প্রচেষ্টা প্রকল্পে কিভাবে আবেদন করবেন এক্ষুনি জেনে নিন

prachesta prakalpa
prachesta prakalpa

পৃথিবীর বহু প্রান্তে হাজার হাজার মানুষ কাজ হারিয়েছে এই  লক ডাউন এর  কারণে।  করোনা নামক এই মহামারী মানব জীবনে যেন এক কঠিন পরিস্থিতি তৈরি করে দিয়েছে।  তাই এমন সময়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকার এই কাজ হারানো মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্যে তাদের দৈনন্দিন কিছুটা দরকার মেটাতে তাদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি জানিয়ে  প্রচেষ্টা নামক প্রকল্পের সূচনা  করেছেন।  এই প্রকল্পের মাধ্যমে কি হবে এবং কিভাবে এই প্রকল্পে আবেদন করা যাবে সবকিছু আমরা বিস্তারিত এখানে আলোচনা করব। এই প্রকল্পের মাধ্যমে প্রত্যেক পরিবারের একজন ব্যক্তিকে হাজার টাকা দেওয়া হবে।  

প্রচেষ্টা প্রকল্প আবেদন করার জন্য কিছু নিয়মাবলী রয়েছে যেগুলো সঠিক হলে পরে এই প্রকল্প তে আবেদন করা যাবে। পশ্চিমবঙ্গ সরকার দ্বারা এমন অনেক প্রকল্প রয়েছে যেগুলো এখনও পর্যন্ত বিভিন্ন গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে মানুষকে সাহায্য করে চলেছে এই কঠিন সময়েও।  প্রচেষ্টা প্রকল্প (Prachesta Prakalpa) সেই রকমই একটা প্রকল্প সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

যে সমস্ত মানুষ গুলো রোজ আনে রোজ খায় সেই মানুষগুলোর জন্য লকডাউন কতটা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে সেটা শুধুমাত্র তারাই জানে।  রাজ্য সরকার এমন পরিস্থিতিতে সেই মানুষগুলোর পাশে যথাসম্ভব দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে বিভিন্ন প্রকল্পের মধ্য দিয়ে।

 প্রচেষ্টা প্রকল্প আবেদন করার জন্য যে নিয়মাবলী গুলো দরকার সেগুলো নিচে দেয়া হল

  • যে ব্যক্তি প্রচেষ্টা প্রকল্পের জন্য আবেদন করবে তাকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে
  • সেই ব্যক্তিকে অবশ্যই পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি হিসেবে গণ্য হতে হবে
  • সেই ব্যক্তি  পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোন প্রকার পেনশন প্রকল্প যেমন বার্ধক্য ভাতা বিধবা ভাতা অক্ষমতা ভাতা ইত্যাদি এবং সামাজিক সুরক্ষা যোজনা প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হওয়া চলবে না
  • যে ব্যক্তি 100 দিনের কাজের সুবিধার পান না শুধুমাত্র তেমন ব্যক্তি এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারে
  • প্রত্যেক পরিবার থেকে শুধুমাত্র একজন এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারে
  • একটি পরিবারের স্বামী স্ত্রী এবং অবিবাহিত সন্তান এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারে কিন্তু মনে রাখতে হবে একটা পরিবার থেকে শুধুমাত্র একজনই আবেদন করতে পারবে
  • কৃষিকাজে যুক্ত এমন কোন ব্যক্তি এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবে না

 এই ছিল বেশ কয়েকটি নিয়মাবলী, যে গুলো মেনে চললে পরে এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করা যাবে

 এরপর আমরা জানবো কিভাবে প্রচেষ্টা প্রকল্পের জন্য অনলাইনে আবেদন করা যায়। এর আগে এই প্রকল্প শুধুমাত্র অফলাইনে  আবেদন জমা নেয়া হচ্ছিল কিন্তু বলাই বাহুল্য মারাত্মক ভাইরাসের কারণে অফলাইন আবেদন পদ্ধতি পরিবর্তন করে অনলাইনে ফিরে আসতে হলো।

তাই এখন আমরা জানবো কিভাবে অনলাইনে খুব সহজে ঘরে বসেই  প্রচেষ্টা প্রকল্পের জন্য আবেদন করা যেতে পারে।

আবেদন করার জন্য আমরা ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে পারি এছাড়া ও অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের সাহায্যে আমরা প্রচেষ্টা প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারি।

ওয়েবসাইটে কিছু সমস্যা থাকার কারণে ওয়েবসাইটের সাহায্যে আবেদন করাটা খুব সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে কিন্তু আমরা চাইলে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে পারি। অবশ্যই সেটা ঘরেতে বসে আবেদন করা যাবে।

আবেদন করার জন্য নিচে দেওয়া ওয়েবসাইট লিঙ্ক ভিজিট করতে পারেন এছাড়াও নিচে দেওয়া লিঙ্ক থেকে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ টি ডাউনলোড করতে পারেন। Download Android App or Visit https://prachestawb.in/

ওয়েবসাইট থেকে যদি হয়ে যায় তাহলে তো আর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের দরকার হবে না। যদি ওয়েবসাইট থেকে না হয় তাহলে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ব্যবহার করে আপনারা অনলাইনে জমা করতে পারেন।

অনলাইনে জমা করার জন্য সবার আগে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ টি ডাউনলোড করুন।  এই অ্যাপটি ডাউনলোড করার পরে, অ্যাপ টি কে ইন্সটল করুন।  ইনস্টল হলে পরে আপনার সামনে আপনি দেখতে পাবেন প্রচেষ্টা প্রকল্প লেখা রয়েছে এরমধ্যে। এরপর আপনাকে আপনার মোবাইল নাম্বারটি দিতে হবে।  আপনি যে মোবাইল নাম্বারটা দেবেন সেই মোবাইল নাম্বারে আপনার কাছে একটি ওটিপি আসবে। ওই ওটিপি আপনার ওই অ্যাপের মধ্যে দিয়ে আপনাকে লগইন করতে হবে লগইন হলে পরে আপনার নাম বাবার নাম লিঙ্গ জন্ম তারিখ বয়স ইত্যাদি জিনিস গুলো সঠিকভাবে ফিলাপ করতে হবে এরপর ভোটার কার্ডের নম্বর, ডিজিটাল রেশন কার্ডের নম্বর এবং আধার কার্ডের নম্বর ইত্যাদি জমা করতে হতে পারে।  এরপর ভোটার কার্ডের  আধার কার্ডের এবং ডিজিটাল রেশন কার্ডের স্ক্যান করে ছবি আপলোড করতে হবে।  এগুলো হলে পরে আপনার ঠিকানা সঠিকভাবে লিখতে হবে। 

এরপর যে ব্যাংক একাউন্টে আপনি টাকা গ্রহণ করতে চান সেই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নাম্বার, ব্যাংকের নাম, ব্রাঞ্চের নাম একাউন্ট নাম্বার এই সমস্ত জিনিস গুলো ফিলাপ করতে হবে।

 মনে রাখতে হবে একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট শুধুমাত্র একজন ব্যবহার করতে পারে। যদি একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট দুজন গ্রাহক প্রচেষ্টা প্রকল্পের টাকা পাওয়ার জন্য ব্যবহার করে থাকে তাহলে সেই দুটো আবেদন পত্র বাতিল করা হতে পারে।

অবশ্যই সমস্ত তথ্য সঠিক দিলে পরে  সরকার থেকে এই সাহায্য প্রচেষ্টা প্রকল্পের মাধ্যমে গরিব মানুষদের দৈনন্দিন জীবন কিছুটা হলেও রেহাই দিতে পারে।  

মনে রাখতে হবে সমস্ত কিছু সঠিক তথ্য দেওয়ার পরে  ফাইনাল সাবমিট করার আগে সমস্ত কিছু অর্থাৎ যা যা তথ্য আপনি দিয়েছিলেন সেগুলো সঠিক আছে কিনা একবার দেখে নিতে হবে।  তা না হলে ভুল হলে পরে আবেদনপত্র বাতিল করা হতে পারে।

ঠিক এইভাবে খুব সহজে প্রচেষ্টা প্রকল্পের হাজার টাকা প্রত্যেক গরিব  মানুষের সংসারে পশ্চিমবঙ্গ সরকার দ্বারা পৌঁছে যাবে।  এছাড়াও পশ্চিমবঙ্গ সরকার প্রচেষ্টা প্রকল্পের পাশে ডিজিটাল রেশন কার্ড বা রেশন কার্ডের সাহায্যে  প্রত্যেক গরিব মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে চালডাল  খুব অল্প টাকা তে সাহায্য করে চলেছেন।

এমন কঠিন সময়ে পৃথিবীর সমস্ত মানুষ যেখানে ঘর বন্দী হয়ে আছে সেই সময় সরকারের থেকে এমন ছোট-বড় পাওনাগুলো গরীব মানুষ গুলোর ঘর কিছুটা হলেও আলো করে তুলতে পারে।

শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ সরকার নয় দেশের অন্যান্য রাজ্য গুলোর কার্যকলাপ ঠিক একই রকম।  এমনকি দেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে প্রত্যেকটা জিরো ব্যালেন্স এর একাউন্টে মহিলাদের জন্য 500 টাকা করে দেয়া হয়েছে এবং আগামী দুই থেকে তিন মাস এই টাকা দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে।

এছাড়াও  কৃষকদের জনজীবন উন্নতির জন্য কুড়ি লক্ষ কোটি টাকা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আগামী দিনের জন্য ঘোষণা করেছেন।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here