TRAI এর গাফিলতিতে হ্যাক হচ্ছে বহু অ্যাকাউন্ট, নির্দেশ হাই কোর্টের

0
Fake phone is coming due to negligence of TRAI
টেলিকম সংস্থার গাফলতি তে খোয়া যাচ্ছে বহু অ্যাকাউন্ট

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সাইবার ক্রাইম নিয়ে এবার দিল্লি হাইকোর্টের নির্দেশে জানিয়েছে যে কি বিছু বিষয়ে গাফিলতি তে এই সমস্যা তে পড়ছে মানুস। চাইলে এই বিষয়ে অনেকদিন আগেই হস্তক্ষেপ করতে পারত টেলিকম সংস্থাগুলি। তাদের জন্যই আজ এই সমস্যা। আজ একটা ভুয়ো ক্লে মানুষের আতঙ্ক বাড়ত না। সারা সপ্তাহে প্রায় ১ থেকে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত গোটা বিশ্বে থেকে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে কিন্তু সেই বিষয় গুলোর উপর হস্তক্ষেপ করছেনা টেলিকম সংস্থাগুলি। দিল্লি হাইকোর্ট থেকে প্রশ্ন তুলল টেলিকম সংস্থার ওপর চাইলে এই ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করে বিষয়টা কি বন্ধ করতে পারে টেলিকম সংস্থা।

ভুয়ো ফোন কলের মাধ্যমে আসা এই ফোন গুলোকে কেন তারা বন্ধ করছে না কিংবা সেদিকে নজর না দিয়ে তারা কেন আটকাচ্ছে না এই ফোন কল গুলো। কিংবা এর ভিত্তিতে কোন এভিডেন্স কেন তাদের কাছে নেই। তা নিয়ে প্রশ্ন করলেন ট্রাই এর কাছে। তবে সূত্রের খবর অনুযায়ী তাদের অভিযোগ আয় কমার আশঙ্কা থেকেই তারা এই কাজ করতে চায়নি। সমস্ত ফোন কল তারা অনায়াসে মেনে নিচ্ছে এবং তার জন্য ক্ষতি হচ্ছে বহু সাধারণ মানুষের।

হঠাৎ করে আসা এই ভুয়া ফোন কল এবং হঠাৎ বন্ধ হয়ে যাওয়া বেশ কিছু ফোন কল যার মাধ্যমে মানুষ প্রতারিত হচ্ছে প্রতি মুহূর্তে। তার জন্য বিভিন্ন সংস্থা থেকে আবেদন করা হয়েছিল সত্বর ভূমিকা নেওয়ার জন্য। কিন্তু তার কোন শোরগোল দেখা যায়নি বরং সে বিষয়ে কেউ দায়িত্ব না নিয়ে এড়িয়ে গেছে, বিশেষ করে টেলিকম সংস্থাগুলি। তারা চাইলে এ বিষয়ে হাল ধরতে পারতো কিন্তু তারা তা করেনি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ আগস্ট মাস পর্যন্ত সেই সমস্ত ব্যবস্থা নেওয়া হোক যাতে কোনো ভুয়ো ফোন কল না আসে এবং সাধারণ মানুষ প্রতারিত যাতে না হয়। পেটিএম অ্যামাজন এছাড়াও বেশ কিছু সংস্থার উপরেও এই আর্জি জারি হয়েছে তবে তারা তা কতটা কার্যকরী হবে তা দেখার।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন