সামনে এসেছে রিয়ার সাথে মহেশ ভাটের হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট! আমার সব অনুভুতি আপনার জন্য, সারা জীবন আপনি আমার অ্যাঞ্জেল থাকবেন!

0
Mahesh Bhatt's WhatsApp chat with Riya brought new information
৮ জুন কথা হয়েছে মহেশ ভাটের সাথে রিয়ার

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সুসান্ত সিং এর মৃত্যুর পর থেকে এখনো পর্যন্ত বিভিন্ন রকম ভাবে সামনে এসেছে নতুন তথ্য। কিন্তু মৃত্যুর প্রথমে আঁচ করা হয়েছিল প্রভাবশালী মহেশ ভাট প্রবঞ্চনায় রিয়া চক্রবর্তী সম্পর্ক নিয়ে ছাড়াছাড়ি হয়েছিল। মহেশ ভাটের সঙ্গে রিয়া চক্রবর্তী সম্পর্কে ভাঙ্গন এসেছিল। যে সম্পর্ক ছিল তার জেরেই হঠাৎ করেই রিয়া চক্রবর্তী সুশান্ত কে ছেড়ে চলে যায়। আর তারপর প্রবঞ্চনা দিয়েছিলেন মহেশ ভাট।

তবে তারপর বিহার পুলিশ থেকে মুম্বাই পুলিশ, মুম্বাই থেকে বিহার পুলিশ এইরকম করতে করতে এরকম বিভিন্ন তথ্য এদিক ওদিক হতে হতে চাপা পড়ে গিয়েছিল। মহেশ ভাট ও রিয়া চক্রবর্তীর কথোপকথনের কথা এবং তাদের সম্পর্কের কথা এবার সামনে এসেছে। এবার সামনে এসেছে রিয়া ও মহেশ ভাটের বেশ কিছু কথোপকথন তবে সেখানে মিল পাওয়া যাইনি ইডির কাছে দেওয়া রিয়ার বয়ানের। কারন প্রথমেই এডির কাছে জানিয়েছিল রিয়া চক্রবর্তী যে সুশান্তের দিদি জামাইবাবু আসবে তাই সুশান্ত রিয়াকে তার বাড়ি ফিরে যেতে বলেছিল কয়েকদিনের জন্যে।

আরও পড়ুনঃ সুশান্তের বডি পোস্টমর্টামে নিয়ে যাওয়ার পর ৪৫ মিনিট ধরে মর্গে কি করছিলেন রিয়া? নাম উঠেছে আরও কয়েকজন অভিজুক্তের

কিন্তু তা নয় এখন প্রমাণ হচ্ছে অন্য কিছু মহেশ ভাট এবং রিয়া চক্রবর্তী হোয়াটস অ্যাপ চ্যাটের মধ্যে উঠে এসেছে আরও নতুন তথ্য সেখানে লেখা হয়েছে মহেশ ভাট প্রবঞ্চনা দিয়েছে তো অবশ্যই এবং সেই চ্যাট দেখে বোঝা যাচ্ছে রিয়া চক্রবর্তী সুশান্ত কে ছেড়েছে ৮ জুন চলে যায়। সেই কথার পরিপেক্ষিতে লিখেছেন মহেশ ভাট যে “তুমি যে কাজ করছ তার জন্য অনেক সাহস লাগে আর পিছন ফিরে তাকিও না” সেই মেসেজের উত্তর দিয়ে রিয়া লিখেছে “আপনার সাথে আমার দেখা হয়েছে শুধুমাত্র সিনেমার জন্য নয় আমাদের দেখা হয়েছিল আজকের দিনটির জন্য। আমি আপনার জন্য যথেষ্ট প্রভাবিত। আপনাদের ভরসায় এটা করতে সক্ষম হয়েছি। আমি অনেক শক্ত পেয়েছি আপনার ভরসা আমার কাজে লেগেছে।” তখন মহেশ ভাট জানিয়েছিল “তোমার বাবা এবার এই কথা শুনলে খুব খুশি হবে তুমি যা করেছ ঠিক করেছো।” রিয়া জানিয়েছে আপনার সাথে কথা হওয়া শেষ কল আমার কাছে ওয়েক আপ কল ছিল। তখন আপনি আমার সাথে আঞ্জেল ছিলেন আজও সেই জায়গাতে আছেন। আমি ভাষায় বোঝাতে পারব না যে আমার জীবনের সেরা সব অনুভুতি আপনার জন্যই রয়েছে।”

অর্থাৎ বেশ কিছুদিন আগে সোনা গেছিলো রিয়া চক্রবর্তীর সাথে সুসান্ত সিং এর সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি রিয়া চক্রবর্তীর বাবার। তাই একই প্রশ্ন এখানে এই কথোপকথন দেখে বোঝা যাচ্ছে সুশান্ত সিং এর সঙ্গে সম্পর্ক মহেশ ভাট যেমন মেনে নিতে পারেননি তার সাথে মেনে নিতে পারেনি রিয়া চক্রবর্তীর বাবা। এর সাথে রিয়া চক্রবর্তীর মহেশ ভাট কে লিখেছিলেন যে “আমি আয়েশা হয়ে উঠেছি আমি আয়েশা হয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছি শুধুমাত্র আপনার জন্য।” আয়েশা অর্থাৎ মহেশ ভাটের পরিচালিত একটি ছবি জেলেবি তার সেই ছবিতে অভিনয় করেছিল আয়েশা রূপে রিয়া চক্রবর্তী। তাই সেখানে বলেছেন আয়েশার সেই রূপ নিতে তিনি পেরেছেন এবং তিনি আজ যে কাজটা করেছেন তার জন্য অনেক কষ্ট হলেও কিন্তু মনে অনেক শক্তি পেয়েছেন শুধুমাত্র মহেশ ভাটের জন্য। বাবা খুব খুশী হয়েছেন বাবা আপনাকে খুব শ্রদ্ধা করেন।

এই সমস্ত কথা দেখে বোঝা যাচ্ছে যে সুসান্ত সিং এর সঙ্গে সম্পর্ক করা সেটা শুধুমাত্র মহেশ ভাট এবং রিয়া চক্রবর্তীর বাবার সামনে আনতে গিয়ে আরও অনেক তথ্য রিয়া চক্রবর্তীর জন্য সামনে আসছে। কেন এই রকম মন্তব্য করেছিলেন এবং কেনই বা রিয়া ৮ জুন ছেড়ে চলে এসেছিলেন? আদবে কি শুধু তার দিদি আসবে তার জন্য নাকি অন্য কোনো কারণ রয়েছে। এটাও সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ একের পর এক তদন্ত হওয়ার পর যা সামনে আসছে তাতে হয়তো সঠিক বিচার পাবে প্রয়াত অভিনেতা।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন