ভ্যাকসিনেও কি রাজনীতি! করোনা যোদ্ধাদের নামের লিস্টে কিভাবে নেতা মন্ত্রিদের নাম প্রথম লিস্টে

0
corona vaccine for medical stuff
প্রথম দফায় স্বাস্থ্য কর্মীদের দেওয়া হবে এই ভ্যাকসিন

হাজার সংবাদ ডেস্ক: করোণা টিকা নিয়েও রাজনীতি টিকাকরণের দিন থেকে এখনো পর্যন্ত বিরোধীদের মুখে শোনা যাচ্ছে টিকাকরণের জন্য। শুরু হয়েছে যে রাজনীতি সেই রাজনীতির পেছনে রয়েছে নেতাদের নাম তারা একের পর এক সাধারণ মানুষের টিকা নিজেদের জন্য নিচ্ছে এবং তার জন্যই ভিড় জমাচ্ছে সাধারণ মানুষের সাথে। কিন্তু করোনার টিকা কেন পাবে নেতা-মন্ত্রীরা। করোনার টিকা সবার আগে দাবি করা হয়েছিল এবং ডাক্তার নার্স এছাড়াও ছিল চিকিৎসালয়ের অন্যান্য কর্মীদের কিন্তু কোনভাবেই ছিলনা নেতা এবং মন্ত্রীদের জন্য রাজনৈতিক নেতারা। যদি এখনই পেয়ে থাকে তাহলে তা কিভাবে সম্ভব প্রথমে কোনভাবেই তাদের নাম আসা সম্ভব ছিল না সেখানে জোর গলায় অনেক বেশি করে তাদের নামটা কে সামনে নিয়ে এসে দেখাচ্ছে তারা। এটা কি আদৌ রাজনীতি না টিকাকরণ এর মধ্যে রয়েছে আরো অনেকগুলো রাজনৈতিক তোলাবাজি তা মানতে চাইছে না বিরোধী দল।

প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী তিনি জানিয়েছিলেন যে করোনার টিকা প্রথমে পাবে ডাক্তার নার্স এবং করোনা যোদ্ধারা। যারা এতদিন যাবৎ যুদ্ধ করে চলেছে করোনা রোগীদের জন্য। নিজেদের পরিবার আত্মীয়স্বজন সবকিছু ছেড়ে রয়েছে। শুধুমাত্র একটা কারণে রোগীকে বাঁচানোর জন্য যে যারা করোনা রোগীর পাশে এতদিন ছিল তাদের সবার আগে দরকার এই টিকা গ্রহণ করার কিন্তু তাদের নামের জায়গায় কিভাবে আসে নেতা মন্ত্রীদের নাম তা নিয়ে বারবার প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছে বিরোধীদল। বারবার জানিয়েছে যে টিকাকরণ নিও বিরোধিতা। সামনে এসেছে ভোট তার জন্য আরও বেশি করে গোলযোগ সেই প্রসঙ্গ নিয়ে। যতবারই জানতে চাওয়া হয়েছে তাদের কাছে তারা জানিয়েছে যে তাদের নাম ছিল লিস্টে তাই তারা করণা টিকা নিয়েছে কিন্তু কিভাবে আসে তাদের নাম সামনে।

এখানে শুধুমাত্র চলছে রাজনৈতিক খেলা দলের মাথা যেখানে যুক্ত সেখানে শুধুমাত্র চলছে রাজনীতি খেলা। নিজেদের স্বার্থ নিয়ে চলা ঠিক একইভাবে টিকাকরণের চলবে। সেই স্বার্থ তাহলে আসল মানুষ কিভাবে পাবে। জনসাধারণ যারা মানুষের সাহায্য করবে যে মানুষ মানুষের পাশে দাঁড়াবে তাদের থেকে আগে কিভাবে টিকা পাচ্ছে রাজনৈতিক মহল। তারা কি সত্যিই করোনার সময় পাশে দাঁড়িয়েছিল শুধু নিজেদের পকেট ভর্তি করেছে তাহলে আজ কেন করোনার টিকা তারা আগে পাবে। তা নিয়ে বারবার প্রশ্ন তুলেছে বিরোধী বিজেপি নেতা জানিয়েছে যে কিভাবে তৃণমূল কর্মী এবং তৃণমূল নেতা এবং সংসদ এছাড়াও জেলাশাসক কিভাবে পাচ্ছে এই ভ্যাকসিন এই ভ্যাকসিন তো তাদের জন্যই নই এই ভ্যাকসিন প্রথমে এসেছিল কোভিড যোদ্ধাদের জন্য।

তাহলে কিভাবে লাইনে তাদেরকে দেখা যাচ্ছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসা করতে তারা সেটাই জানাচ্ছে যে তাদের নাম লিস্ট ছিল কিন্তু সেই লিস্ট কে বানায় সত্যিই কি সেই লিস্ট এসেছে ওপর থেকে নাকি সেই লিস্ট বানানো হয়েছে তাদের নিজেদের হাতে। তাই সাধারণ মানুষের বদলে সবার আগে টিকা পাচ্ছে তারা। এটা কি সত্যিই নেই কাজ হচ্ছে তা নিয়ে বিরোধীরা বারবার প্রশ্ন তুলে দিয়েছে এবং সেই প্রশ্নের মাঝে এখনো গোলযোগ চলছে না। সেই প্রশ্নের উত্তর মিলছে আর না এই অরাজকতা কাজ একের পর এক নেতা মন্ত্রীরা লরে চলেছে। তার জন্নই যাদের তিকাকরন তারা পাচ্ছেনা টিকা পাচ্ছে নেতারা বরং তারা আজও রয়েছে। কিন্তু কেন তারা কেন শুধুমাত্র রাজনৈতিক মাত্রা আজ কেন করোনার টিকা পাবে শুধুমাত্র সামনে ভোট এসেছে এই কারণে নাকি তার পেছনে রয়েছে আরো অনেক বড় কারণ। প্রত্যেক বুথে কি তা হচ্ছে প্রত্যেক চিকিৎসালয় কি হচ্ছে তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে বারবার বিরোধীরা প্রত্যেকটা ক্ষেত্রেই একই রকম চলছে প্রত্যেক জায়গায় লিস্টে নামের পরিবর্তন করা হয়েছে কিভাবে নেতাদের নাম আসছে। তা নিয়ে এখনো পর্যন্ত ঝামেলা থামছেনা চিকিৎসালয়ে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন