অন্তঃসত্ত্বা হয়েও ঘরবন্দি না থেকে কাজের দুনিয়াতে নুসরাত! সংসদে দেওয়া ভুয়ো তথ্যের তদন্ত হক

0
Many are condemning the name of this actress for giving false information in Parliament
ভুয়ো তথ্য দিয়ে প্রশ্নের মুখে নুসরাত

হাজার সংবাদ ডেস্ক: টলি দুনিয়ায় নুসরাতকে নিয়ে বেশ কয়েকদিন ট্রল চলছিল এবং তিনি অন্তঃসত্ত্বা। সেই সন্তানের বাবা কে তা নিয়ে বিভিন্ন রকম ভাবে নেটদুনিয়ায় তোলপাড় হয়েছে এবং তার মুখোমুখি হতে হয়েছিল নুসরাতকে। সে তার নিজের বেশ কিছু কথা এবং নিজের পার্সোনাল লাইফের কিছু বিবরণ সবাইকে জানিয়ে ছিল ঠিকই কিন্তু তার কোনটা সত্যি তা এখনো জানা যায়নি আর এই অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় নুসরাত জাহান সংসদের সমস্ত কাজই করছেন এবং কোন রেস্ট না নিয়ে ঘরবন্দি না থেকে নিজের মত করে কাজ করে চলেছেন আর এবার সেই প্রসঙ্গে কথা তুললেন ডিরেক্টর রাজ চক্রবর্তী। তার ছবি দিয়েই প্রথম টলি দুনিয়ার সামনে আসে নুসরাত। সেই রাজ চক্রবর্তী আজকে নুসরাতকে নিয়ে অনেক কথা তুলেছে এবং তিনি বলেছেন যে পরবর্তীকালে নুসরাত এইরকম কাজ করার আগে দুইবার ভেবে কথা বলবে নিজেকে নিয়ে অনেক বেশি সংযত থাকবে।

এরমধ্যে সাংসদের একজন নেত্রী সংঘমিত্রা তিনি জানিয়েছেন যে অভিনেত্রী এর আগে বহুবার ভুয়ো ডকুমেন্ট দেখে দেখিয়েছে সংসদের কাছে তবে সেই ডকুমেন্টের কোথাও কোনটা সত্যি নয় তা নিজেই স্বীকার করেছেন অভিনেত্রী কিন্তু একজন সাংসদ কিভাবে নিজেকে নিয়ে ভুল তথ্য দিয়ে একজন সাংসদ হওয়ার পরিচয় দেন তা নিয়ে বিচার করা হোক এবং সেই তদন্ত আবার শুরু করা হোক। তার আবেদন জানিয়েছেন সংঘমিত্রা দেবী তিনি এও বলেছেন যে নিখিল জৈন সাথে বিয়ে হওয়ার কথা নিয়ে প্রথমেই তিনি বৈবাহিক অনুষ্ঠানের করেন এবং সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা নেট দুনিয়ার বহু মানুষ পরিচিত মুখ এবং হঠাৎ করেই তিনি যখন অন্তঃসত্ত্বা হলেন তখনই জানালেন যে এই বিয়ে সত্যি নয়।

আসলে কি ঘটেছে এবং সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি তথ্য সংসদের কাছে দিয়েছেন তা নিয়ে বহুবার প্রশ্ন তুলেছেন আজ তার অন্তঃসত্ত্বা নিয়ে যে প্রশ্ন উঠেছে এবং অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর যেভাবে নেতাকে নিয়ে ট্রোল করা হয়েছিল সেই কথার পরিপেক্ষিতে এবং রাজ চক্রবর্তী কথার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি কোন বাক্য খরচ করেন নি এবার এবং তিনি বলেননি যে এই কাজ কেন করেছেন এবং এই কাজের জন্য দায়ী কে তা নিয়ে কোন প্রসঙ্গে তিনি তোলেননি এবং তার নিয়ে কোনোভাবেই তিনি মুখ খোলেনি। তবে এটুকু জানা গেছে যে নিখিল জৈন সেটাকে তিনি অস্বীকার করেছেন কিন্তু তথ্যে স্বামীর জায়গায় যেখানে নিখিল জৈন রয়েছে সংসদে। এখন সেই জায়গায় তিনি স্বামীর নামকে কিভাবে অস্বীকার করে এবং যে বিয়ের অনুষ্ঠান হয়েছে সেই অনুষ্ঠান সবাই উপস্থিত থাকার পরেও তা মিথ্যা বলে গণ্য করা হয় কিভাবে? সেই কথাই নিন্দা জানিয়েছে ডিরেক্টর রাজ চক্রবর্তী যার ছবিতে তিনি নবাগতা হয়ে আসেন টলি দুনিয়ার কাছে তিনি আজকে জানিয়েছেন নুসরাতের এই কাজ ঠিক হয়নি। পরবর্তীকালে নুসরাত যে কথা বলবে ভেবে বলবে এবং বিবেচনা করে বলবে আমরা সেটাই আশা করি। এর পরেও তিনি একবারও মুখ খোলেননি এই প্রসঙ্গে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন