২৪ ঘণ্টা নয় ৩ ঘণ্টার মধ্যে জমা করতে হবে পরীক্ষার উত্তর পত্র! অন্তিম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের জন্য জানিয়েছে ইউজিসি

0
If you take the online exam, students will get 3 hours
পরীক্ষার সময় সীমা

হাজার সংবাদ ডেস্ক: বহু দিন ধরে আটকে আছে অন্তিম বছরের ছাত্রছাত্রিদের পরীক্ষা। ের মধ্যে রাজ্য যে চিঠি পাথিয়েছিল ইউজিসি সে সেই চিঠির উত্তর পাথিয়েছে ইউজিসি। রাজ্যের পাঠানো চিঠিতে ইউজিসি যে উত্তর পাঠিয়েছে অর্থাৎ আগামীকাল ইউজিসি তরফ থেকে যে চিঠি রাজ্যে এসেছে তাতে যে তালিকা এবং নিয়মাবলী পাঠানো হয়েছে পরীক্ষার্থীদের জন্য সেই নিয়ম মানবে রাজ্যের সমস্ত কলেজ। এরকম জানানো হয়েছিল আগে।

এখন ইউজিসি যে চিঠি পাঠিয়েছে সেখানে বেশ কিছু নিয়ম সারিবদ্ধ ভাবে বেঁধে দিয়েছে কলেজ গুলির জন্য। যদিও তার আগে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় তথা যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় এবং রাজ্যের বেশকিছু কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় গুলি জানিয়েছিল যদি ইউজিসি কোন উত্তর না পাঠাইয় তাহলে তারা কোন সময় সূচি বা পরীক্ষার নিয়ম কানুন দেবে না অর্থাৎ ছাত্রছাত্রীরা কোনভাবে পরীক্ষার সময়সূচি হাতে পাবে না।

কবে থেকে পরীক্ষা হবে তা অনিশ্চিত ছিল কিন্তিন্তু কিছু দিন আগে ইউজিসি জানিয়েছে যে অক্টোবরের মধ্যে সেস করতে হবে পরীক্ষার সমস্ত নিয়ম কানুন। তাই কলেজ গুলো জানিয়েছিল যতক্ষণ না এই চিঠির উত্তর পাঠাচ্ছে রাজ্যে ততক্ষন কোন বারতি নিয়মে আসতে চাই না কলেজ। অবশেষে চিঠির উত্তরে আগামীকাল ইউজিসি জানিয়েছে যে পরীক্ষা নিতে গেলে ছাত্র-ছাত্রীদের তার জন্য 24 ঘন্টা সময় দিলে চলবে না। পরীক্ষার সময় দেওয়া উচিত নয়। পরীক্ষার জন্য খুব বেশি হলে তিন ঘন্টা বা দু’ঘণ্টা সময় দেওয়া হতে পারে। সেক্ষেত্রে কত নাম্বারের পরীক্ষা তার ওপরে নির্ভর করবে সময় সিমা। সমস্ত নিয়ম ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় কোনভাবে ২৪ ঘন্টা দেওয়া সম্ভব নয় জানিয়েছে ইউজিসি। ইউজিসি তরফ থেকে জানানো হয়েছে অনলাইন পরীক্ষা সমস্যা নেই কিংবা অফলাইন পরীক্ষাতে সমস্যা নেই। সুপ্রিমকোর্টের নিয়ম অনুযায়ী অনলাইন, অফলাইন, অনলাইন-অফলাইন দুটো পদ্ধতিতে পরীক্ষা হলেও ইউজিসিতে কোন অসুবিধা নেই। তবে ২৪ ঘন্টায় ছাত্র-ছাত্রীদের উত্তর পাঠাতে হবে এই মেনে হবে পরীক্ষা জানিয়েছে ইউজিসি। যে তিন ঘন্টার মধ্যে প্রশ্নের উত্তর জমা করতে হবে কলেজ কর্তৃপক্ষকে অর্থাৎ কলেজে যদি এই সময়ের মধ্যে পরীক্ষার উত্তর পত্র জমা না পড়ে তাহলে সেই সমস্ত ছাত্রছাত্রীকে বাতিল করা হবে। সেই রকমই নিয়ম জারি করতে বলেছে। সেই পথেই এগোচ্ছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় সহ আরো কলেজ এবং রাজ্যের আরো বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজ গুলি।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন