কেন্দ্রের কাছে পরীক্ষা মূল্যায়নে পাশ করিয়ে দেওয়ার দাবী রাজ্যের

0
Demand to cancel the examination to the government
পরীক্ষা বাতিলের আবেদন কেন্দ্রের

হাজার সংবাদ ডেস্ক: রাজ্য ও কেন্দ্রের বিরোধ এবার শিক্ষা মূল্যায়ন নিয়ে। ২৮ এ এপ্রিল কেন্দ্র থেকে যে নিয়ম চালু করা হয়েছিল সেই নিয়মে রাজি ছিল সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয় গুলি। কিন্তু হঠাৎ করেই ৬ জুলাই যে নিয়ম আনা হয়েছে তাতে অসুবিধায় পড়ছে বেশকিছু রাজ্য তথা পশ্চিমবঙ্গ। কারণ এখন করোনা পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গের অবস্থা যথেষ্ট গুরুতর। তাই এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য যথেষ্ট কঠিন। এর আগে বহুবার বলা হয়েছিল যে বিভিন্ন স্কুল এবং কলেজ গুলো করোনা প্রবাহের জন্য নিভৃত বাস করা হয়েছে। তাই ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রাখলে সেখানে কোনো ভাবেই পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয়। কেন্দ্রের যে নিয়ম জারি করা হয়েছে সেই নিয়মে তৎপর ভূমিকা নিয়েছে ইউজিসি-ও।

শনিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চিঠি পাঠিয়েছেন নরেন্দ্র মোদিকে। তিনি সেই চিঠিতে জানিয়েছেন যে ২৮ এ এপ্রিল যে নিয়ম জারি করা হয়েছিল সেই নিয়ম বহাল থাকুক বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজ গুলোর জন্য। কারণ এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষা নিলে যথেষ্ট অসুবিধায় পড়তে হতে পারে ছাত্র-ছাত্রীসহ শিক্ষক-শিক্ষিকারা। তাই সবার আগে ছাত্র-ছাত্রীর স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রাখতে হবে। এরপর শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছে ৬ জুন যে নিয়ম জারি করা হয়েছে সেটি বাতিল করে ২৪ শে এপ্রিল যে নিয়ম ছিল সেই নিয়ম বহাল থাকুক। কারণ আমরা এখন সকলের সুস্থতা কামনা করি। তাদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রাখতে গেলে আগের নিয়ম যথেষ্ট ছিল শিক্ষার্থীদের জন্য। তিনি এই বলে অনুরোধ জানিয়েছেন কেন্দ্রের কাছে।

আরও পড়ুনঃ অনলাইন ভর্তির নির্দেশ বেসরকারি স্কুল গুলোতে

তবে কেন্দ্র থেকে কড়া নির্দেশ ছিল ৬ জুলাই এর নির্দেশ মানতে হবে প্রত্যেক রাজ্য তথা পশ্চিমবঙ্গকে। কারণ শিক্ষা ক্ষেত্রের সিদ্ধান্ত নেওয়ার দায়িত্ব কেন্দ্র এবং রাজ্য মিলিয়ে ঠিকই কিন্তু কেন্দ্র যদি কোন নিয়ম বহাল করে সেটা মানতে বাধ্য প্রত্যেক রাজ্য। কেন্দ্রের থেকে কড়া নির্দেশ ছিল আবার পরীক্ষা মূল্যায়ন করতে হবে, কেন্দ্র চাইলে এই নিয়ম বাধ্যতামূলক করতে পারে সেই রকম আইন রয়েছে জানিয়েছে মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী।

তবে এই বিষয়ে মত জানাতে পারে ইউজিসি-ও। ইউজিসির মতামত গ্রাহ্য হতে পারে বলে জানিয়েছে মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী তাই রাজ্যের সমস্ত শিক্ষা বৈঠকে ঠিক করা হবে পরীক্ষার নিয়ম। অন্য একটি শিক্ষা বোর্ড জানিয়েছে তারা ইউজিসির কাছে সমস্ত বৃত্তান্ত লিখে পাঠিয়েছে এবং পশ্চিমবঙ্গ কেও সমস্ত পরিস্থিতির বার্তা পাঠানোর কথা জানিয়েছেন ওই শিক্ষাসংসদ। এই শিক্ষা সংসদ আরো জানিয়েছে প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজেদের পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মত প্রকাশের অধিকার রয়েছে। প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়ের আলাদা আলাদা অধিকার রয়েছে তারা চাইলে তাদের মত জানাতে পারে কেন্দ্রের কাছে। সব শিক্ষা বৈঠক এবং রাজ্য শিক্ষা সংসদের আবেদন যাতে ২৮ এপ্রিল পাশ করা নিয়ম বহাল থাকার জন্য।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন