কাকে Welcome জানাচ্ছেন নুসরাত! বাড়িতে আসা নতুন অথিতির বদলে কাকে আহ্বান

0
nusrat welcoming a pet
কার আগমন নুসরাতের বাড়িতে

হাজার সাংবাদ ডেস্ক: আবার টলি তারকা নুসরাতের নিয়ে জল্পনা। শুধু তাই নয় প্রত্যেক দিন এই নায়িকা নিজের মত করে বিভিন্ন পজেটিভ কথাবার্তা নিজের ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন। এছাড়াও নিজের গর্জিয়াস ছবি দিয়ে নজর কাড়ছে নেট দুনিয়ায়। তবে আসলে যে ঘটনাটা তা ধামাচাপা পড়বে তেমনটা নয়। তাকে নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই নেটদুনিয়ায় বিভিন্ন কথাবার্তা হয়েছে, তার নিজের জীবনের সব প্রসঙ্গ যেমন এড়িয়ে যান নি আর সেইসব প্রশ্নেও তেমন ভেঙ্গে পড়েননি। প্রত্যেকদিন নিজের পজিটিভ মনের জোর দিয়ে আজকের ঠিক সমান জায়গায় দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। এক বছর আগে নিখিল জৈনের সাথে তার বিবাহ বিচ্ছেদের কথা জানা যায় আর এক বছর পর হঠাৎ করেই তিনি অন্তঃসত্ত্বা তা নিয়ে যেমন গুজব রটেছে চারিদিকে। তার সাথে সাথে তাকে নিয়ে অনেক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে। হঠাৎ করে আজকের এই পোস্ট আরও অনেক বেশি চমকে দিয়েছে সবাইকে।

ইনস্টাগ্রামে নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে তিনি পোস্ট করেছেন দুটো ছোট ছোট পায়ের ইমোজি তার সাথে লেখা ওয়েলকমিং। এই কথার মানে কি এবং এই ইমোজি দ্বারা তিনি কি বোঝাতে চাইছেন যে ইমোজি দেখে মনে হচ্ছে সে দুটো কুকুরের পায়ের ছাপ। কিন্তু তিনি এখন অন্তঃসত্ত্বা আর তার সাথে এই রকম করার মানে কি। তা বুঝে ওঠা মুশকিল তবে এর মধ্যে অনেকের মনেই প্রশ্ন দানা বেঁধেছে বেশ কিছুদিন আগে পোস্ট করা ইয়াসকে দেখা গিয়েছিল তার পস্য কুকুরের সাথে তার নিজের ছবি পোস্ট করেছিলো ইনস্টাতে। আর সেই ছবি দেখে অনেকেরই আন্দাজে নুসরাতের বাড়িতে ইয়াসের আগমন সাথে তার পোষ্যও।

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে নেটদুনিয়া শুধু নয় সাধারণ মানুষের কাছে নুসরাতের এই ঘটনা অনেকেরই পরিচিত আর এই ঘটনাকে নুসরাত কোনরকম ভাবে কোন মত পোষণ করেননি এবং তার নিজস্ব কোন মতামত জানায় নি ঠিক কথা। কিন্তু ইয়াসের অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট হওয়ার নুসরাত ইয়াসের ছবি নুসরাতের অ্যাকাউন্ট থেকে তোলা গর্জিয়াস নুসরাতের ও ইয়াসের ছবি যা তারা শেয়ার করেছে এর আগেও। এখনো পর্যন্ত তারা এত কথা হওয়ার পরেও নিজেদের ছবি শেয়ার করা বন্ধ করেন নি। অনেকেই জেনে ছিল যে নিখিল জৈনের সাথে বিবাহ বিচ্ছেদের পর তিনি আবার সম্পর্কে জড়িয়েছেন ইয়াশ এর সাথে। তাহলে এবার কি এই সময় নুসরাতের পাশে এসে দাঁড়াবে নাকি নুসরাতের সন্তানের বাবা ইয়াস।

তাই নিয়ে জল্পনা চারিদিকে তবে আজকের দিনে দাঁড়িয়ে এই রকম একজন পজেটিভ মাইন্ডের মানুষ পাওয়া খুব মুশকিল। লাঞ্ছনা-গঞ্জনা মানুষের মধ্যে বিভিন্ন রকম পরিচয় পাওয়ার পরেও তিনি একটুও ভেঙে পড়েননি। প্রত্যেকদিন পজিটিভিটি নিয়ে পোস্ট করেন টুইটার কিংবা ইনস্টাগ্রামে। সেখানে তাকে দেখে কখনোই মনে হয়নি তিনি বিব্রত কিংবা তিনি কষ্টে আছেন। তিনি এখনও পর্যন্ত তার গ্ল্যামারাস ফিগার এবং গ্ল্যামারাস লাইভ ধরে রেখেছেন। নিজের জীবনে অনেক সুখী আছেন এবং অনেক এনজয় করছেন তার প্রমাণ তার বিভিন্ন পোষ্টের মাধ্যমে নিজের ভেতরে চলা কষ্ট সামনে আনেননি বসিরহাটের এই সংসদ।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন