পরিচালিকা চূর্ণি গাঙ্গুলি করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অংশ হতে চান

0
Churni Gangapadhyay wants to be a trail of corona vaccine
করোনা ভ্যাকসিনের অংশ হতে চান এই অভিনেত্রী

হাজার সংবাদ ডেস্ক: করোনা কাল থেকে এখনো পর্যন্ত বহু মানুষ বিব্রত হয়ে রয়েছে। কবে আসবে করোনার ভ্যাকসিন সেদিনই শুরু হবে দস্যু দমন কিন্তু কোনভাবেই সেই ভ্যাকসিনের দেখা মিলছে না। বিভিন্ন ল্যাবরেটরীতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে এবং মানবদেহের চলছে ট্রায়াল। বাঙালি অভিনেত্রী তথা এক পরিচারিকা তিনি এই মানব দেহের পরীক্ষামূলক ব্যবহারের জন্য এগিয়ে আসছেন। তার জন্য আবেদন জানিয়েছে। তিনি ভ্যাকসিনের এক অংশ হতে চান। সমাজসেবক হিসেবে তিনি তার শরীরে এই পরীক্ষার জন্য উৎসর্গ করতে চান নিজেকে।

দিল্লি অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্স এখনো পর্যন্ত করোনা ভ্যাকসিনের তৈরির জন্য মানবদেহে ট্রায়াল চলছে এই ট্রায়ালের অংশ হতে চান চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়। এইমসে করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম এবং দ্বিতীয় বারের শুরু হয়েছে এই পরীক্ষামূলক ট্রায়ালে তিনি অংশ নিতে চান বলে জানিয়েছে সোমবার ইমেইলের মাধ্যমে। তিনি জানান যে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য তিনি যদি সুযোগ পান তাহলে তিনি নিজের শরীরকে উৎসর্গ করতে চান। তিনি তার শরীরে করোনা ভ্যাকসিন পুশ করার জন্য এগিয়ে আসতে চান মাদারস ডের দিনকে তিনি এই কথাটি জানান সর্বসমক্ষে।

তিনি আরো বলেন এই কথাটি আরো অনেক আগে বলার ছিল এবং তিনি আরো আগে বলতেও চেয়ে ছিলেন কিন্তু তার ছেলে এবং স্বামীর ভয়ে তিনি কিছু বলেনি। হয়তো তারা রাজি হবে না এই কথা ভেবে। কিন্তু তারপর ফেসবুকে দেওয়া পোস্ট তাদেরকেই চেক করতে বলে এবং তারা চেক করার পরে জানায় যে তাদের মত রয়েছে। তবে তারপর তিনি মেইল করেন এবং এখন তিনি অপেক্ষা করছেন সেই ইমেইলের কি উত্তর আসে।

আরও পড়ুনঃ টলিপাড়ায় করোনার থাবা, বন্ধ হয়ে যাবে কি কোড়া পাখি সিরিয়াল?

যথাযথ উত্তর পেলে তিনি এগিয়ে যাবেন এই কাজের জন্য। এই ট্রায়াল’ যাদের শরীরে পুশ করা হয় তাদের জন্য শরীর যথেষ্ট সুস্থ থাকা দরকার এবং বেশ কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা তে যদি উত্তীর্ণ হওয়া যায় তবেই তার শরীরে এই ভ্যাকসিন পুশ করা যাবে। এরপর তিনি সমস্ত কিছু টেস্ট করানো হয়েছে সেখানে সবকিছুতে পজেটিভ রয়েছে এর মধ্যে আরও একটি নিয়ম রয়েছে 18 থেকে 55 বছর বয়সের মধ্যে কোন স্বেচ্ছাসেবক এগিয়ে আসতে পারে। সেদিকেও তিনি এক ধাপ এগিয়ে এই সমস্ত কিছু নিয়মকানুন এর মধ্যেই রয়েছেন তিনি তাই তিনি মেইল পাঠিয়ে ছিলেন। এবারে ইমেলের উত্তরের অপেক্ষা করছে তারপর তিনি এই কাজের জন্য এগিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন অনেক দিনের ইচ্ছে ছিল এইরকম কিছু হওয়ার কারণ যখন থেকে করোনা প্রকোপ ছড়িয়েছে তখন থেকেই তিনি ভাবতেন যেদিন ভ্যাকসিন আসবে সেদিন এই দস্যু দমন হবে। কিন্তু মেডিসিন আসছিল না এবং তারপর যখন পরীক্ষা শুরু হল তখন থেকেই তার ইচ্ছে ছিল যে তার শরীরে এই মেডিসিন পুশ করার জন্য। তবে তা এবার হয়তো কার্যকরী হবে তার মনের ইচ্ছে পূরণ হবে। এবার বাড়ি পরিবারের মতামত নিয়ে এবার তিনি এগিয়েছেন। স্বামী কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় এবং ছেলে উজান গঙ্গোপাধ্যায় দুজনেই চাই যে এই কাজে এগিয়ে যাক তিনি তাই তাদের যথাযথ মতামত নিয়ে এগিয়েছেন এই কাজে।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যে সমস্ত ব্যাংক সপ্তাহে দুদিন বন্ধ থাকবে! বিস্তারিত জানুন

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন