শুধু পেট পরিস্কার রাখে তা নয় সাথে ভাল রাখবে আপনার স্কিনও! তার জন্য খেতে হবে থানকুনি পাতা

0
Benefit of gotu kola in human body
থাকুনির উপকারিতা

হাজার সংবাদ ডেস্ক: আজীবন সুস্থ থাকতে এই পাতা জুড়ি মেলা ভার সেটা হল থানকুনি পাতা। এই পাতা এক এক জায়গায় এক এক রকম নামে পরিচিত। যেমন অনেকে এই পাতার কে থানকুনি, ধুলা বেগুন, আদাগুনগুনি, মানকি এরকম নামেও চীনে থাকে অনেকে। এই থানকুনি পাতা সব রকম ভাবে কাজে লাগানো যায় আমাদের শরীরে। এই পাতা কমবেশি সবাই চেনে জলাশয় জায়গায় ও পুকুরের পাড়ে এই পাতা দেখা যায়।

এই পাতা পেটের অসুখের পাশাপাশি রূপচর্চাতেও ভালো কাজ দেয়। এই পাতা নিয়মিতভাবে যদি খাওয়া যায় তাহলে কোনরকম পেটের সমস্যা হয়না যারা গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভুগছেন। তারাও এই পাতা খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় আরো ভুগতে হবে না। আমরা জানি থানকুনি পাতা আমাশয় এর পক্ষে খুব ভালো কাজ দেয়। প্রতিদিন নিয়মিত করে 1 থেকে 2 চামচ থানকুনি পাতার রস খাওয়া গেলে আমাশা থেকে দূরে থাকা যায়। সব রকমের পেটের সমস্যা থেকে দূরে থাকতে থানকুনি পাতা আমাদের খুব কাজ দেয়। যেমন ধরুন আলসার হাঁপানি এলার্জি থেকেও দূরে থাকতে এই পাতা খুব ভালো ফল দেয়। থানকুনি পাতা খেলে চর্মরোগ সেরে যায়। থানকুনি পাতা তে বিকসাইট এ ও Bacoside b মস্তিষ্কের উপর কোষ গঠন করতে সাহায্য করে থাকে মস্তিষ্কে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। এর ফলে স্মৃতি শক্তি উন্নতি হয়। তাই এই পাতা বাচ্চাদের ক্ষেত্রে খাওয়ানো খুব ভালো তাতে স্মৃতিশক্তি বাড়বে। ডায়রিয়ার মতন সমস্যার হাত থেকেও রক্ষা করে এই পাতা। যেকোনো ধরনের জয়েন্টের ব্যথা কমিয়ে থাকে তার সঙ্গে সঙ্গে পেশির যন্ত্রণাটা কে উপশম করতে সাহায্য করে।

শরীরের ওজন কমাতে কাজ দেয় এই পাতা। স্নায়ূতন্ত্র কে সক্রিয় রাখার জন্য পাতার রস নিয়মিত খেলে সহায়তা পাবেন। কোন আঘাত লেগে হঠাৎ কোথাও কেটে গিয়ে থাকলে তার ওপর থানকুনি পাতার রস লাগালে তাড়াতাড়ি ক্ষত সেরে যায় এর সঙ্গে সঙ্গে পুরনো ক্ষত এই থানকুনি পাতা পেস্ট করে লাগালে ক্ষত তাড়াতাড়ি সেরে যায়। এসবের পাশাপাশি নিজেদের ত্বকের উপর ভালো কাজ দেয় এই থানকুনি পাতা রুক্ষ ত্বককে মসৃণ করতে সাহায্য করে ত্বকের মৃত কোষ কে পুনর্গঠন করে এই পাতার রস খেতে পারলে। প্রতিদিন এই থানকুনি পাতার রস 4 থেকে 5 চামচ এক গ্লাস দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খেলে আপনার ত্বককে উজ্জ্বল করে যৌবন ধরে রাখার জন্য এই পাতার গুণ অনেক। মাথায় চুল ওঠা বন্ধ করে নতুন চুল গজানোর জন্য এই পাতার ব্যবহার খুব ভালো কাজে লাগে। রক্ত পড়া বা দাঁতের কোন রকম যন্ত্রণা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য এই পাতা কিছুটা জলের সঙ্গে ফুটিয়ে নিয়ে সেটা থেকে সেই জলে কুলকুচি করলে ভালো কাজ দেয়। তাই এই পাতা যদি নিয়মিত খাওয়া যায় তাহলে শরীরে রোগের বাসা বাঁধতে দেয় না চট করে। তার এই পাতার গুরুত্ব আমাদের জীবনে অপরিসীম।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন