মোবাইল নেট পরিসেবা থাকলেই পাওয়া যাবে ই-পাস এখন আর দরকার নেই স্মার্ট ফোনের

0
Metro will be open from 14th September
মেট্রো পরিসেবা

হাজার সংবাদ ডেস্ক: প্রথমেই জানানো হয়েছিল আনলক পর্ব ০.৪ এ চালু হবে রেল পরিষেবা তথা আরো বেশ কিছু ছাড়। তবে রেল পরিষেবার ৭ সেপ্টেম্বর থেকে চলার কথা ছিল কিন্তু ৭ সেপ্টেম্বর করা লকডাউন ডাকা হয়েছে রাজ্যে। তার জন্য এবারে জানানো হয়েছে ৭ সেপ্টেম্বর নয় সেপ্টেম্বর থেকে চালু হবে মেট্রো রেল পরিষেবা। ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে মেট্রো রেল পরিষেবা চালু হলে জনসাধারণ কিভাবে যাতায়াত করবে এবং কিভাবে মিলবে যদিও তা আগে অল্প বিস্তর জানানো হয়েছিল। অনেক আগে জানানো হয়েছিল ই-পাস পরিষেবা ছাড়া মেট্রোরেলে চড়ে যাবে না। তাই মেট্রোরেল উঠতে গেলে অবশ্যই সংগ্রহ করতে হবে ইপাস।

কিভাবে পাওয়া যাবে বা কিভাবে ব্যবহার করবে এই ই-পাস। সাধারন মানুষ এবং তার সুযোগ সুবিধা কিভাবে পাবে তা নিয়েও বিবৃত জানিয়েছে গতকাল বিকেল বেলা মেট্রোরেল দপ্তর থেকে। তাদের কথা মেট্রো রেলের জন্য রিলিজ করা বারকোড বের করেছি এইবার কোডগুলো যে কোন সাইবার ক্যাপ কিংবা ল্যাপটপ কম্পিউটারের মধ্যে মেট্রোরেলের ওয়েবসাইটে ঢুকে সেখান থেকে তারা তাদের বারকোড বের করে দিতে পারে। এই বার কোড স্ক্যান করে এতা লিঙ্ক পাবে তারপর সেই লিঙ্কে ক্লিক করা সাথে সাথেই একটা লিংক আসবে সেই লিঙ্ক থেকে ডাউনলোড করতে পারবে মেট্রোরেলের অফিশিয়াল অ্যাপ।

অফিশিয়াল অ্যাপ থেকে সাধারণ মানুষ টিকিট কাটতে পারবে শুধুমাত্র স্কিন টাচ ফোনের জন্য নয় বা স্মার্টফোনের জন্য নয় যে সমস্ত ফোনে নেট পরিষেবা চালু আছে তারাও করতে পারবে এই কাজ। প্রথমে জানানো হয়েছিল স্মার্ট ফোন ছাড়া মেট্রোতে যাতায়াত করা যাবে না কিন্তু মেট্রোতে যাতায়াত করতে গেলে এখন সাধারণ ফোনে যথেষ্ট তবে তাদের চলতে হবে যদি নেট পরিষেবা থাকে। তাহলে অবশ্যই আপনি এই স্মার্ট কার্ডের পরিষেবা পেতে পারেন বার কোডে থাকা লিংক দিয়ে যে অ্যাপ ডাউনলোড হবে সেই অ্যাপের মধ্যে থেকে আপনি আপনার স্মর্টবুক করতে পারেন।

আপনি কোন সাইটে যেতে চাইছেন বা কোন সঠিক টিকিট দরকার সেখানে আপনি সমস্ত ডিটেলস দিতে পারেন এবং সেখান থেকে আপনার টিকিট জেনারেট হবে এখান থেকে চালু হচ্ছে ই পাস পরিসেবা। যদিও এখনও পর্যন্ত জানানো হয়েছে ১০সেপ্টেম্বর এর মধ্যে চালু হবে এই পাস এবং ১৩ সেপ্টেম্বর এর মধ্যে সমস্ত কার্যকরিতা চালু করে দেওয়া হবে। ১০ সেপ্টেম্বর এর মধ্যে সবার কোড সংগ্রহ করতে পারবে এবং সেই বারকোড থেকে তারা লিংক এবং অফিসিয়াল অ্যাপ নিতে পারবে। তবে ১৩ তারিখের মধ্যে সবকিছু চালানো করা হবে বলে স্বাভাবিকভাবে মন্তব্য করেছেন মেট্রোরেল দপ্তর। এছাড়াও যদি সম্ভব হয় তাহলে যারা স্মার্ট ফোন নেই বা ইন্টারনেট পরিষেবা কোন ফোন ব্যবহার করছে না তাদের জন্য ম্যাসেজিং পরিষেবার মাধ্যমে এই ব্যবস্থা চালু করার কথা বলেছে মেট্রো রেল। তাদের তরফ এইরকম একটা উদ্যোগে কাজ করা হচ্ছে যদি তা সম্ভব হয় তাহলে তো আরো এক সপ্তাহের মধ্যে জানিয়ে দেওয়া হবে আর এক সপ্তাহের মধ্যে মেসেজিং পরিসেবা তৈরীর জন্য কাজ শুরু করা হয়েছে। যথাযথ উদ্যোগ এর কাজ করা হচ্ছে হয়তো তার ফল শীঘ্রই আসবে অর্থাৎ চলাচল করতে গেলে এখন যে খুব সাধারণভাবে চলাচল করতে যাবে তা বোঝা গেছে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন