই আরো বেশি চিন্তিত হয়ে পড়েছে ডাক্তার মহল। এর আগে তিনি করণা সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেও তার করণা সংক্রমণে যত নয়া শরীরে জখম করতে পেরেছে তার থেকেও তার বয়স টা সবথেকে বেশি বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

85 বছর বয়স নিয়ে করোনার সাথে যুদ্ধ করা একটা কঠিন সময় তার থেকেও বড় কথা তার শরীরের মধ্যে অনেক সমস্যা রয়েছে এবং শারীরিক বেশ কিছু জটিলতার কারনে এই সমস্যা বাড়ছে এবং তার সাথে নতুন করে ডাক্তাররা চিন্তিত এবং তার শরীরে এর আগে জটিলতাগুলো ছিল তার সাথেও ডাক্তাররা জানিয়েছিল তিনি এর সাথে কমমোরবিডিটিতে রয়েছে আরও বেশ কিছু সমস্যা মিলিয়ে যথেষ্ট জটিলতার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। অক্সিজেন বন্ধ করলেও আবার অক্সিজেন চালাতে হয় তার শারীরিক ভাবে উন্নতির কারণে তবে এখনো তিনি সেই রকম অবস্থায় রয়েছেন এবং যদি এখনও পর্যন্ত সেভাবে ভালো রেসপন্স পাওয়া যায়নি এবং বেশ কিছুক্ষণ থাকলে হয়তো আবারও ভেন্টিলেশনে দিতে হতে পারে বলে মনে করছে ডাক্তাররা।

অসুস্থ হয়ে পড়েছেন কৃষ্ণনগরের সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং সেখানে তার ডাকনাম পলু বলেই সবাই চেনে। কৃষ্ণনগরে আজ মানুষের নাওয়া-খাওয়া-ঘুম উড়েছে। সকল মানুষ তার আরোগ্য কামনায় চিন্তা করছে। সারাটাক্ষন সবাই তার শুভকামনা কামনা করছে যাতে সে খুব তাড়াতাড়ি আরোগ্য লাভ করে এবং আবার বাড়ি ফিরে এসে নিজের কাজে যুক্ত হয়। আর এর মধ্যেই তিনি অসুস্থ হয়েছে এবং যথেষ্ট গুরুতর অসুস্থ ডাক্তারদের সূত্রের খবর অনুযায়ী তারা জানিয়েছে যে করোনা যতনা জখম করেছে তার থেকে তার শারীরিক জটিলতা অনেক বেশি জখম করেছে তাকে। তার জন্যই এই সমস্যা তার সাথে বয়স অনেক বেশি এই 85 বছর বয়সে শরীরের সমস্যার সাথে করোনা পরিস্থিতি যুদ্ধ করে সেরে ওঠা অনেকটাই কঠিন। যদিও ডাক্তাররা জানিয়েছেন তারা যথাযথ চেষ্টা করছে এবং তার সুস্থতা কামনা করছেন। সামান্যসুস্থতা দেখে অক্সিজেন বন্ধ করা হলেও আবার তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ায় অক্সিজেন এবং সমস্ত মেডিসিন আবারও চালু করতে হয়েছে এবং ডাক্তাররা জানিয়েছে সেই সূত্রে যদি এই রকম চলতে থাকে তাহলে হয়তো ভেন্টিলেশনে রাখতে হতে পারে এবং তার সাথে সাথে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন মস্তিষ্কের ফাংশন ঠিকঠাক কাজ করছে না। তার জন্য সমস্যা অনেক বেশি। আবার ফুসফুসের কিছু জতিলতার কথা আগেই জানিয়েছিল দাক্তাররা।

তবে তার কর্ম জগতে এবং তিনি একজন ভালো মানুষ সেই হিসেবে সারা রাজ্য তথা সারা বিশ্বে বলা যায়। তা নিয়ে জয়জয়কার যাতে তিনি তাড়াতাড়ি আরোগ্য লাভ করেন এবং কৃষ্ণনগরের মানুষের অনেক শুভকামনা রয়েছে তার জন্য যাতে খুব তাড়াতাড়ি সেরে ওঠেন। সেখানে আজ রং বদলায় দিন কোন রকম ভাবেই মানুষের মধ্যে সেই আনন্দ নেই সবাই চিন্তায় আছেন কখন ফিরবেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় আবার নিজের বাড়িতে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন