বনোমহোৎসবে বৃক্ষ রোপণের উদ্যোগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

0
Planting trees
গাছ লাগান প্রান বাঁচান

হাজার সংবাদ ডেস্ক: গাছ লাগান প্রাণ বাঁচান এটাই মানুষের ধর্ম হওয়া উচিত। একটা গাছ থেকে মানুষ কত রকম সুবিধা পায় কিন্তু একটা গাছ বসানোর কথা সহজ ভাবে না। বছরে বেশ কিছু দিন রয়েছে যখন মানুষকে মনে করিয়ে দেওয়া যায় কিংবা পরিবেশ দিবসের দিন গাছ লাগানোর কথা অনেকের মনে হয়। এছাড়াও অনেক স্কুল শিক্ষা সংস্থা থেকেও অনেক গাছ দিয়ে বাড়িতে সেগুলো বসানোর কথা বলা হয়।

আজ বনোমহোৎসব একইভাবে আজও গাছ বসানো উচিত। আম্ফান ঝড়ে বড় বড় গাছ থেকে শুরু করে ছোট ছোট গাছ উপর যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কিন্তু মানুষ তার পরেও গাছ বসানোর পদক্ষেপ নেইনি। এখনকার পরিস্থিতি যথেষ্ট খারাপ বাইরে বেরোনো একেবারেই বন্ধ সেইজন্য এসব কাজের একেবারে উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে জানানো হয়েছিল বনোমহোৎসব এদিন বৃক্ষরোপণ কড়া হবে বিভিন্ন জায়গায়। যে সমস্ত সংস্থা ভালো কাজ করেছে তাদের রূপসী বাংলা সম্মান দেওয়া হবে। তার সাথে সাথে আরও বেশ কিছু ঘোষণা ছিল যেগুলো আজ বনোমহোৎসব অর্থাৎ ১৪ জুলাই পালন করা হয়।

বনমহোৎসব এর দিন যথারীতি নিয়ম মেনে পালন করা হচ্ছে। আম্ফান ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় বৃক্ষরোপণ করা হবে এছাড়াও সুন্দরবন এলাকায় ২৫ হাজার কোটি ম্যানগ্রোভ অরণ্য বসানোর উদ্যোগ আজকে সূচনা হবে। এই ১৪ জুলাই সুন্দরবন এলাকা এবং বনদপ্তর খুব বড় করে অনুষ্ঠান করা হয় এবং পালন করা হয় বেশ কিছু নিয়ম। এবছরে কিভাবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে বিভিন্ন জায়গায় বৃক্ষরোপনের সাথে সাথে অন্যান্য বড় বড় বৃক্ষরোপণ প্রজেক্ট এর কাজের সূচনা করবেন।

আজকের সব থেকে বড় প্রজেক্ট যেটি সেটি হল সুন্দরবন অঞ্চলে ম্যানগ্রোভ অরণ্য উদ্যোগ। এইভাবে শুধু ম্যানগ্রোভ অরণ্য নয় সাড়ে তিন কোটি বৃক্ষরোপনের কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি সবাইকে বার্তা দিয়েছেন আজকের দিনে গাছ বসান এবং অনুষ্ঠান ভালোভাবে পালন করুন। পরিবেশকে বাঁচানো আমাদের কাজ তাই পরিবেশ বাঁচানোর একমাত্র লক্ষ্য হওয়া উচিত। এই পরিবেশে বাঁচতে হলে আমাদেরকে সামঞ্জস্য বজায় রাখতে হবে। তাই পরিবেশের প্রত্যেকটা জিনিস আমাদের নজর রাখা উচিত এবং কিভাবে পরিবর্তন জরুরি তা ভাবা উচিত।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন