টলি অভিনেতা সোহম চক্রবর্তীর করোনা পজিটিভ! ভর্তি রয়েছেন হাসপাতালে

0
actor sohan chakraborty tested corona positive
অভিনেতা সোহম

হাজার সংবাদ ডেস্ক: দিনের পর দিন বাড়ছে একে একে করোনা সংক্রমনের সংখ্যা। বিভিন্ন মানুষের সংক্রমণ হচ্ছে তা অসংখ্য। এর আগে আমরা বহুবার চলচ্চিত্রের অভিনেতা অভিনেত্রীদের করোণা সংক্রমণ হতে শুনেছি এবং তারা সুস্থ হয়েছে। আবার অনেকেই অনেক বেশি দিন অসুস্থ হয়ে থাকার পর সুস্থ হয়েছে যেমন এর আগে ছিলেন মল্লিক পরিবার অর্থাৎ কোয়েল মল্লিক এবং রঞ্জিত মল্লিক এবং তাঁর পুরো পরিবার। তার পর পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর পরিবারে হানা দিয়েছিল করোনা। তবে রাজ চক্রবর্তী রিকভার করলেও তার বাবা করোণা সংক্রমণে মারা যায়। আর এবার করোনা সংক্রমণ হয়েছে অভিনেতা সোহমের।

বেশ কিছুদিন আগে থেকে তিনি কিছু উপসর্গ দেখে সন্দেহ করায় তড়িঘড়ি করে করোনা পরীক্ষা করান এবং নমুনা পরীক্ষা করানোর পর জানা যায় তার করোনা হয়েছে তবে তার আগে তিনি বিভিন্ন জায়গায় সভা করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের জব নেতা হয়ে। এবং তিনি জানতেন না তার করণা হয়েছে তবে করোনা হওয়ার পর তিনি এখন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন কাল রাতে। তড়িঘড়ি করে উপসর্গ দেখায় রিপোর্ট করিয়েছিলে যখন পজেটিভ রিপোর্ট হাতে পেয়েছে সাথে সাথেই তিনি ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে এবং তার বাড়ির সমস্ত সদস্যদের কেউ পরীক্ষা করানো হয়েছে করোনা। তবে পরিবারের সবার রিপোর্ট করানো হয় কিন্তু স্ত্রী এবং দুই সন্তানের করোনা রিপোর্ট এসেছে নেগেটিভ। আপাতত সূত্রের খবর অনুযায়ী তিনি এখন ভর্তি আছে হাসপাতলে। যথাযথ চিকিৎসা চলছে তবে শারীরিক অবস্থা ভালোই আছে খুব একটা বেশি কিছু উপসর্গ দেখা দেয় নি হালকা জ্বর এবং সর্দি-কাশি রয়েছে।

রাজনীতিতে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের এক দায়িত্বপূর্ণ পদে থাকায় তিনি বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন সভা করেছেন। বিভিন্ন জেলায় যে সভা করেছেন সেখানেও তিনি উপস্থিত ছিলেন। এর মধ্যে ও বিভিন্ন জায়গায় তিনি সভায় উপস্থিত থেকেছেন সশরীরে। তাই সংক্রমণ যদি তার হয়ে থাকে সেখান থেকেই হয়েছে কিন্তু তার শরীর থেকে আর কত মানুষের করোণা সংক্রমণ ছড়িয়েছে তার সব থেকে বড় চিন্তার বিষয়। যদিও তিনি সবার জন্য বলেছেন যে যারা তার সংস্পর্শে এসেছে তারা যেন খুব তাড়াতাড়ি করোনা পরীক্ষা করাই এবং নমুনা পরীক্ষার পর পজেটিভ রিপোর্টে নেতারা একাকী ঘরে থাকে এবং যারা আমার সংস্পর্শে এসেছে যদি করোনা নেগেটিভ আসে তারাও যেন বেশ কয়েক দিনের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকে। এইরকম আবেদন জানিয়েছে তিনি। আর যখনই তিনি নিজে জানতে পেরেছেন তার করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এবং উপসর্গ দেখে তিনি কিছু বুঝতে পেরেছিল তখনই তিনি তড়িঘড়ি করে করোনা পরীক্ষা করান এবং সেই করণা পরীক্ষার রিপোর্ট পজেটিভ আসায় সাথে সাথেই তিনি কোনো ঝুঁকি না নিয়ে ভর্তি হন হাসপাতালে।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন