JEE রেজাল্ট ৭ আগস্ট জানাল শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

0
JEE result out 7 august
JEE পরীক্ষার ফলাফল বের হবে এই মাসে

হাজার সংবাদ ডেস্ক: বাংলায় করোনা পরিস্থিতিতে বিভিন্ন রকম ভাবে বিপদের সম্মুখীন হতে হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীদেরকে কোথাও স্কুল-কলেজ বন্ধ আবার পরীক্ষা হবে কি হবে না এইরকম বেশকিছু সংশয় নিয়ে কাটছে ছাত্র-ছাত্রীদের জীবন। তবে সাধারণ হবে তা কেউ বলতে পারবেনা। এখনো পর্যন্ত ফাইনাল সেমিস্টারের ছাত্র ছাত্রীদের পরীক্ষা হওয়া নিয়ে যথেষ্ট সংশয় রয়েছে সুপ্রিম কোর্টে এই নিয়ে বহুবার মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং সেই মামলার রায় অনুযায়ী এখনো পর্যন্ত নির্দিষ্ট হয়নি কোন নিয়ম কানুন।

বাংলায় করোনা পরিস্থিতি এখন ঊর্ধ্বমুখী কোন ভাবে সামাল দেওয়া যাচ্ছে না কিন্তু তার মধ্যে রাজ্যে শিক্ষা মন্ত্রী জানিয়েছেন 7 আগস্টের মধ্যে জয়েন্ট এন্ট্রান্স এক্সাম এর রেজাল্ট বের হবে। বেশ কয়েক দিন ধরে কোন সরকারি পরীক্ষার রেজাল্ট বের হয়নি তবে একদিন আগে রেজাল্ট দেওয়া হয়েছিল তবে ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যতের জন্য জয়েন্ট এন্ট্রান্স রেজাল্ট। যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ উচ্চ মাধ্যমিকের রেজাল্ট বেরিয়েছে মাধ্যমিকের রেজাল্ট বেরিয়েছে। কিন্তু উচ্চ মাধ্যমিকের জন্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য একটা ভালো খবর এটা।

পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন যে বেশ কিছু পরিবর্তন নিয়ে এসেছে কিন্তু তার মধ্যেই 2021 সাল থেকে হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এখনকার নিয়ম যেমন চলছে তেমন চলতে গেলে সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে পরীক্ষার ফলাফল বের করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য। সময় মত জয়েন্ট এন্ট্রান্স রেজাল্ট বেরোনোর যেমন গুরুত্বপূর্ণ তার সাথে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য নবম এবং দশম শ্রেণীর জন্য বেশ কিছু নিয়ম নিয়েছে। তাদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে এই রকম পরিস্থিতিতে কোনভাবে স্কুলে অনুশীলন করা সম্ভব নয়। তাই নবম এবং দশম শ্রেণীর জন্য বেশকিছু বাধ্যতামূলক করে দিয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

তিনি জানিয়েছেন যেরকম অনলাইন ক্লাস হচ্ছিল সেভাবেই হবে। এখন থেকে যদি ছাত্রছাত্রীরা চাই তাহলে সরাসরি শিক্ষকদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করতে পারে এবং তাদের ক্লাস আর সাবজেক্ট জানালে তারা সেখান থেকেই উত্তর পাবে। তাছাড়াও যে সমস্ত প্রশ্ন ছাত্রছাত্রীরা তাদের কাছে রাখবে অর্থাৎ শিক্ষক শিক্ষকদের কাছে রাখবে সেই সমস্ত শিক্ষক ক্লাস অনুযায়ী সেই ছাত্র-ছাত্রীদের প্রশ্ন অনুযায়ী দরকার অনুযায়ী সারাদিনে 11 টা থেকে 1 টা পর্যন্ত একটি সেশান এবং ২ থেকে ৪ পর্যন্ত একটি সেশন রাখা হয়েছে নবম এবং দশম শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীদের জন্য।

আগের মত এখন সার্বজনীন ক্লাস হবে ঠিকই কিন্তু সেখানে ছাত্রছাত্রীরা শিক্ষকের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবে সেখানে থেকে সমস্ত পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে। প্রত্যেকটা স্টুডেন্টদের আলাদা আলাদা ভাবে কি দরকার রয়েছে সেটা শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করতে পারে এবং চাইলে শিক্ষক প্রত্যেক দিনের শেষে ক্লাস রয়েছে সেখানে এই বিষয়ে আলোচনা করবে বলে জানিয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়। শিক্ষানীতির একের পর এক এই আমূল পরিবর্তন ছাত্রছাত্রীরা হয়তো সুবিধা পাবে আবার কোথাও কোথাও কিছু ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য অসুবিধা কারণ কোথাও নেট চলে না আবার কোথাও নেট চললেও তাদের ফোন নেই তাই সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে শিক্ষকদের সঙ্গে যোগাযোগ করার ব্যবস্থা চালু করেছে রাজ্য সরকার।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন