প্রতিবাদে টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড!

0
payal rohatgi's twitter account suspend
টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সুশান্ত সিং এর মৃত্যু রহস্য নিয়ে এখনো তাঁর অনুরাগীদের মধ্যে প্রতিবাদের আগুন নেভেনি। স্বজন পোষণ নিয়ে এখনো কটাক্ষে অনেকেই দায়ী করছে প্রযোজনা সংস্থা গুলোকে। তাই তাঁর মৃত্যুরহস্য নিয়ে যখন কোন মুশকিল আসান হয়নি সেখান থেকে বহু মানুষ বিচার চাইছে সুশান্ত সিং এর মৃত্যু নিয়ে। এই প্রতিবাদি অনুরাগীদের মধ্যে উঠে এলো আরও এক অভিনেত্রীর নাম। স্বজনপোষণ নিয়ে অনেক কথা বলেছিলেন অভিনেত্রী পায়েল রোহাতগি। তাই আজ আমার মুখ বন্ধ রাখতে টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করেছে তাঁরা।

যাদের হাতে ক্ষমতা আছে তাদের দ্বারাই বন্ধ হয়েছে তার টুইটার অ্যাকাউন্ট। এই প্রতিবাদ তাঁরা মেনে নিতে পারেননি। আমি আমার মত জানিয়েছি কিন্তু তাতে আমার টুইটার একাউন্ট সাসপেন্ড করার ক্ষমতা বোধহয় কারণ নেই। কারণ আমি ভারতবর্ষের বাসিন্দা তাই এদেশের নিয়ম অনুযায়ী নিজের মতামত জানানোর অধিকার আছে, এটা আমার গণতান্ত্রিক অধিকার। তার জন্য টুইটার কোম্পানি কখনো আমার অ্যাকাউন্ট ব্লক করতে পারেনা। তিনি এও জানিয়েছেন যে তিনি মনে করেন তার একাউন্ট সাসপেন্ড করা হয়েছে সালমান খান ও তার সহকর্মীদের দ্বারা।

তাই তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্জি জানিয়েছেন এই অ্যাকাউন্ট কেন বন্ধ করা হলো। নিজের মতামত জানানোর যদি কোনো অধিকার না থাকবে তাহলে কেনই বা ভারতবর্ষে গণতান্ত্রিক অধিকার আইন রয়েছে। আমি শুধুমাত্র আমার মতামত জানিয়েছি কাউকে কোন গালাগালি করিনি। তাহলে কেন আমার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা হবে।

আজ সকাল আটটার সময় তাঁর টুইটার একাউন্ট সাসপেন্ড হয়েছে, মেইল এসেছে নিজের মেইলবক্সে। চেক করায় তিনি একটি ভিডিওতে জানিয়েছেন তার অ্যাকাউন্ট ফিরে আসার জন্য আবেদন করতে সবাই যেন তার পাশে থাকে। তার সাথে তিনি বলেছেন আমাকে মুখ বন্ধ করার জন্য তারা এই রাস্তা বেছে নিয়েছে। তবুও প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার একটাই আবেদন যে ভারতের প্লাটফর্মে এমন একটা জায়গা আনুক প্রধানমন্ত্রী যেখানে সবাই তার মতামত রাখতে পারবে। অনলাইন মাধ্যমে এন্টারটেনমেন্টের মাধ্যমে সেখানে একাউন্ট সাসপেন্সের কোন ব্যাপার থাকবে না। আমি জানিনা আমার একাউন্ট সাসপেন্ড করেছে তবে আমার মনে হয় তার পেছনে বেশ কিছু নাম জড়িয়ে আছে। আমি আগেই সেই নামগুলোর কথা জানিয়েছি।কিছু মানুষের মুখ বন্ধ করতে ক্ষমতাশীল মানুষরা নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য অনেক কিছুই করতে পারে।

তাই বলে মানুষ হয়ে জন্মে নিজেদের মতামত জ্ঞাপন করার জন্য অ্যাকাউন্ট সাসপেন্স, এটা মেনে নেওয়া যায় না।প্রমান স্বরূপ তার সাসপেন্স একাউন্টের নোটিফিকেশন স্ক্রিনশট নিয়ে পোস্ট করেছিলো ইনস্টা পোস্টে। এই ঘটনার সাথে সুশান্ত সিং এর অনুরাগীরা যুক্ত রয়েছে। চাইছে তার অ্যাকাউন্ট ফিরে আসুক।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন