মাতৃ বিয়োগেও শুটিং ফ্লোরে থেকে বিরতি নেয়নি কাঞ্ছন মল্লিক!

0
kanchan mallik lost his mother
মাকে হারিয়েও কাজ ভলেননি তিনি

হাজার সংবাদ ডেস্ক: শনিবার রাতে মৃত্যু হয় তার মায়ের। কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছিল সেই মুহূর্তে কিন্তু নিজের কথা রাখতে কাজের জায়গায়তেও বিরতি নেননি তিনি। মাঝে মাঝে আমরা ভেবে থাকে কমেডি অভিনয় করেন বলে তার নিজের কোন আলাদা পার্সোনালিটি নেই কিন্তু কিছু কিছু মানুষ আসল হিরো থেকেও অনেক উপরে। তাদের মানবিকতা মনুষ্যত্ব অনেক উপরে।

যে মানুষ মাতৃবিয়োগে ভেঙে পড়েছিল তিনি নিজের দেওয়া কথা রাখতে শুটিং ফ্লোরে এসেছেন নিজের শোক কাটিয়ে। কিন্তু তার পরেরদিন সকালে মুখের মধ্যে মাতৃ বিয়োগের ভেঙে পড়া চাপ ছিল না, ছিল হাসিমুখে সম্মোধন করার মতো মানবিকতা। বন্ধু রুদ্রনীল জানিয়েছে যদি সহজ মানুষ হতো তা হয়তো সম্ভব হতো না, তিনি বোধহয় অন্য কিছু। তাই বুকে হাজার কষ্ট চেপে শুটিং ফ্লোরে এসেছে অভিনয়ে মানুষকে আনন্দ দিতে সব ভুলে চলে এসেছে।

যে মায়ের মৃত্যুতে ছবি পোস্টে দেখা গেছিল কান্নায় ভেঙে পড়ছে কাঞ্চন মল্লিক। তাও এতো কষ্টের পরেও ২৮ ঘন্টা যেতে না যেতেই সমস্ত চোখের জল মুছে কান্না বুকে চেপে কষ্ট বুকে চেপে শুধুমাত্র কথা রাখতে অর্থ উপার্জনের কথা মাথায় রেখে, আবার শুটিংয়ের কথা রাখতে তিনি এসেছিল টলিপাড়ায়।

এবং সবার সাথে খুব সাধারণত ভাবে যেমন তিনি ব্যবহার করেন তেমনি ছিলেন বরং হাসিমুখে সবাইকে আপন করে নিয়েছে। তাকে দেখে কোথাও মনে হয়নি যে তিনি কষ্টে ক্ষতবিক্ষত হয়ে আছেন। তার সব থেকে প্রিয় মানুষ হারিয়ে যাওয়ায় কাঞ্চন মল্লিক যাকে এতো ভালোবাসতেন যে তার হারিয়ে যাওয়ায় কান্নায় ভেঙে পরেছিলেন তিনি। সহজে আমরা ছেলেদের চোখে কান্না দেখতে পায় না কিন্তু কাঞ্চন মল্লিকের যে ছবি পোস্ট হয়েছিল বা ভিডিও পোস্ট হয়েছিল সেখানে আমরা দেখেছি পাগলের মত কান্নায় ভেঙে পড়েছে।

তার পরেও মানবিকতার কথা বজায় রাখতে তিনি শুটিং করে এসেছেন কাজ করছেন নিজেকে শান্ত রেখেছেন। নিজে মন খুলে কান্নার জন্য ২৪ ঘণ্টাও পাননি। আর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এসেছেন শ্যুটিং ফ্লোরে, তাই সাধারণত মানুষকে দেখে তার মন বিচার করা যায় না। আমরা বুঝতে পারি না যে সত্যিই সে কি চায় তার মনে কি আছে। হয়তো কিছু কিছু পরিস্থিতি এভাবেই বুঝিয়ে দিয়ে যায় কিছু সব মানুষ নিরব নয় তার কর্মে ষে উজ্জ্বল। এমন এক অভিনেতাকে তার মায়ের মৃত্যুর সহবেদনা জানায় র তার মায়ের শান্তি কামনা করি।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন