ভারতের পর এবার Google থেকে ২৫টি অ্যাপ বাতিলের নির্দেশ!

0
25 apps were banned from google
২৫ টা অ্যাপ বাতিলের নির্দেশ

হাজারসংবাদ ডেস্ক: এক দুদিন আগেই আমরা শুনেছি ভারত সরকার ৫৯ চিনা অ্যাপ ব্যান করেছে। তার মধ্যে অন্যতম ছিল টিক টক। টিক টক অ্যাপ নিয়ে তাদের দাবি ছিল যে তারা কোন তথ্য পাচার করছে না চীনে। তাই টিকটকের কোম্পানি বাইটডান্সের দাবী যে টা ছিনের ভারতীয় তথ্য পাঠাইনি। টিকটক থেকে বহু তথ্য পাচার নিয়ে বহু কথা উঠেছে। এ নিয়ে যে ডিজিটাল স্ট্রাইক করল ভারত সরকার তা নিয়ে এখনো জলঘোলা কাটেনি।

কিছুদিনের মধ্যেই আবার আজকে জানা গেল গুগল থেকে ২৫ টি অ্যাপ ব্যান করে দেওয়া হয়েছে। গুগল প্লে স্টোর থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে ২৫ টি অ্যাপ তার মধ্যে অন্যতম হলো সিম্পল ওয়ালপেপার লেভেল।এছাড়াও প্যাডনাটেফ এবং সলিটারি গেম, ফ্ল্যাস লাইটের এর মতো অ্যাপগুলি। আমরা সাধারণত গেম এবং ফান এইরকম অনেক বিষয়ে ইন্সটল করে থাকি। আর তার মাধ্যমে পাচার হয় আমাদের ব্যক্তিগত তথ্য। তাই গুগল থেকে ব্যান করা হয়েছে এই সমস্ত অ্যাপ। এই সমস্ত অ্যাপে সম্ভার প্রচুর প্রায় দু’লক্ষ থেকে তিন লক্ষ আবার বেশ কিছু ক্ষেত্রে ৭ থেকে ৮ লক্ষ পর্যন্ত ইউজার ব্যবহার করে থাকে।

সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যম থেকে জানা গিয়েছে এক সাইবার বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন যে এই অ্যাপ গুলো তৈরি করার সময় তেমনভাবে কোন নিরাপত্তা মেনটেনেন্স থাকেনা। ২৫ ডলার খরচ করলেই এই একটা জায়গা পেয়ে যায় প্লে স্টোরে। গুগল থেকে কোন অ্যাপের নিরাপত্তা রাখা সম্ভব নয়। তাই এই অ্যাপের সিক্যুরিটি বজায় রাখা যথেষ্ট কঠিন।

আর সেখান থেকে সাধারন মানুষের দ্বারা ইনস্টল করে থাকে ফোন, আর এই অ্যাপ থেকে তারা প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারছে সাথে তথ্যগুলো ছিনিয়ে নিচ্ছে। তেমন ভাবে কোনো স্বীকৃতি নেই নিরাপত্তা নেই এই অ্যাপের। তিনি আরো জানিয়েছেন যে যখন আমরা ফেসবুক ব্যবহার করি ঠিক সেইসময় আমাদের সামনে অনেক নোটিফিকেশন আসে কিংবা ফেসবুকের থেকেও ফেসবুক লগইন আইডি দিয়ে বেশ কিছু অ্যাপ সামনে দেখায়। এবং অনেক ইউজার আছে যারা সেই অ্যাপ ক্লিক করে এবং সেখানে ফেসবুক আইডি পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করার কথা বলা হয়। অনেক ইউজার আছে না বুঝে এই কাজটা করে। তাদের ক্ষেত্রে তথ্য পাচার হবার সম্ভবনা বেশি থাকে। তাই এগুলোকে এড়িয়ে চলার কথা বলা হয়েছে। সাথে জানানো হয়েছে যে ফেসবুক বা মেইল আইডির প্রত্যেকটা ইউজার যেন তাদের আইডির সাথে পাসওয়ার্ডটা আলফা নিউমেরিক ক্যারেক্টার দিয়ে করে। অর্থাৎ এই স্ট্রোং পাসওয়ার্ডে হ্যাক হবার সম্ভবনা কম থাকে না।

তিনি আরও জানিয়েছেন যখন আমরা মোবাইল ফোন ইউজ করছি সেই সময় ডাটা অন থাকলে ব্রাউজিং ভাবে বেশ কিছু অ্যাপ সামনে নোটিফিকেশন দেখায়। হঠাৎ করে আমরা সেটি গ্রাহন করি এবং সাথে ইন্সটল হয়ে যায় আমাদের ফোনে। তখনই ফোনে সেভ করা তথ্য পৌঁছে যায় তাদের কাছে। তাই এগুলোকে এড়িয়ে চলতে হবে।

যদি এই সমস্ত অ্যাপ এখনো পর্যন্ত প্রচুর মানুষের ফোন ইনস্টল আছে। কিন্তু সেগুলো কিভাবে বাতিল করা হবে তা নিয়ে গুগোল কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি। কিন্তু নতুন করে ইন্সটল করতে গেলে গুগল প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপ থাকবেনা গুগল প্লে স্টোরে। ফোনে ইন্সটল আছে সেগুলো কিভাবে বন্ধ করা হবে তা নিয়ে যথেষ্ট ভাবনা চিন্তা করছে গুগল সংস্থা।

একটি মন্তব্য করুন...

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন