শতাধিক কাপর দোকান ভস্মীভূত, আগুন বারুইপুর কাছারি বাজার এলাকায়

0
Hundreds of clothes shops were burnt in the fire at Baruipur Kachari Bazar
কাছারি বাজারে আগুন

হাজার সংবাদ ডেস্ক: দক্ষিণ 24 পরগনার বারাইপুরে এলাকায় কাছারি বাজারে আগুন লেগেছে মাঝরাতে। সোমবার মাঝ রাত নাগাদ সেখানকার জনসাধারণ দেখতে পায় যে আগুন লেগেছে কাছারি বাজারে। তখন প্রায় বারোটা সাড়ে বারোটা বাজে ঠিক সেই সময় সেখানকার মানুষ সাথে সাথে ফোন করে দমকল কর্মী কে দমকল কর্মীকে। ফোন করার প্রায় ঘণ্টাখানেক পরে দমকল কর্মীরা আসে ততক্ষণে চারিদিকে আগুন ছড়িয়ে যায় আরও অনেক দোকান ভস্মীভূত হয়ে যায়।

এরপর প্রথম দুটো ইঞ্জিন দিয়ে দমকলকর্মী চেষ্টা চালাচ্ছিল আগুন নেভানোর কিন্তু যেহেতু আগুন এতটাই ভয়াবহ রূপ নিয়েছিল যেখানে দুটোতে সম্ভব ছিলনা বলে আরো চারটি ইঞ্জিন নিয়ে আসে দমকল কর্মীরা। কিন্তু সেখানে জলের ঘাটতি হওয়ায় কোনভাবেই জল সরবরাহ করা জাচ্ছিলনা ছিল না তাই মিউনিসিপাল্যালিটি এলাকা থেকে জল নিয়ে অনেক কষ্টে সেই আগুন নেভানো গেছে তবে ততক্ষণে চারিদিকে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

এই কাছারি বাজার এলাকার কাছাকাছি জনবসতি রয়েছে। এই আগুনে এখনো পর্যন্ত কত কতজন মারা গেছে তা বোঝা যায়নি এখনো পর্যন্ত ধরা পড়েনি কে কে এই বশীভূত আগুনে নিজের জীবন দিয়ে দিয়েছে। তবে কাছাকাছি জনবসতি এলাকায় কালো ধোয়া এবং আগুনের জন্য অনেকের শ্বাসকষ্টের সমস্যা হচ্ছে সেটা জানিয়েছে তারা।

সেখানকার জনসাধারণের দাবি এক ঘণ্টা দেরিতে দমকলকর্মীরা আগুন আরো চারিদিকে ছড়িয়েছে যদি ঠিক সময় আসতো তাহলে এতটা ক্ষয়ক্ষতি হয়তো হতো না। কিন্তু যখন সেখানকার জনসাধারণ সেই আগুন দেখেছে তখন যথেষ্ট ভয়াবহ রূপ ছিল এবং তারা আসার পর আরো ভয়াবহ রূপ নিয়েছিল। এই কাছারি বাজার এলাকায় যে জায়গাতে আগুন লেগেছে সেখানে প্রায় শতাধিক কাপড়ের দোকান ছিল দমকল কর্মীদের জানিয়েছে। দমকল কর্মীরা জানিয়েছে সর্টসার্কিটে এই ঘটনা হয়েছে।

এখনও অন্য কোন তদন্ত চালানো হয়নি কিসের কারণে এইরকম একটা ভয়াবহ ঘটনা ঘটতে পারে। এই রকম ঘটনা এবং একসাথে নষ্ট হওয়া এতো দোকান এর আগে সচরাচর দেখা যায় না। কিন্তু হঠাৎ করে এতটা কিভাবে আগুন লেগে গেল তা কল্পনার বাইরে যথেষ্ট ভয়াবহ রূপ নিয়েছিল কাছারি বাজার। তবে ক্ষতি হয়েছে বহু ব্যবসায়ীরা কিন্তু তা কোনোভাবেই থামানো গেছে তবে ব্যবসায়ীদের কোনোভাবেই এই মুহূর্তে ব্যবসা চালু করতে পারবে না। কারণ তাদের যা ক্ষতি হয়েছে সেই ক্ষতির সামাল দিতে গিয়ে উঠে দাঁড়াতেও ভয় পাবে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন