আমাদের শরীরে ছোটো থানকুনি পাতার প্রভাব অপরিসীম!

0
gotu kola
থানকুনির উপকারিতা

হাজার সংবাদ ডেস্ক: সাধারনত আমরা দোকান থেকে সবজি কিনে খাই কিন্তু সবজির সাথে শাকের কি গুনাগুন সেগুলো আমরা কখনো জানতে চেষ্টা করিনা। আবার কেউবা আছে যারা গুনাগুন বিচার করে শাক সবজি খায়। তবে আমরা অনেকে শাক খেতে পছন্দ করিনা। যেগুলো আমাদের চোখের সামনে সব সময় দেখা যায় বা কোন অর্থ ছাড়া সেই সবজিগুলো আমরা খেতে পারি। অনেক গুন আছে জেনেও আমরা এগুলো খাই না। স্বাদ বিচার করি প্রত্যেক খাবারের। তবে খুব সস্তাই এই শাক সবজি দিয়ে আমরা নিজেদের শরীর সুস্থ রাখতে পারি। সাধারনত গ্রামে-গঞ্জের দিকেই শাক পাতাগুলো আমরা বিনামূল্যে পেতে পারি কিন্তু তাও আমরা অনেকেই এগুলো খাই না। যেমন তার মধ্যে একটা অন্যতম শাখ হলো থানকুনি পাতা। এই থানকুনি পাতার গুণ রয়েছে কিন্তু তাও আমরাই থানকুনি পাতা ঠিকঠাকভাবে খাইনা। থানকুনি পাতার গুনাগুন আমরা প্রত্যহ ব্যবহার করলে আমাদের শরীরের অন্য রকম প্রতিক্রিয়া ফেলবে। তবে মানুষ সেই থানকুনি পাতার গুরুত্ব না বুঝে তাকে অবহেলা করে থাকে।

চলুন দেখে নেওয়া যাক- থানকুনি পাতায় কি কি গুণ রয়েছে এই থানকুনি পাতা থেকে কি উপকার পাই আমরা? প্রথমত আমরা ছোটবেলা থেকে শুনে এসেছি আমাশয়ের সমস্যা দূর হয় এই পাতা থেকে। যে সমস্ত ব্যক্তির বা বাচ্চাদের আমাশয়ের সমস্যা আছে তাদের জন্য থানকুনি পাতার উপকার দেয়। থানকুনি পাতা খেলে মুখে অর্থাৎ দাঁতের পাইরিয়া সমস্যা আছে যাদের সেই সমস্যা দূর হয় থানকুনি পাতা দ্বারা। দাঁতের রক্ত পড়া বন্ধ করে এই পাতা। গরম জলে ফুটিয়ে সেই গরম জলে কুলি করলে দাঁতের সমস্যা দূর হয় দুর্গন্ধ দূর হয়। থানকুনি পাতা খেলে তারুণ্য ধরে রাখে অনেক দিন এবং তার সাথে সাথে আমাদের যৌবন ধরে রাখতে সাহায্য করে। থানকুনি পাতা খেলে শুষ্ক ত্বক হয়ে ওঠে মোলিন হয়ে যায়। এবং তার সঙ্গে অনেক উজ্জ্বল হবে আমাদের ত্বক। এবং আপনাদের কোথাও কেটে যায় বা অনেক দিন ধরে না সারা ব্যাথায় থানকুনি পাতা বেটে সেই রস কাটা জায়গায় লাগানো যায়, তাতে দীর্ঘদিনের ব্যথা বেশ কয়েক দিনেই নির্মূল হবে। আবার ধরুন আপনি যখন সকালবেলা এক গ্লাস জল খাবেন সেই জলটা গরম করে তাতে ৪ থেকে ৫ চামচ থানকুনি পাতার রস খেলে আপনার বয়সটা একই থাকবে আপনাকে অনেক অনেক young দেখবে।

এই ছোট্ট একটি পাতার এত গুণ আমরা কখনো বিচার করে দেখি না যখনই কোন সমস্যা তে পড়ি তখনই এগুলো খাওয়ার কথা আমাদের মনে পড়ে। কিন্তু রোজদিন যদি আমরা থানকুনি পাতা খায় তাহলে শরীরের অনেক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের সজাগ প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়। যেমন ধরুন সকালবেলা আপনি ওঠে ঘুম থেকে ওঠার পর ব্রাশ করে চারটা থেকে পাঁচটা থানকুনি পাতা চিবিয়ে খান তাতে আপনার পেটের অনেক সমস্যা দূর হবে। সাথে দূর হয় আপনার আমাশয়। এটা আমি অনেক আগেই বলেছি তাই নিজেদের শরীরের প্রত্যেক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সক্রিয় রাখতে গেলে আমাদের বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলা। উচিত তাই এবার থেকে আপনারা বাড়িতে খাওয়া প্র্যাকটিস করুন এই থানকুনি পাতা। এই পাতা হালকা তিক্ত স্বাদ থাকলেও এই পাতাটি তেমন কোনো কোন গন্ধ নেই তাই অনায়াসে এই পাতা আমরা খেতে পারি।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন