পিরিয়ডের সময় পেটে ব্যথার উপশম পেতে কখনো দোকানের ওষুধ নয়! ব্যবহার করুন ঘরোয়া টোটকা যার কোনও সাইট এফেক্ট নেই

0
medicine not use for period pain
ওষুধ নয় ঘরোয়া টোটকাতে সারিয়ে তুলুন নিজেকে

হাজার সংবাদ ডেস্ক: ঋতুস্রাব বা পিরিওড মেয়েদের কাছে এটা একটা যন্ত্রনা দায়ক হয়ে দাড়ায় সব সময় কারণ অনেকেরই এই পিরিয়ড চলাকালীন ভুগতে হয় পেটে ব্যথা নিয়ে আর কন্সটিপেশনে। এই পিরিয়ড চলাকালীন শরীরে একটা আলাদা রকম কষ্ট অনুভব হয়। এটা কমবেশি প্রত্যেক মেয়েদেরই এই কষ্টটা হয়ে থাকে। তার সঙ্গে কারোর কারোর পেটে ব্যথা হাট পায়ে ব্যথা। এই পেটে ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনেকেই নানান ধরনের পেনকিলার খেয়ে থাকেন কিন্তু এই পেনকিলার খাওয়া সব সময় ভালো নয়। ডাক্তারদের মতে একান্ত দরকার না পড়লে পেনকিলার খাওয়া উচিত নয়। এর এফেক্ট পরতে পারে পরে। তাই ওষুধ না খেয়ে ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার করতে পারেন । যা রান্নাঘর থেকে এসব জিনিস গুলো সহজেই পাওয়া যায় সেগুলোর কথা জানা যাক।

আদাঃ এই আদা রান্নার ক্ষেত্রে কমবেশি প্রত্যেকেই ব্যবহার করে এই আদা দিয়ে চা করে খেলে পেটে ব্যাথা কম হয়। তার সঙ্গে সঙ্গে আদা একটু গরম জলের সঙ্গে সিদ্ধ করে নিয়ে তার সঙ্গে একটু মধু মিশিয়ে সেই জলটা দিনে তিন থেকে চারবার যদি খাওয়া যায় তাহলে পেটে ব্যথা কম হয় পিরিয়ডের সময়।

দারুচিনির ব্যবহার করতে পারেন এই পিরিয়ডের সময় পেটে ব্যথা করলে এই দারুচিনি অনেক রকম রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। দারুচিনি একটু গুঁড়ো করে নিয়ে একটু মধু সঙ্গে দারুচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে দিনে দুই থেকে তিনবার খেতে পারেন তাতে ভালো কাজ দেয় এই পিরিয়ডে পেটে ব্যথার সময়।

লেবু পুদিনা পাতা এইসব দিয়েও চা বানিয়ে খেতে পারেন। চা তে মৌরি যোগ করে চা বানিয়ে খেতে পারেন তাতে ভালো কাজ দেয়।
রান্নার সময় তরকারিতে পাঁচফোড়ন ব্যবহার করে প্রত্যেকে এই পাঁচ ফড়ণ এ জিরে মৌরি এ দুটোর পরিমাণ একটু বাড়িয়ে দিন তাতে ভালো ফল পাওয়া যাবে শরীরেও একটু জোড় পাবেন।

পিরিয়ডের সময় ভিটামিনযুক্ত খাবার খান শাকসবজি মাছ মাংস ইত্যাদি।

পিরিয়ডে ব্যথার সময় ল্যাভেন্ডার তেল নিয়ে পেটে মালিশ করলে তাতেও ভালো কাজ মেলে।
এগুলোর সঙ্গে সঙ্গে গরম জলের সেক করতে পারেন। এই সময় প্রচুর পরিমাণে জল খাবেন। তার সঙ্গে সঙ্গে মাঝে মাঝে গরম জল খেতে পারেন তাতে পেটে ব্যাথা কম হয়।

পিরিয়ড চলাকালীন মিষ্টি জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলবেন। তার সঙ্গে সঙ্গে অ্যালকোহল ও তামাক জাতীয় দ্রব্য এড়িয়ে চলা ভালো। এই সময় শরীরচর্চা থেকেও দূরে থাকুন। আপনি আপনার মত করে এই কদিন শরীর যেমন চায় সেভাবে থাকুন। তবে আবারও বলছি ঘরোয়া টোটকা অনেক ভালো দোকানে ভারী ভারী ওষুধ এর থেকে। আতি আজ থেকে অবশ্যই এই ঘরোয়া টোটকা নিয়ে সুস্থ থাকুন

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন